মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
Led05নারী ও শিশুসিদ্ধিরগঞ্জ

সিদ্ধিরগঞ্জে শিশু গৃহকর্মীকে ধষর্ণের অভিযোগ, আটক ১

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সিদ্ধিরগঞ্জে এক গৃহকর্মী শিশু (১০)কে ধর্ষণের অভিযোগে স্থানীয় চায়ের দোতানদারকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার (১৯ জুলাই) সকালে সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি বৃষ্টিধারা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তথ্যটি নিশ্চিত করেছে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ইন্সপেক্টর (অফিসার ইনচার্জ) গোলাম মোস্তফা।

গ্রেপ্তারকৃতর নাম ইউনুস (৪০)। সে জালকুড়ি বৃষ্টিধারা এলাকার বাদিন্দা ও স্থানীয় একটি চায়ের দোকানদার।

মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, বাদীর মেয়ে জালকুড়ি বৃষ্টিধারা এলাকার ১১৯ নম্বর ছায়ানীড় নামক বাড়ীর মালিক মৃত ইদন মিয়ার স্ত্রী বিধবা শাহানা আক্তার নিলুর (৬০) বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করে। বাড়ীর পাশের চা দোকানদার ইউনুস ভিকটিমকে ভুল বুঝিয়ে পানির সাথে চেতনা নাশক ঔষধ মিশিয়ে বিধবা নিলুকে খাওয়াত। পরে তিনি ঘুমিয়ে পরলে সুযোগ বুঝে ঘরে প্রবেশ করে ভিকটিমকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করত। সর্বশেষ গত ১৫ জুলাই রাতে ধর্ষণ করে ঘর থেকে বেড়িয়ে আসলেও দরজা লাগাতে ভুলে যায় ভোর ৫ টায় নিলুর ঘুম ভাঙলে তিনি ডাইনিং রুমে এসে দেখেন ঘরের প্রবেশ দরজা খোলা। তখন তিনি ভিকটিমকে দরজা খোলা থাকার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে ভিকটিম সবকিছু খুলে বলেন। শুধু এটাই প্রথম নয় এর আগে আরো কমপক্ষে ১৫ দিন ইউনুস রাতে ঘরে প্রবেশ করে দক্ষিন পাশের খালি রুমে নিয়ে বিভিন্ন ভয় দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করেছে।

এদিকে, ঘটনা জানার পর বিধবা নিলু মোবাইল ফোনে ভিকটিমের মাকে দ্রুত তার বাড়ীতে আসতে বলেন। কিন্তু বাদী গাজীপুর জেলায় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করায় ছুটি নিতে দুদিন দেরি হয়। তাই তিনি ১৮ জুলাই বিকেলে এসে নিলুর কাছ থেকে সব কথা শোনেন। মেয়েও ঘটনার সত্যতা স্বীকার করলে বিকেলেই থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ করলে পুলিশ মামলা রুজু করেন।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ইন্সপেক্টর (অফিসার ইনচার্জ) গোলাম মোস্তফা বলেন, পানির সঙ্গে চেতনা নাশক ঔষধ পান করিয়ে বাড়ির মালিক বিধবাকে ঘুম পাড়িয়ে ১০ বছরের কাজের মেয়েকে ধর্ষণ করত চা দোকানদার ইউনুস। এ ঘটনায় ভিকটিমের মা এর করা ধর্ষণ মামলায় ইউনুসকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাকে ইতোমধ্যে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। ডাক্তারি পরিক্ষার জন্য ভিকটিমকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

RSS
Follow by Email