সোমবার, মে ২০, ২০২৪
Led04রাজনীতি

রাত পোহালেই ভোট

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ক্যালেন্ডারের পাতায় আর এ দিন পার হলেই অনুষ্ঠিত হবে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। এরইমধ্যে ভোটকেন্দ্রে পৌঁছেছে নির্বাচনী সরঞ্জামও। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ নিশ্চিত করতে জোরদার করা হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এখন শুধু ভোটগ্রহণের অপেক্ষা। পাঁচ বছর পর অনুষ্ঠিতব্য এই নির্বাচনে সাধারণ ভোটারদের মতো প্রথমবার সংসদ নির্বাচনে ভোট দেবেন এমন ভোটাররাও বেশ উজ্জীবিত। যদিও নির্বাচন নিয়ে কারো কারো আবার রয়েছে ভিন্ন মতামত।

২০২২ সালের জনশুমারী ও গৃহগণনার প্রাথমিক প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী এ জেলায় জনসংখ্যা ৩৯ লাখ ৮ হাজার ৩৭১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২০ লাখ ১৫ হাজার ৮৪৫ জন এবং নারী ১৮ লাখ ৯২ হাজার ১৬২ জন ও তৃতীয় লিঙ্গ ৩৬৪ জন। মোট জনসংখ্যার মধ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এর জনসংখ্যা ৯ লাখ ৬৭ হাজার ৭২৪ জন। এরমধ্যে পুরুষ ৪ লাখ ৯৯ হাজার ৮৫৪ জন, নারী ৪ লাখ ৬৭ হাজার ৭৭১ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গ ৯৯ জন।

জেলার রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ জেলায় মোট ৫টি আসনে আওয়ামীলীগ, জাতীয় পাটি, তৃণমূল বিএনপি সহ ১৩টি রাজনৈতিক দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মিলে ৩৪ জন প্রার্থী ভোটের মাঠে রয়েছেন। এ জেলায় নারীদের থেকে পুরুষ ভোটার বেশি। জেলার ৫ টি আসন মোট ভোটার সংখ্যা ২২,৫৫,০৬০ জন। যেখানে পুরুষ ভোটার ১১,৪৭,৯৭৭ জন, মহিলা ভোটার ১১,০৭,০৬৬ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গ ১৭ জন। এর মধ্যে নতুন ভোটার আছেন ২,৩৭,১৯৯ জন। এর মধ্যে, নারায়ণগঞ্জ ১ (রূপগঞ্জ) আসনে মোট ভোটার ৩,৮৫,৬১৬ জন মহিলা ১,৮৮,৭২০ জন, পুরুষ ১,৯৬,৮৯৪ জন, তৃতীয় লিঙ্গ ২ জন। নারায়ণগঞ্জ ২ (আড়াইহাজার) আসনে মোট ভোটার ৩,৩৩,২৬৭ জন। মহিলা ১,৬২,১৩৯ জন, পুরুষ ১,৭১,১২৫ জন তৃতীয় লিঙ্গ ৩ জন। নারায়ণগঞ্জ ৩ (সোনারগাঁও) আসনে মোট ভোটার ৩,৪৫,৬৩৮ জন। মহিলা ১,৬৭,৪৮৯ জন, পুরুষ ১,৭৮,১৪৯ জন। তৃতীয় লিঙ্গ নেই। নারায়ণগঞ্জ ৪ (ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনে মোট ভোটার ৬,৯৬,১৩৯ জন, মহিলা ৩,৪৩,৬৯২জন পুরুষ ৩,৫২,৪৪১ জন তৃতীয় লিঙ্গ ৬ জন। নারায়ণগঞ্জ ৫ (সদর-বন্দর) আসনে মোট ভোটার৪,৯৪,৪০০ জন, মহিলা ২,৪৫,০২৬ জন, পুরুষ২,৪৯,৩৬৮ জন, তৃতীয় লিঙ্গ ৬ জন।

নির্বাচনের দিন যাতে শান্তিপূর্ন ভাবে ভোট গ্রহন হয় সেই নিয়ে শক্ত অবস্থান নিয়েছে প্রশাসন। এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, ‘শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন করতে ইতোমধ্যে সবধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। কোন প্রকার অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে প্রস্তুত জেলা পুলিশ।’

প্রসঙ্গত, এ নির্বাচনের মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিলো বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর ২০২৩)। এরপর শুক্রবার ৩১ নভেম্বর থেকে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলেছে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের পর্ব। মনোনয়ন জমা দেন মোট ৪৫ জন, যেখানে যাচাই-বাছাই এবং প্রত্যাহারের পর চুরান্ত প্রার্থীর সংখ্যা দাড়ায় ৩৪ জনে। এরমধ্যে ১৩ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন। প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয় ১৮ ডিসেম্বর এবং সেই প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চলে জানুয়ারির ৫ তারিখ পর্যন্ত। এবং সর্বশেষে আগামীকাল ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে বহু কাঙ্খিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহন।

RSS
Follow by Email