বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০২৪
Led05সোনারগাঁ

সোনারগাঁয়ে শিশু সন্তানকে হত্যার দায়ে পিতা গ্রেফতার

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সোনারগাঁয়ের কাঁচপুরে ২ মাস বয়সী শিশু সন্তানকে হত্যাকারী ঘাতক পিতা মোঃ হৃদয়কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রোববার বিকেলে র‌্যাব-১১ এর মিডিয়া অফিসার এএসপি সনদ বড়ুয়া এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এর আগে, ২৮ অক্টোবর সিলেটের জালালাবাদ থানাধীন আখালিয়া ভার্সিটি গেইটস্থ মেজু ভ্যারাইটিজ স্টোর এর সামনে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে মোঃ হৃদয়কে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত হৃদয় (২০) ভোলা জেলার চরফ্যাশন থানাধীন লডারিন্স বাজার এলাকার মোঃ বাবুল ওরফে মিলনের পুত্র।

র‌্যাব জানান, গত ২৬ অক্টোবর মোঃ হৃদয় ও তার স্ত্রী নাদিয়া আক্তারের মধ্যে পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়। পরবর্তীতে নাদিয়া আক্তার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কাঁচপুর বাজারে তাদের ২ মাসের শিশু সন্তান আয়েশা সিদ্দিকার জন্য দুধ কিনতে যান। বাসায় ফিরে দেখেন শিশু কন্যা আয়েশা সিদ্দিকা আর বেঁচে নেই। তার কান্নাকাটির আওয়াজ পেয়ে বাড়ির আশেপাশের লোকজন এসে দেখতে পায় শিশুটির নিথর দেহ ঘরের মেঝেতে পড়ে আছে।

নিহতের মা নাদিয়া আক্তার জানান, ২ মাস পূর্বে তাদের সংসারে কন্যা সন্তান জম্ম হওয়ায় সেটা তার স্বামী মেনে নিতে পারেনি। তাই কন্যা সন্তানটিকে জম্মের পর থেকেই মেরে ফেলার জন্য কয়েকবার চেষ্টা করেছিল। একসময় তার স্বামী মোঃ হৃদয় সিনহা গার্মেন্টসে কাজ করতো। তবে গার্মেন্টসটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সে দিন মজুরের কাজ করে তাদের সংসার চলাতো। ধীরে ধীরে তার স্বামী মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন। তাছাড়া প্রায় সময় তাদের মাঝে পারিবারিক কলহ লেগেই থাকতো। ২৬ অক্টোবর সকালে মেয়ের খাবার নিয়ে তাদের মধ্যে বাগবিতন্ডা হয়।

সে তার ২ মাস বয়সী মেয়ে কন্যা সন্তানকে সকালে গোসল করিয়ে ঘুম পাড়িয়ে কাঁচপুর বাজারে দুধ কিনতে যায়। এক পর্যায়ে ঘুম থেকে জেগে কন্যা সন্তানটি কান্না করায় তার বাবা মোঃ হৃদয় শিশুটির মুখ চেপে ধরে হত্যা করেছে বলে জানা যায়।

উক্ত ঘটনায় নাদিয়া আক্তার বাদী হয়ে সোনারগাঁও থানায় একটি নিয়মিত হত্যা মামলা রুজু করেন। ঘটনার পর হতে উক্ত আসামী পলাতক ছিল। গ্রেফতারকৃত আসামী’কে পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রমের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

RSS
Follow by Email