সোমবার, জুন ১৭, ২০২৪
Led04রাজনীতিসদর

নাচতে নেমে ঘোমটা দেওয়ার কোন অবকাশ নাই: চন্দনশীল

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বাবু চন্দন শীল বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্ব দিচ্ছে বাংলাদেশকে। নির্বাচনকে বানচাল করার জন্য দোশিয় ও বিদেশ থেকে অনেক ষড়যন্ত্র হচ্ছে। সেই স্বাধীনতা বিরোধী চক্ররা আমাদের স্বাধীনতা চায় না। নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের জন্মস্থান। দেশের কোথায় কি হবে না হবে জানি না, তবে এই নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগ অত্যন্ত বলিষ্ঠ ভুমিকা পালন করবে। যা আমরা দীর্ঘদিন যাবত শামীম ওসমানের নেতৃত্বে করে এসেছি।

রোববার (১০ ডিসেম্বর) বাদ মাগরিব পুরান কোর্ট এলাকায় অবস্থিত নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহার ব্যাক্তিগত কার্যালয়ে আয়োজিত এক দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

চন্দনশীল বলেন, আমি আশা করেছিলাম মহানগরের প্রেসিডেন্ট-সেক্রেটারি যৌথ ভাবে সকল ওয়ার্ডের নেতাকর্মীদের নিয়ে একটি বর্ধিত সভা করবে এবং একটা সিদ্ধান্ত নিবে। তবে এমনটা হয়নি। গত নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৫ থেকে সেলিম ওসমানকে প্রার্থী করা হয়েছিলো। অংকটা তো পরিস্কার। এবার এই আসনে ডজনখানেক হেভিওয়েট প্রার্থী আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলো। তবে সারা দেশের মধ্যে এই নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনটিতে কাউকে মনোনয়ন দেয়া হলো না। এখানে প্রার্থী না দিয়ে প্রধানমন্ত্রী কি বুঝাতে চেয়েছেন এটা বুঝার জন্য পিএচডি করার দরকার নেই। নাচতে নেমে ঘোমটা দেওয়ার কোন অবকাশ নাই।

তিনি বলেন, মহানগরের আওতায় নারায়ণগঞ্জ-৪ ও ৫ আসন পরেছে। সিদ্ধান্ত ক্লিয়ার? নারায়ণগঞ্জ-৪ এ শামীম ওসমানের জন্য সিদ্ধিরগঞ্জের ১০টি ওয়ার্ডের নেতারা ঝাপিয়ে পরবে, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিম ওসমানের জন্য আমাদের ঝাঁপিয়ে পরতে হবে। নির্বাচন একটি কৌশল। এটাতে চাপাবাজি করলে হবে না। নির্বাচনটাকে বন্ধ করতে চাচ্ছে ওই খুনি তারেক জিয়ার দল। আমাদের উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে তারা ব্যহত করতে চায়।

তিনি আরও বলেন, রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত রাজনৈতিক কার্যালয়ে হবে। আমাদের রাজনৈকি কার্যালয় বন্ধ করে রাখা যাবে না। যারা তালা মেরে বন্ধ করে রাখে, তারা আওয়ামী লীগের শত্রু। তাদের ওই অফিসে আসার কোন দরকার নাই। আগামীকাল থেকে আমরা ওই আমাদের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বসবো। আমরা সেখানে বসে আমাদের কাজ করবো। যাতে করে আমরা আমাদের প্রার্থীকে বিজয়ী করতে পারি। আমরা মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে শেখ হাসিনার জন্য ভোট চাইবো। আমাদের প্রার্থীর জন্য ভোট চাইবো। আমরা বিপুল ভোটে সেলিম ভাই ও শামীম ওসমানকে জয়ী করবো।

এসময় মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জিএম আরমানের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এড. খোকন সাহা। আরও উপস্থিত ছিলেন- মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি রবিউল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, এড. মাহমুদা মালা, দপ্তর সম্পাদক বিদ্যুৎ কুমার সাহা, আইন বিষয়ক সম্পাদক এড. ওয়াজেদ আলি খোকন, বাংলাদেশ হোসিয়ারী এসোসিয়েশনের সভাপতি নাজমুল আলম সজল, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন ভুইয়া সাজনু, আওয়ামী লীগ নেতা আনিস আহাম্মেদ হেনা, ১২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি নিয়াজুল ইসলাম, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এহসানুল হাসান নিপু, শাফায়েত আলম সানি, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি জুয়েল হোসেন, ১৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা এস এম পারভেজ, মহানগর তাঁতী লীগের আহ্বায়ক চৌধুরী এইচএম শাহেদসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

RSS
Follow by Email