বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০২৪
Led03রাজনীতি

মুঠোফোনে আইভীকে যে বার্তা দিয়েছিলো শামীম ওসমান

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: দেশবাসীর কাছে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান ও সিটি মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর মধ্যকার দ্বন্দ্ব অনেকটাই ওপেন সিক্রেট। তবে, জাতীয় নির্বাচনকে সমানে রেখে সেই কোন্দল মিটিয়ে ঐক্যবদ্ধা হওয়ার লক্ষ্যে মেয়র আইভীকে গত ৮ আগস্ট মুঠো ফোনে একটি বার্তা পাঠান শামীম ওসমান।

আগামী ৪ নভেম্বর ঢাকা বিভাগীয় সমাবেশ সফল করতে বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সার্কিট হাউজে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় তিনি এ কথা জানান।

এসময় উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে সেই বার্তাটি পড়ে শোনান শামীম ওসমান।

শামীম ওসমান বলেন, আমার বাবা মা ভাইয়ার কবরগুলো শ্মশানের মাটি দিয়ে ঢেকে দেয়ার বিষয়ে, আমি প্রকাশ্যে মিডিয়ায় বলেছি। তুমি হয়ত জানো না, সেখানে আমি তোমাকে দায়ী করিনি। আমি আশা করেছিলাম এ ব্যাপারে তুমি তদন্ত কমিটি করে দোষীদের বিচার করবে। যাই হোক, আল্লাহ বিচার করবে। আমি তোমাকে কয়েকটি বিষয়ে কিছু কথা বলব। প্রথম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আমি আপার নির্দেশমত নির্বাচন করেছি। নির্বাচনের দিন আমার চোখের সামনেই যা ঘটার ঘটেছিল। তখন তত্বাবধায়ক সরকার ইস্যু ছিল। আমাকে বলা হয়েছিল তৈমূর বসে গেলে তোমাকেও সরে যেতে হবে, নির্বাচন ছেড়ে দিতে হবে। আমি কথা রেখেছিলাম। নির্বাচনের পরে একারণেই বলেছিলাম হেরেছি আমি, জিতেছেন শেখ হাসিনা। প্রমান করেছে সেনাবাহিনী ছাড়া সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে। এগুলো লিখেছি ওকে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় নির্বাচন নিয়ে আর বললাম না। তরপর বললাম আইভি তুমিও জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ভালবাসো। সামনে আমাদের কঠিন লড়াই। এটা ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য নয়, আমাদের অস্তিত্বের লড়াই। নির্বাচন পর্যন্ত বাঁচবো কীনা জানি না। করবো কীনা তাও জানি না। এখন একমাত্র চিন্তা দেশটাকে বাঁচানোর। আসো আমরা এক সাথে মাঠে নামি। জামাত বিএনপি ও তথাকথিত সুশিল, যারা দেশটাকে ধ্বংস করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলি। তাহলে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের পুরোনো ঐতিহ্য আবারো ফিরে আসবে। সবচেয়ে বড় কথা আপা অনেক খুশি হবেন। আমরা যদি একসাথে মাঠে নামি, তাহলে আমাদের দেখাদেখি সারা দেশে আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরিন সংকট নিরসন হবে।

এসময় শামীম ওসমান বলেন, আজকে আমাদের মধ্যে দ্বন্দ থাকতেই পারে। তবে কাকে দিবেন সেটা নেত্রী ঠিক করবেন। আমাদের পনেরো বছর ক্ষমতায় রেখেছেন একটি মহিলা। আমরা কী শুধু তার কাছে চেয়েই যাবো। আমাদের প্রমান করতে হবে আমরা একটা পরিবার। আল্লাহর কসম মাথায় কাফন বেঁধে নামবো। ওরা জনসভা করুক আপত্তি নেই। তবে ষড়যন্ত্র করতে দেব না। নারায়ণগঞ্জ তো কন্ট্রোল করবোই, যদি বেঁচে থাকি নারায়ণগঞ্জ একাই যথেষ্ট ওদের মোকাবিলা করার জন্য।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদলের সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ এমপি, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা জাহানারা বেগম ও কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য সাঈদ খোকন, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, বস্ত ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংস সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বাবু চন্দনশীল।

সভায় স্বাগতিক বক্তব্য রাখেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা।

এছাড়া নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের পাশাপাশি প্রতিটি উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডের নেতাকর্মী ও জনপ্রতিনিধিরা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

বর্ধিত সভায় মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর উপস্থিত তাকার কথা থাকলেও অজানা কারণে তিনি সেখানে আসেননি।

RSS
Follow by Email