রবিবার, জুন ২৩, ২০২৪
Led04জেলাজুড়েরাজনীতিসদর

শেখ হাসিনাকে হারিয়ে পরবর্তী প্রজন্ম আফসোস করবে: শামীম ওসমান

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেন, আজ বঙ্গবন্ধুকে হারিয়ে আমরা আফসোস করি একদিন শেখ হাসিনাকে হারিয়ে আমার বাচ্চারা বা পরবর্তী প্রজন্ম আফসোস করবে। শেখ হাসিনার এখন দলের নয় সে দেশের সম্পদ।

রবিবার (২১ জানুয়ারি) সন্ধায় জেলার সাংবাদিক ইউনিয়নে (এনইউজে) কার্যালয়ে বাংলাদেশ কল্যান ট্রাষ্ট থেকে প্রাপ্ত অনুদানের চেক বিতরন অনুষ্ঠানে এই কথা বলেন তিনি।

এসময় তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের এমন কোন জায়গা নেই যেখানে মাদক নেই। এই মাদকের সাথে সংযুক্ত আছে রাজনীতিবিদ আর প্রশাসন। যে সাংবাদিকরা এই মাদকের সাথে আছেন আমি গ্যারান্টি দিচ্ছে তারা একজন আসলে সাংবাদিক না । সাংবাদিকতার নামে ভাবে বিভিন্ন ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছে। ভুল নিউজ করছে। এই ধরনের সাংবাদিকতা বন্ধ করা উচিত। মাদক সন্ত্রাস চাঁদাবাজি বন্ধের লক্ষ্যে আমরা যে প্রত্যাশা সংগঠনটি গড়ে তুলছে সেই সংগঠনটা রাজনৈতিক সংগঠন না। আমার বিশ্বাসের এই সংগঠনটি সফলভাবে কাজ করবে। মাদকের সংখ্যা দিন দিন বাড়ার কারনের ডিভোর্সের সংখ্যা খুব বাড়ছে । আগে মেয়েরা ছেলেদের ডিভোর্স দিতো এখন ছেলেরা মেয়েদের ডিভোর্স দিচ্ছে।

এমপি শামীম ওসমান বলেন, শেখ হাসিনা মানে এক উন্নতির নাম শেখ হাসিনা মানে এক মানবতার নাম। শেখ হাসিনা মানে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানো শেখানো নাম। শেখ হাসিনা মানে বিশ্বকে বৃদ্ধা আঙ্গুল দেখিয়ে বলবে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। মৃত্যুকে ভয় না করার নাম হচ্ছে শেখ হাসিনা। পিতা-মাতা ভাই বোন সব হাড়িয়ে মানুষের বুকে নিজের পরিবারকে খুঁজে পাওয়ার নাম হচ্ছে শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনা শুধু সাংবাদিকদের জন্য নয় সকল শ্রেণীর মানুষের জন্যই কোনো না কোনো উন্নয়নের দিক নিদর্শন হয়ে গেছেন। এমন বাংলাদেশের মানুষ নেই যে কোন না কোন ভাবে শেখ হাসিনা থেকে উপকৃত হয়নি। করোনার সময় নারায়ণগঞ্জ এর মত বড় একটা শহরকে সামাল দেয়াটা খুব বড় বিষয় ছিল। আমি হসপিটালে এক একজন রোগী ভর্তি করেছি আর নফল নামাজ পড়েছি। মানুষের ঘরে খাবার পৌঁছে দেয়াসহ বিভিন্ন ধরনের সহযোগিতা আমরা করেছি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পর আমরা এমন নেতৃত্বে কাউকে পাইনি। আজ বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে আরো ২০ বছর আগে বাংলাদেশে জাপান বা সিঙ্গাপুরের মতো উন্নত হয়ে যেত।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, বিশেষ অতিথি বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ওমর ফারুক, প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ড. রুমন রেজা, হাবিবুর রহমান বাদল, সভাপতি আরিফ আলম দীপু, সহ-সভাপতি বিল্লাল হোসেন রবিন, জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুস সালাম, সাধারণ সম্পাদক আমীর হোসেন স্মিথ, সিনিয়র সাংবাদিক দীলিপ কুমার মন্ডল, প্রনব কৃষ্ণ রায়সহ সাংবাদিকবৃন্দ।

RSS
Follow by Email