বৃহস্পতিবার, জুন ১৩, ২০২৪
Dis_leadLed04জেলাজুড়েরাজনীতিসদর

হকারদের নতুন দাবি সম্পর্কে সেলিম ওসমান যা বললেন

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ ৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান বলেছেন, আমি এখন অসুস্থ, দেশের বাহিরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছি। আল্লাহ আমারে বাঁচিয়ে দেশে ফিরিয়ে আনলে আমি সেখানে সরজমিনে দেখে- জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশনর সাথে আলোচনা সাপেক্ষে চেষ্টা করবো ২৯ তারিখ থেকে চাঁদ রাত পর্যন্ত ওদের দাবি বাস্তবায়ন করার।

শনিবার ( ১৬ মার্চ) রাতে হকারদের দাবি প্রসঙ্গে লাইভ নারায়ণগঞ্জের এক প্রশ্নের জবাবে মুঠোফোন এ কথা বলেন সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান।

এর আগে শনিবার সন্ধ্যায় হকার নেতারা এক সাংবাদিক সম্মেলনে হলিডে মার্কেটের মত প্রতিদিনই নবাব সলিমুল্লো রোডে ঈদের চাঁদ রাত পর্যন্ত বসার বসার দাবি জানিয়েছেন ডিসি, এসপি, মেয়র ও এমপি বরাবর।

হকারদের নতুন এ দাবি প্রসঙ্গে সংসদ সদস্য বলেন, রবিবার ১৭ই মার্চ যেহেতু বন্ধ আছে, ওরা আরেকটি হলিডে মার্কেট পাচ্ছে। এরপর আবার যেহেতু ২৯ তারিখ ওরা আরো একটা হলিডে মার্কেট পাচ্ছে সেইদিন থেকে চাঁদ রাত পর্যন্ত আমি চেষ্টা করব। কিন্তু পুলিশের সাথে আমার কথা বলতে হবে, কারণ এখানে নিরাপত্তার কিছু বিষয় আছে। হকারদের সাথেও কথা বলে দেখতে হবে। আমাকে জেলা প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশনের সাথেও আলাপ করতে হবে।

সেলিম ওসমান বলেন, হকারদের দাবি আমি শুনেছি। কিছুদিন আগেই ওদের একটা সিস্টেম করে এই সড়কে রাখা হয়েছে, এখন সেটা হঠাৎ করে বন্ধ করে দিলে একটা অরাজকতা সৃষ্টি হতে পারে। ওরা এখন আপাতত সড়কের দুপাশে থাকুক। আর শুধু হকারদের দাবি না, ২৯ তারিখের পর থেকে শ্রমিকরাও বেতন পাবে। শ্রমিক ও নিম্ন বিত্ত খেটে খাওয়া মানুষদের‌ও কেনাকাটার জন্য এ হকারদের প্রয়োজন আছে। আমার কাছে শুধু হকারদের দাবি নয়, শ্রমিক শ্রেণীদেরও দাবি আছে তারা যাতে কেনাকাটা করতে পারে সেই ব্যবস্থা করে দেওয়ার। যেহেতু আমি দেশের বাইরে, ইনশাল্লাহ সুস্থ হয়ে ফিরি, সকলের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে, একটা ব্যবস্থা করা হবে। সেই পর্যন্ত জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতা অত্যন্ত প্রয়োজন, একই সাথে হকাররাও ধৈর্য ধারণ করবেন। এটাই আমি সকলের কাছে অনুরোধ করি। আমি প্রত্যাশা করি, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, মেয়র ও এমপিদের সকলের প্রচেষ্টায় সুন্দর নগর ব্যবস্থা গড়ে তোলা যাবে।

প্রসঙ্গত, শনিবার (১৬ মার্চ) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ মাধবী প্লাজায় এক সংবাদ সম্মেলন করে হকাররা। সপ্তাহে দুদিন নয়, ঈদুল ফিতরের চাঁদরাত পর্যন্ত নবাব সলিমুল্লাহ সড়কের একপাশে বসতে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা। এর আগে,ডিসিপ্লিন মেনে নগরীর নবাব সলিমুল্লাহ সড়কের একপাশের সড়ক বন্ধ করে সপ্তাহে দুদিন ‘হলিডে মার্কেট’ তথা হকারদের বসতে দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ ও ৫ এর সংসদ সদস্য, মেয়র, এসপি, ডিসি। এছাড়া সপ্তাহব্যাপী নির্দিষ্ট ৯০০ হকার এ সড়কের দুপাশে বসবেন। তবে এই সিদ্ধান্ত সাথে যুক্ত করে হকাররা নতুন এই দাবি জানিয়েছেন

RSS
Follow by Email