বৃহস্পতিবার, জুন ১৩, ২০২৪
Led04বন্দররাজনীতি

যে কারণে আবারো নির্বাচন করতে চান সেলিম ওসমান

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বলেছেন, আমি আমার এলাকার মানুষের গোলামি করবো। যারা গোলামি করতে পারবে, তারাই আমার সাথে থাকবে। একটা মানুষ যদি চেষ্টা করে, তাহলে সবাইকে একত্রিত করতে পারলে সব কিছু হয়ে যায়। করোনার জন্য দুই তেকে আড়াই বছর আমরা মানব সেবা ছাড়া আর কোন উন্নয়ন করতে পারি নাই। আমাদের একটা চিন্তা ছিলো, ভবিষ্যত প্রজন্ম যাতে সু-শিক্ষায় শিক্ষিত হয়। আমরা আমাদের জিবন থেকে তিনটা বছর কিন্তু গাড়িয়ে ফেলেছি। এই তিন বছর যদি আমরা না হারাতাম, তাহলে এই নবীগঞ্জে ফেরি হতো না, ব্রীজ হয়ে যেতো।

তিনি বলেছেন, আমরা নাসীম ওসমান ব্রীজ করতে পেরেছি। আমরার জীবন তেকে এই ৩টি বছর হারিয়ে গেছে বলেই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, যদি আমার এলাকার জনগন চায়, যদি আমার নেতাকর্মীরা আমাকে নির্দেশ করে; তাহলে আমি নির্বাচন করবো। আমি আল্লাহ ছাড়া কারো কাছে মাথানত করি না।

শনিবার (১১ নভেম্বর) বিকেলে কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেনের চেয়ারম্যান হিসেবে এক যুগ পূরনে, উন্নয়ন শীর্ষক সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম সেলিম ওসমান এসব কথা বলেন।

সেলিম ওসমান বলেন, আমি কিন্তু নির্বাচন করতে জানতাম না, আমার শামীম ওসমান, চন্দনশীল, খোকন সাহা, বাদল; এরাই আমার নির্বাচন করেছে। মাঠ গরম রেখেছে। আমি আপনাদের গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারি আবারো যদি শেখ হাসিনা সরকার গঠন করতে পারেন, এই ১৫ বছরে বাংলাদেশে যত উন্নয়ন হয়েছে আগামী ৫ বছরে এর ডাবল উন্নয়ন হবে। সুতরাং আপনি যেই দলই করেন না কেন, একবার চিন্তা করে দেখবেন। আমরা সুন্দর ভাবে এই বাংলায় বসবাস করতে পারবো, তার জন্য দরকার এই সরকারকে আবারো ক্ষমতায় আনা।

তিনি আরও বলেন, যদি কেউ বলেন যে আবার এমপি হওয়ার স্বপ্ন কেন দেখছেন, ওইযে বললাম আমি ৩ বছরে হারিয়ে ফেলেছি। এই সময়টা যদি আমি পেতাম, তাহলে আজ শান্তিরচরে অন্ত ২০ লাখ মানুষ কাজ করতে পারতো।

অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বাবু চন্দন শীল, বন্দর উপজেলার চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ রশিদ, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি ও বন্দর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান সানাউল্লাহ সানুসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

RSS
Follow by Email