বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০২৪
Led01অর্থনীতিবিশেষ প্রতিবেদনরাজনীতিসদর

সেলিম ওসমানের উদ্বেগ, হলিডে মার্কেটের পর‌ও বঙ্গবন্ধু সড়কে হকার

# হকারদের জন্য অনেক বড়-বড় পরিকল্পনা করেছিলাম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে বিষফোঁড়া হলো ফুটপাতে হকার ও নগরীর তীব্র যানজট। তিনটি থানা, দুটি সংসদীয় আসন ও সিটি কর্পোরেশনের সমন্বয়ে গঠিত মূল শহর। নাগরিক ও সামাজিক সমস্যা সমাধান করতে এক টেবিলে বসেছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভিসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা। তাদের একত্রিত হওয়ায় নগরী যেনো আশীর্বাদপূর্ণ হয়ে গেছে। অনেকেই প্রথমবার দেখেছে যুগ পর যুগ দখল করা ফুটপাতের নতুন চেহারা। একই রকম ভাবে পবিত্র রমজান মাসে নগরীর মানুষের অসুবিধা এড়াতে, দানবীর খ্যাত এমপি সেলিম ওসমান তত্ত্বাবধায়নে যানজটমুক্ত রাখতে, পুলিশ সুপারের কাছে ৪৫লাখ টাকার চেক হস্তান্তর করা হয়েছে।

মেয়র, দুই এমপি ও প্রশাসন যানজট মুক্ত ও ফুটপাত মুক্ত নগরীতে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেও, বিপাকে পরে হকাররা। নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, প্রেসক্লাবের সামনে ও নগর ভবনসহ এসএসপি পরীক্ষা চলাকালেও বঙ্গবন্ধু সড়ক অবোরোধ করে আন্দোলন করে তারা। আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে মেয়র,এমপি ও প্রশাসন একসাথে আলোচনা করে মানবিক বিবেচনায় হকারদের জন্য ‘হলিডে মার্কেট’র সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

হকারদের পরিবারের কথা বিবেচনা করে ও সাধারণ মানুষের বেচা-কেনার সুবিধার্থে সপ্তাহের দুইদিন শুক্র ও শনিবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত, চাষাঢ়া খাজা মার্কেটের সামনে থেকে শুরু করে মিশনপাড়া, ডনচেম্বার ও মেট্রো হল সড়কের একপাশে ‘হলিডে মার্কেটে’র কার্যক্রম চলমান থাকবে। যাতে করে কোন ভাবে বঙ্গবন্ধু সড়কের ফুটপাত দখল না থাকে।

দীর্ঘ দিনের অভিশপ্ত পথের কাঁটা হকার মুক্ত হলেও কিছু কিছু জায়গায় হকার প্রশাসনের মধ্যে ‘চোর পুলিশ’র খেলা চলছে। তবে বেশ কয়েকদিন যাবত নগরীর বঙ্গবন্ধু সড়কে ডিআইটি, ২ নাম্বার গেটসহ প্রধান প্রধান সড়ক গুলোতে ফের বসতে শুরু করেছে হকার। দিনের বেলা টুকটুক দেখা মিললেও সন্ধ্যা থেকে রাত অব্দি প্রায় অধিকাংশ সড়ক থাকে হকারদের দখলে। শুক্র-শনি হলিডে মার্কেট থাকলেও বঙ্গবন্ধু সড়কেও থাকে হকারের জমজমাট ব্যবসা।

এদিকে হকারদের সাথে আলোচনা করে তাদের জন্য ‘হলিডে মাকের্ট’র ব্যবস্থা করলেও বঙ্গবন্ধু সড়ক দখল করায়, মনক্ষুন্ন হয়েছে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম সেলিম ওসমান। হকারদের নিয়ে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা করলেও তাদের এমন আচরণে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তিনি। এতোকিছুর পরও হকাররা মর্মাহত করেছেন এমপি সেলিম ওসমানকে।

কিডনী সংক্রন্ত জটিলতার কারণে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে। চিকিৎসা শেষে সরাসরি ওমরাহ হজ্জ পালনের রওনা হয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান ।

হকাদের এমন আচরণে উদ্বেগ প্রকাশ করে মুঠোফোনে সেলিম ওসমান জানান, যে হলিডে মার্কেট করা হলো, সবার সাথে আলাপ-আলোচনা করা হলো এবং আলোচনা করার পর একটা সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি করা হলো৷ বারবার মিটিং করলাম। এরপরেও যদি এই বঙ্গবন্ধু সড়ক এবং ডিআইটিতে ২ নাম্বার গেট থেকে হকাররা যদি বসেই। তাহলে এসব করার কি আছে? হকারদের জন্য অনেক বড়-বড় পরিকল্পনা করেছিলাম এবং সেগুলির অবস্থা কি হবে? আমার এখন কি করার আছে?

RSS
Follow by Email