রবিবার, জুন ১৬, ২০২৪
জেলাজুড়েসদর

র‌্যাবের অভিযানে ‘কিশোর গ্যাং লিডার’সহ আটক ৫

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: জেলার সদরে বিশেষ অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাং চক্রের লীডারসহ ৫ জনকে আটক করেছে র‌্যাব-১১। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৩ টি সুইচ গিয়ার, ১ টি নাকোল ডাস্টার, ১ টি লোহার পাইপ উদ্ধার করা হয়।

বুধবার (২২ নভেম্বর) প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানান র‌্যাব-১১, সিপিসি-১ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক কাজী শাহাবুদ্দিন আহমেদ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সোমবার (২১ নভেম্বর) গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলার সদর থানার নিমতলা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব। এসময় ৫ জনকে আটক করা হয়। আটককৃত কিশোর গ্যাং লীডারের নাম মোঃ আলতাফ হোসেন হৃদয় (২২)। নতুন জিমখানার বাসিন্দা সে (রশিদ ড্রাইভারের বাড়ির ভাড়াটিয়া)। পিতা- মো. রহিম, মাতা- মোছা. বকুল বেগম। আটককৃত অপর ৪ জন হলেন, ১।মোঃ রিফাত মিয়া (২২), জল্লারপাড়ার আসাদ নগরের বাসিন্দা। পিতা- মোঃ বিষু মিয়া, মাতা- মোছাঃ শিখা বেগম। ২। মোঃ ফয়সাল (২১), নতুন জিমখানার বাসিন্দা। পিতা-মোঃ মোকলেছ, মাতা- মোছাঃ সীমা বেগম। ৩।মোঃ সানি (২৪), বাবুরাইল জোড়াপোলের বাসিন্দা। পিতা- মোঃ নুরুজ্জামান, মাতা- মোছাঃ দুখোনী। ৪। মোঃ রবিন (২৫), জল্লার পাড়ার মসজিদ গলির বাসিন্দা। পিতা- গাজী মারফাত, মাতা- মোছাঃ রুমা বেগম।

র‌্যাবের প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় যে, আটককৃত আসামীরা পরস্পর যোগসাজসে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও রাস্তা ঘাটে পরিকল্পিতভাবে দলবদ্ধ হয়ে অস্ত্রসস্ত্রের মহড়া ও দাপট প্রদর্শন করে ভয়ভীতি দেখিয়ে বিশৃঙ্খলা এবং অরাজকতা পরিস্থিতি সৃষ্টি করে। তারা জনমনে ত্রাসের সৃষ্টির মাধ্যমে জনসাধারণের নিকট হতে চাঁদাদাবী করে। এলাকাবাসী তাদের হিংস্রতা, অত্যাচার ও নির্যাতনের ভয়ে প্রতিবাদ করতে সাহস পায় না। তারা দীর্ঘদিন ধরে পরিকল্পিতভাবে ছিনতাই ও চাঁদা দাবীর উদ্দেশ্যে দলগতভাবে শক্তির মহড়া, দাপট প্রদর্শনসহ গুরুতর ধর্তব্য অপরাধ সংঘটন করে নারায়ণগঞ্জ জেলার সদর মডেল থানা এলাকাসহ আশপাশ এলাকায় দলবদ্ধ হয়ে জনমনে ভয়ভীতি ও ত্রাস সৃষ্টি করে ছিনতাই এবং বিশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সৃষ্টির মাধ্যমে আইন শৃঙ্খলার বিঘ্ন ঘটিয়ে আসছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, আসামী কিশোর গ্যাং সদস্যদের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ জেলার সদর মডেল থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে।

RSS
Follow by Email