শনিবার, মে ২৫, ২০২৪
Led04জেলাজুড়েবিশেষ প্রতিবেদনসদর

নগরীতে তরমুজ কেনাবেচার হিড়িক

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: শুরু হয়েছে পবিত্র মাস, রমজান। সারা দিন সিয়াম সাধনার পর মাগরিবের আজানের সাথে ইফতার করবেন মুসুল্লিরা। ভাজা-পোড়াসহ নানা রকমের ফল-ফলাদি থাকবে ইফতারের আইটেমে। কিন্তু রোজাদারের পানির তৃষ্ণা মেটাতে ও অন্তরে প্রশান্তি যোগাতে তরমুজই যথেষ্ঠ। ঠান্ডা শরবত কিংবা এক ফালি নিয়ে কামড় দিতেই প্রাণের সতেজতা ফিরে আসবে। আর সেই কারণেই নগরীতে তরমুজ কেনাবেচার হিড়িক পড়েছে। বিক্রেতারা বাড়তি দাম হাকলেও সেই দামেই তরমুজ কিনছেন ক্রেতারা। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত নগরীর ফলপট্টি, কালির বাজার, চাষাঢ়া, ২ নং রেলগেট এলাকায় বিভিন্ন ফলের দোকানে গিয়ে এমন চিত্র দেখা যায়।

তরমুজ আকার ভেদে ছোট ও বড় এই দুই প্রকারে বিক্রি করছেন বিক্রেতারা। ছোট তরমুজ প্রতি পিছ বিক্রি হচ্ছে ৪০০-৫৫০ টাকায়। বড় তরমুজ বিক্রি হচ্ছে ৬০০-৭০০ টাকায়। বিক্রেতারা তরমুজের দাম বেশি চাচ্ছে বলছেন ক্রেতারা। তরমুজ বিক্রেতারা বলছেন, পাইকারদের থেকে বেশি দামে তরমুজ কিনতে হয়েছে। তাই সংসারের খরচ টানতে বিক্রির সময় দাম কিছুটা বাড়াতে হচ্ছে।

তরমুজ কিনতে আসা আল নাহিয়ান বলেন, আজ প্রথম রোজা। বাসার ছোট্ট সোনামণিরা রোজা রেখেছে। তাদের আবদার করেছে ইফতারে তরমুজের শরবত রাখতে। তাই বড় সাইজের তরমুজ নিয়ে যাচ্ছি। বিক্রেতারা বেশি দাম চাচ্ছেন, সোনামণিদের পছন্দের ফলের জুস খাবে বলে সেই দামেই নিয়েছি।

ব্যবসায়ী সফি মিয়া বলেন, তরমুজ খুবই স্বাস্থ্যকর একটি ফল। ইফতারে ভাজা-পোড়া তেমন একটা খাওয়া হয় না। ফলই বেশি খাওয়া হয়ে থাকে। এর মধ্যে তরমুজ অন্যতম। আজকে প্রথম রমজানের ইফতারের জন্য ছোট আকারের ২ টা তরমুজ নিয়েছি।

RSS
Follow by Email