সোমবার, মে ২০, ২০২৪
Led02জেলাজুড়েরাজনীতিসদরসোশ্যাল মিডিয়া

‘হলিডে মার্কেটে’ চাঁদরাত পর্যন্ত প্রতিদিন বসতে চায় হকাররা

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ডিসিপ্লিন মেনে নগরীর নবাব সলিমুল্লাহ সড়কের একপাশের সড়ক বন্ধ করে সপ্তাহে দুদিন ‘হলিডে মার্কেট’ তথা হকারদের বসতে দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ ও ৫ এর সংসদ সদস্য, মেয়র, এসপি, ডিসি। এছাড়া সপ্তাহব্যাপী নির্দিষ্ট ৯০০ হকার এ সড়কের দুপাশে বসবেন। তবে এই সিদ্ধান্ত সাথে যুক্ত করে হকাররা নতুন দাবি জানিয়েছেন।

সপ্তাহে দুদিন নয়, ঈদুল ফিতরের চাঁদরাত পর্যন্ত নবাব সলিমুল্লাহ সড়কের একপাশে বসতে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন হকার নেতৃবৃন্দ। শনিবার (১৬ মার্চ) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ মাধবী প্লাজায় এক সংবাদ সম্মেলন করে ওই দাবি জানায়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা হকার্স সংগ্ৰাম পরিষদের আহ্বায়ক হকারনেতা আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, দীর্ঘদিন যাবত হকাদের রাস্তায় বসা নিয়ে সমস্যা ভুগছিলাম। আমরা এ নিয়ে মাননীয় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান মহোদয়ের সাথে একাধিক মিটিং করেছিলাম। এরপর তিনি আমাদের ‘হলিডে মার্কেট’ ন্যায় নবাব সলিমুল্লাহ সড়কের একপাশে দুদিনের জন্য বসতে দিয়েছে। কিন্তু এই দুইদিন পর আমরা হকার নিয়ে কোথায় যাবো এ নিয়ে চিন্তিত আছি। তাই আমরা মাননীয় নারায়ণগঞ্জ-৪ ও ৫ এর সংসদ সদস্য, মেয়র, এসপি, ডিসি মহোদয়ের কাছে অনুরোধ করবো, যাতে করে আগামী চাঁদরাত পর্যন্ত আমাদের বসতে দেয় নবাব সলিমুল্লাহ সড়কে। আমরা কথা দিলাম আমরা ভলেন্টিয়ার রেখে এই সড়ক পরিষ্কার পরিছন্ন রাখবো। তাই আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী, এমপি, মেয়র ও প্রশাসনসেহ সকলের সহযোগীতা কামনা করছি।

বঙ্গবন্ধু সড়কে এখনো কিছু হকার বসছে, তাদের কি সেখান থেকে সরিয়ে নিয়ে আসবেন কিনা? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে হকারনেতা আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান সাহেব যদি আমাদের সহযোগীতা চলমান রাখেন তাহলে আমরা সমস্ত হকারদের এখানে নিয়ে আসবো। কিছুদিন আগে মারামারি হয়েছিলো, তাই অনেক হকার ভয়ে আসতেছে না। আমরা তাদের ভরসা দেই, তাদের জান মালের কোন ক্ষতি হবে না। আমরা সর্ম্পূণ নিরাপত্তা দিবো। এই আশ্বাস আমরা উনাদের এই জায়গায় নিয়ে আসবো।

মহানগর হকার্স লীগের সভাপতি আ. রহিম মুন্সী বলেন, এমপি সেলিম ওসমান সাহেবের সাথে আমরা একাধিকবার মিটিং করেছি। অবশেষে তিনি আমাদের নবাব সলিমুল্লাহ সড়ক দিয়েছেন বসার জন্য। আমরা মনে করি এমপি সেলিম ওসমান, এমপি শামীম ওসমান, মেয়র মহোদয়, জেলা প্রশাসক ও এসপি মহোদয় আমাদের অভিভাবক। তাঁরা যদি চায় আমাদের জন্য অনেককিছুই করতে পারে। আপনাদের প্রতি আমাদের দাবি থাকবে আপনারা দয়া করে আমাদের চাঁদরাত পর্যন্ত এই নবাব সলিমুল্লাহ সড়কের একপাশে বসার সুযোগ দিবেন।

RSS
Follow by Email