বুধবার, এপ্রিল ২৪, ২০২৪
Led02গণমাধ্যমশিক্ষাসোশ্যাল মিডিয়া

যুক্তিতর্কের উৎসবে মেতেছে নারায়ণগঞ্জ-মুন্সিগঞ্জের ১৭ স্কুলের শিক্ষার্থীরা

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: যুক্তিতর্কের মেধার উৎসবে মেতে উঠেছে নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সিগঞ্জের  ১৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। তাদের সাথে ছিল শিক্ষক অভিভবাবকরাও। উৎসব প্রতিযোগিতার, কিন্তু শিক্ষার্থীরা ছিল উচ্ছ্বসিত। অনুষ্ঠান সকাল ৯টায় শুরুর কথা থাকলেও সকাল ৭টা থেকেই আসতে শুরু করে শিক্ষার্থী-শিক্ষক-অভিবাবকরা। এমন চিত্র ছিল সোমবার (৪ সেপ্টমর) সকালে নগরীর ‘নারায়ণগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে’।


‘যোগ দাও যুক্তির মেলায়’ এই স্লোগান নিয়ে নারায়ণগঞ্জে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘পুষ্টি-প্রথম আলো স্কুল বিতর্ক’ প্রতিযোগিতা। প্রতিযোগিতার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন নারায়ণগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুদা আক্তার।  উৎসবে নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সিগঞ্জের ১৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ১৪৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে। প্রতিটি স্কুল থেকে চারজন করে বিতার্কিক ও কুইজে ছয়জন অংশ নেয়। দিনব্যাপী প্রতিযোগিতার শেষে চুড়ান্ত বিজয়ীরা পুরুস্কৃত হওয়ার পাশাপশি, ঢাকায় জাতীয় পর্বের মূল প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার সুযোগ পাবে।

পুষ্টি-প্রথম আলো স্কুল বিতর্ক উৎসব আয়োজনে সহযোগিতা করছে প্রথম আলো বন্ধুসভা। প্রচার সহযোগী হিসেবে আছে নাগরিক টেলিভিশন। নারায়ণগঞ্জের প্রথম আলো বন্ধুসভার অর্থ সম্পাদক মৌন লাকির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন পুষ্টি-প্রথম আলো স্কুল বিতর্ক উৎসবের সমন্বয়ক সাইদুজ্জামান রওশন। এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের মাদকের বিরুদ্ধে শপথবাক্য পাঠ করান।

প্রতিযোগীরা জানান, এই ধরণের উৎসব আমাদের প্রতিনিয়ত অনুপ্রানিত করে। নতুন ভাবে অনেক কিছু শেখা যায়। নতুনদের সাথে পরিচিত হতে সুযোগ সৃস্টি করে। এমন আয়োজন আরও বেশি বেশি করা হোক। আর বিতর্ক প্রতিযোগিতা করার জন্য প্রচুর বই পড়তে হয়। বিভিন্ন তথ্যের জন্য অনুসন্ধান করা লাগে। যা আমাদের ভবিষৎ এর জন্য সুফল বয়ে আনবে।

বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রতিযোগীদের সাথে আসেন অভিভাবক ও শিক্ষকবৃন্দ। শিক্ষকরা জানান, মেধা বিকাশের এমন আয়োজন সব সময় শিক্ষার্থীদের নতুন ভাবে তৈরী করে। মাদক থেকে দূরে রাখবে। মোবাইলসহ নানা রকম আসক্তি থেকে রক্ষা করবে।

উদ্বোধনী বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুদা আক্তার বলেন,  তর্কের খাতিরে আমরা তর্ক করবো। আজকের কিশোর আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। সেই অর্থে ভবিষ্যৎ নেতৃত্বের জন্য সুস্থ মন নিয়ে বেড়ে উঠতে হবে। মাদক যেমন মানুষের মনকে ধ্বংস করে দেয়, তেমনই শরীরকেও ধ্বংস করে দেয়। তাই মাদকমুক্ত সমাজ গড়ে তুলতে হবে। মাদকের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে।

RSS
Follow by Email