বুধবার, মে ২২, ২০২৪
Led01জেলাজুড়েফতুল্লারাজনীতি

বঙ্গবন্ধুকন্যা না.গঞ্জের কথা চিন্তা করেছেন, এটা আমাদের গর্ব: শামীম ওসমান

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ‘সবাই মিলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন যে জননেত্রীর শেষ জনসভা হবে ঢাকায়। কিন্তু না আমাদের মা, আমার বোন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা সিদ্ধান্ত নিলেন, না শেষ জনসভা হবে নারায়ণগঞ্জের শামীমের এলাকায়। ঢাকায় ২২ টা সিট আছে, আর আমি নারায়ণগঞ্জে একলা। আমাকে জিঞ্জাস করা হলো, তুমি কি পারবা? আমি একটু খানি থতমত খেলাম, পরে আপনাদের কথা মনে আসছে। ‘

বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) বিকেল ৪ টায় এনায়েতনগর ইউনিয়নের হরিহরপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় এক উঠান বৈঠকে এসব কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী একেএম শামীম ওসমান।

তিনি বলেন, লক্ষ লক্ষ মানুষ নিয়ে সমাবেশ হবে। কবে? তা হবে ৪ জানুয়ারী দুপুর ২টায় মাসদাইরের একেএম শামসুজ্জোহা ক্রীড়া প্রাঙ্গনে। জননেত্রী আসবেন, জাতির উদ্দেশ্যে কথা বলবেন। আমাদের গর্ববোধ করা উচিত যে, বঙ্গবন্ধুকন্যা আমাদের নারায়ণগঞ্জের কথা চিন্তা করেছেন। যে নারায়ণগঞ্জকে বঙ্গবন্ধু বার বার দেখেছেন। এ নারায়ণগঞ্জ হলো আওয়ামী লীগের কর্মীদের নারায়ণগঞ্জ।

তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জে আল্লাহ‘র হুকুমে রাস্তাঘাট করা হচ্ছে, মেডিকেল কলেজ হচ্ছে, পলিটেকনিক্যাল হচ্ছে, আইটি ব্যাসড ইউনিভার্সিটি হচ্ছে। আমাদের আর ঢাকা যাওয়া লাগবে না। এই সকল কাজে ১০ থেকে ১৫ হাজার কোটি টাকা খরচ হবে। আরও একটি কাজ করার দরকার আছে বলে আমি মনে করি। আটাতে ৫ থেকে ৬ হাজার কোটি টাকা খরচ হবে। কিন্তু এতকিছু করার পর চোখে তো লজ্জা লাগে। এত কিছু পাবার পর চাইতে লজ্জা লাগে। তবে মার কাছে আবদার করার লাগে। যেদিন নেত্রী এখানে আসবে আর লক্ষ লক্ষ মানুষের ঢল হবে। নেত্রী ভাববেন যে, নারায়ণগঞ্জবাসী একাগ্রচিত্তে আমাকে কতটেই না ভালোবাসে। আমার বলতে লজ্জা লাগে। তখন আমাদের মধ্য থেকে একজন উঠে আসবে। আমি বলবো এই, চুপ থাকেন চুপ থাকেন। এমন নাটক করতে হয়। আমি বলবো আমাদের কোন দাবি নাই। ঠিক তখনই তার কানের কাছে গিয়ে আবদার করতে হবে, আপা আমাদের মেট্রোরেল হয়ে গেলে ভালো হয়। যদি ফতুল্লার মানুষরা গোরস্থান থেকে চাষাঢ়া পর্যন্ত ভিড় করে যে, মন্ত্রীর গাড়ি বের হতে পারছে না। তাইলে মনে রাখবেন, ৭ তারিখের পর প্রথম দিন দায়িত্বে আসলে যে সইটা দিবেন উনি, সেটা হবে মেট্রোরেলের জন্য।

উঠান বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ্ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম শওকত আলী, সিনিয়র সহ-সভাপতি এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, জেলা যুবলীগ নেতা এহসানুল হাসান নিপু, আওয়ামী লীগ নেতা মাসুদ ভূঁইয়াসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী নেতা-কর্মীরা।

RSS
Follow by Email