বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০২৪
Led02বন্দররাজনীতি

৫৫বছরের রাজনৈতিক জীবন, কেউ বলে নাই দুস্কৃতিকারী-ঘুষখোর: এম এ রশিদ

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বন্দর উপজেলার চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এম এ রশিদের নির্বাচনী উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২৭ এপ্রিল) রাতে পুরান বন্দর চৌধুরীবাড়ি ২নং ওয়ার্ড এলাকায় জনতা ক্লাব মাঠে এই উঠান বৈঠকের আয়োজন করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

এতে বন্দর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুজ্জামানের সভাপত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এড. তাজুল ইসলামের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এম এ রশিদ।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন- জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই, বন্দর যুবলীগ নেতা খান মাসুদ, বন্দর উপজেলা জাপা সাংগঠনিক সম্পাদক মাইনুদ্দিন মানু, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান সম্রাট, সাধারণ সম্পাদক রাসেল প্রধান, মহানগর আ.লীগে যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক হুমায়ুন কবীর মৃধা, বন্দর ১নং ওয়ার্ডের সদস্য ইমন মেম্বার, ২নং ওয়ার্ডের সদস্য চাঁন শরীফ, বন্দর উপজেলা আ.লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক শামীম সরকার প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এম এ রশিদ বলেন, আমি গর্ব করি কারণ আমি আমার ৫৫বছরের রাজনৈতিক জীবনে আপনাদের সাথে থাকতে পেরেছি। এটাই আমার জন্য বড় বিষয়। দীর্ঘ এত বছরেও জনগনের সাথে আমার কোন খারাপ সম্পর্ক হয় নাই। জনগন আমাকে বলে নাই যে, আপনি একটা দুস্কৃতিকারী লোক; আপনি একটা ঘুষ খোর।

তিনি আরও বলেন, আর যারা অল্প কয়েকদিন চেয়ারম্যানগিরি করে শতশত কোটি টাকার মালিক হয়েছে, তার এতটাকা কোথা থেকে এসেছে সেটার কোন হাদিস নাই। হটাৎ করে এখানে (উপজেলা নির্বাচন) নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে এসে সমাজটাকে দুষিত সমাজ বানাচ্ছে। মানে রাখবেন এই সমাজটাকে আমাদেরই পরিস্কার রাখতে হবে। এই সন্তানদের সঠিক পথে আনতে অনেক সময় লাগবে। এর একটি মাত্র কারণ, কালো টাকা।

তিনি বলেন, আমরা ৫৫বছর ধরে মানুষের সাথে কাধে কাধ মিলিয়ে চলছি। একজন সাধারণ মানুষের মতো জিবিকা নির্বাহ করছি। জনগনের কাছ থেকে লাখ লাখটাকা ইনকামের কথা আমি চিন্তা করি না, আমার কোন কর্মী করে না। আর এই রাজাকারেরা ৫৩বছর আগেই শিখেছে কিভাবে জনগনের কাছ থেকে টাকা কামাইতে হবে। আজ সেই টাকা গুলো তারা ইনকাম করছে, কালো টাকা গুলো আমাদের সন্তানদের দিচ্ছে।

আমি আপনাদের সবার কাছে অনুরোধ করবো। ‘দোয়াত কালি’ মার্কায় একটি ভোট দিন। আমাকে ভোট দিতে মন না চাইলে দিয়েন না। কিন্তু অসৎ কোন ব্যাক্তিকে ভোট দিয়ে আপনার ভোটটি নষ্ট কইরেন না।

RSS
Follow by Email