Fri, 19 Jan, 2018
 
logo
 

সরকারি রাস্তা গিলে খাচ্ছে মাছের খামারীরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: খামারের বিশালাকার মাছগুলো গাছের গোড়ার মাটি সরিয়ে ফেলেছে।  এতে করে মাটি উপড়ে গাছ পড়ে যায়।  পানিতে পড়ে থাকা গাছও নিয়ে গেছে কে যেনো। এ ঘটনা জালকুঁড়ি এলাকার। এখানকার মাছের খামারীদের কারনে সড়কও ভেঙ্গে গেছে। দীর্ঘদিন ধরে এমনটা চললেও  গাছ ও সড়ক রক্ষার কোন উদ্যোগ নেয়নি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

সরেজমিনে গেয়ে দেখা গেছে, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলায় অবস্থিত খান সাহেব ওসমান আলী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের পাশ ঘেষে জালকুঁড়ি চলে গেছে খেজুর তলা নামক ওই সড়কটি। এ সড়কের  দুই পাশে ৭ থেকে ৮টি মাছের খামার গড়ে উঠেছে। মাছের খামার গুলোর বাধঁ হিসেবে এখন সড়কটি ব্যবহার হওয়ায় বিভিন্ন অংশে ভেঙ্গে গেছে।

সরকারি রাস্তা গিলে খাচ্ছে মাছের খামারীরা

এছাড়া সড়কটির দুই পাশের অবস্থিত অধিকাংশ গাছের গোড়ায় মাটি না থাকায় ভেঙ্গে পড়ছে গাছগুলো। অনেকেই আবার ভেঙ্গে পড়া গাছের মূলে তৈরি করেছেন গোসল খানা। নিয়মিত অনেক লোক গোসল করায় প্রতিনিয়ত একটু একটু ভাঙ্গছে সড়ক।

সরকারি রাস্তা গিলে খাচ্ছে মাছের খামারীরা

স্থানিয়দের দাবি, ঢাকা নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পূর্বে ওই সড়কটি নির্মাণ করা হয়েছে। ওই সময় সিদ্ধিরগঞ্জের বাসিন্দারা ফতুল্লা হাটে বেচা বিক্রী করতে এই সড়ক ব্যবহার করতেন। বর্তমানে সড়কটিতে ৬ মাস জলাবদ্ধতা থাকে। ফলে ওই সড়কের দুই পাশে গড়ে উঠা বেশ কয়েকটি তৈরি পোষাকসহ বিভিন্ন কারখানার শ্রমিকসহ হাজারও পথচারি প্রতিদিনই দূর্ভোগ সহ্য করেই চলা ফেরা করছে।

নীট সেন্টিকেট গার্মেন্টসের শ্রমিক রাবেয়া আক্তার বলেন, সড়কের দুই পাশে মাছ চাষের ফলে সড়কের বিভিন্ন অংশে নিচু হয়ে গেছে। ফলে সড়কটিতে বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ায় আমাদের প্রায় সোয়া এক কিলোমিটার রাস্তা ঘুরে লিংক রোড দিয়ে চালচল করতে হয়।
এক স্থানিয় বাসিন্দা জানান, প্রায় পৌনে এক কিলোমিটার রাস্তা কেটে মৎস খামারীর সুবিধার্থে পানি এপার ওপার করানো হয়। ফলে বিভিন্ন স্থানে এখন রাস্তাটি নিচু হওয়ায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম