বৃহস্পতিবার, মে ৩০, ২০২৪
Led02জেলাজুড়েবন্দররাজনীতি

১০২টি সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান’র যৌথবিবৃতি ‘মাওলানা নামধারিরা জঙ্গি চরিত্র জাহির করে’

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের শেখ রাসেল পার্ক ও নারায়ণগঞ্জ চারুকলা ইনস্টিটিউটকে কেন্দ্রকরে ধর্মীয় লেবাসধারী কতিপয় উগ্র-সাম্প্রদায়িক ব্যক্তিবর্গের অকথ্য ও উস্কানীমূলক উগ্র-বক্তব্যের প্রতিবাদে, নারায়ণগঞ্জ জেলার ১০২টি সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান এক যৌথবিবৃতি দিয়েছে।

শুক্রবার (২৭ এপ্রিল) সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক, পেশাজীবী, ছাত্র-যুব সংগঠন ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সাক্ষরিত ওই বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।

বিবৃতিতে বলাহয়, সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের শেখ রাসেল পার্ককে কেন্দ্র করে শহরের চিহ্নিত কিছু উগ্র সাম্প্রদায়িকগোষ্ঠী অত্যন্ত বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। এর আগেও বহুবার তারা বিভিন্ন ইসু তৈরি করে নগরে অস্বাভাবিক পরিস্খিতি সৃষ্টি করে শান্তি-শৃঙ্খলা বিঘ্নিত করার পায়তারা করেছে। ধর্মীয় পরিচয় নিয়ে মাওলানা নামধারি এইসব ব্যক্তি মূলত অকথ্য ভাবে তাদের জঙ্গি চরিত্রকে জাহির করে চলেছে। তারা যে কাউকে হাত ভেঙ্গে দেয়া, পা ভেঙ্গে দেয়া, লাশ ফেলে দেয়ার হুমকী দেয়। গত ১৯ এপ্রিল তারা সংবাদ সম্মেলন করে অত্যন্ত আপত্তিকর, হিংসাত্মক, আগ্রাসী ও উগ্র বক্তব্যের মধ্যদিয়ে শহরে অস্বাভাবিক পরিস্থিতি তৈরির পায়তারা করেছে। তারা নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়রকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্ল করে প্রায়সই আক্রমনাত্বক বক্তব্য দিয়ে যায়, রাসেল পার্ককে ‘মিনি পতিতালয়’ আখ্যা দেয়, সেখানে অবস্থিত চারুকলা ইনস্টিটিউটকে (আর্ট কলেজ) উড়িয়ে দেয়ার হুমকী দেয়। আমরা এই উগ্রবাদী ব্যক্তিদের এহেন দুষ্কর্মের তীব্র নিন্দা জানাই। আমরা মনে করি এরা দেশ, জাতি, স্বাধীনতা ও সংস্কৃতির শত্রু। শহরের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সাভাবিক রাখার প্রয়োজনে আমরা মাওলানা নামধারি আবদুল আউয়াল ও ফেরদাউসের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের নিকট দাবি জানাচ্ছি।

বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারী সংগঠনসমূহের মধ্যে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ সাস্কৃতিক জোট, নারায়ণগঞ্জ চারুকলা ইনস্টিটিউট (আর্ট কলেজ), সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চ, সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) জেলা কমিটি, খেলাঘর জেলা কমিটি, উদীচী জেলা কমিটি, কমিউনিস্ট পার্টি জেলা কমিটি, বাসদ জেলা কমিটি, ওয়ার্কার্স পার্টি জেলা কমিটি, ন্যাপ জেলা কমিটি, গণসংহতি আন্দোলন জেলা কমিটি, তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি নারায়ণগঞ্জ জেলা, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন জেলা কমিটি, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র জেলা কমিটি, জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন জেলা কমিটি, শ্রমিক ফ্রন্ট জেলা কমিটি, মহিলা পরিষদ জেলা কমিটি, মহিলা ফোরাম জেলা কমিটি, যুবলীগ মহানগর কমিটি, যুব ইউনিয়ন জেলা কমিটি, ছাত্র ইউনিয়ন জেলা কমিটি, ছাত্রফ্রন্ট জেলা কমিটি, ছাত্র ফেডারেশন জেলা কমিটি, বঙ্গসাথী ক্লাব, জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ জেলা কমিটি, প্রগতী লেখক সংঘ, প্রগতী সাহিত্য পরিষদ, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র জেলা কমিটি, শ্রæতি সাংস্কৃতিক একাডেমি, সমগীত সংস্কৃতি প্রাঙ্গণ, উন্মেষ সাংস্কৃতিক সংসদ, ধাবমান সাহিত্য আন্দোলন, সুবর্ণগ্রাম সংস্কৃতি অঙ্গন, সমমনা, আনন্দধারা, শহুরে গায়েন, বসন্তবাহার সংগীত একাডেমি, অনন্যা সংগীত একাডেমি, অশোক স্মৃতি সংগীতাঙ্গণ, কথন আবৃত্তি সংসদ, কণ্ঠকালা আবৃত্তি সংসদ, ষড়জ সাংস্কৃতিক প্রাঙ্গণ, চন্দ্রবিন্দু শিশু মনন বিকাশ কেন্দ্র, মাইম ফেইস, এই বাংলায়, গঙ্গাফড়িং, নারায়ণগঞ্জ হাওয়াইয়ান গীটার পরিষদ, উঠান থিয়েটার, ক্রান্তি খেলাঘর, একতা খেলাঘর, ঝিলিমিলি খেলাঘর, অগ্নিবন্যা খেলাঘর, অর্চনা একাডেমি, সুপ্রিয়া একাডেমি, ইকরা ইত্যাদি।

RSS
Follow by Email