শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০২৪
জেলাজুড়েবন্দর

রাস্তা থেকে তুলে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ, ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: প্রথমে  রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে আপত্তিকর ভিডিও ধারন করে। পরে সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে বন্ধুদের সহায়তায় যুবতী(১৮)কে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠে এক যুবকের বিরুদ্ধে। শুক্রবার ভূক্তভোগী বাদী হয়ে ২ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা ৫/৭ জনকে আসামি করে বন্দর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করে। তথ্যটি লাইভ নারায়ণগঞ্জকে নিশ্চিত করেছেন বন্দর থানার ইন্সপেক্টর (অফিসার ইনচার্জ) গোলাম মোস্তফা।

অভিযুক্তরা হলো, বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের মোহনপুরের নিশং এলাকার বাসিন্দা অয়ন (২৩)। তার সহায়তাকারী নরপর্দী এলাকার নাহিদ মিয়ার ছেলে সিফাত ও অজ্ঞাত ৫ থেকে ৭জন। এর আগে মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৭টায় বন্দর উপজেলার নরপর্দী কুড়িয়াভিটা ব্রীজের ঢালে ওই ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে বলে জানা যায়।
এদিকে, পুলিশ ভিকটিমকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। ধর্ষণের ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত অয়ন ও সিফাত পলাতক রয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, ১১ ফেব্রুয়ারি রাত ৮ টায় ভুক্তভোগী নারী ও তার ১৩ বছরের চাচাতো ভাই সিয়াম নরপর্দী জনৈক হান্নান মিয়ার দোকানের সামনে দিয়ে বাসায় ফিরছিলেন। পথে সেখানে উৎপেতে থাকা অভিযুক্ত সিয়াম ওই যুবতীকে পথরোধ করে, জোর পূর্বক একটি অজ্ঞাতনামা অটো গাড়িতে করে নরপর্দী স্কুলের সামনে নিয়ে যায়। পরে সেখানে সিফাত ও অয়নসহ অজ্ঞাতনামা ৫/৭ জন মিলে ওই নারীকে হাত পা বেঁধে পরিধানের জামা কাপড় টানা হেচড়া করে ছিড়ে ফেলে,এরপর আপত্তিকর ভিডিও ধারন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে। পরবর্তীতে ভূক্তভোগী নারী মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টায় ঘারমোড়া চাচাতো বোনের বাড়িতে দাওয়াতে আসলে ওই সময় সিফাত ভূক্তভোগী নারী চাচাত বোনের মোবাইল ফোন করে তাকে নরপর্দী ব্রিজের সামনে আসতে বলে।
এ সময় ভূক্তভোগী নারী ব্রিজে আসবে না বলে জানালে এ ঘটনায় সিফাত ক্ষিপ্ত হয়ে ধারণকৃত আপত্তিকর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার ভয় দেখায়। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী সম্মানের ভয়ে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৭টায় বন্দর থানার কুড়িয়াভিটা ব্রীজের সামনে আসলে ওই সময় সিফাতের সাথে থাকা অয়ন ওই নারীকে কুপ্রস্তাব দেয়। কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সিফাতসহ অজ্ঞাত নামা ৫/৭ জনের সহায়তায় লম্পট অয়ন ওই নারীকে ধর্ষণ করে কৌশলে পালিয়ে যায়।
বন্দর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শওকত আলী জানান, ভিকটিমকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য আমাদের অভিযান অব্যহত রয়েছে।
RSS
Follow by Email