বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০২৪
Led02জেলাজুড়েবন্দররাজনীতি

মুকুল সাহেব চোখে ধুলা দিয়ে কিসের উন্নয়ন করবেন: এমএ রশিদ

বন্দর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ রশিদের বিজয় করার লক্ষ্যে বন্দর ইউনিয়ন কলাবাগ পঞ্চায়েত কমিটির উদ্যোগে নির্বাচনী উঠান বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে। শুক্রবার (৩ মে) বন্দর উপজেলার উত্তর কলাবাগ বাবরী মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় ওই বৈঠকের আয়োজন করা হয়।

বন্দর থানা যুগলীগের নেতা মো. উজ্জ্বল আহাম্মেদ’র সভাপতিত্বে ২২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি শেখ মমিনের সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জিএম আরমান, বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি গাজী সালাম প্রমূখ।

বৈঠকে এমএ রশিদ বলেন, আপনার ভোটটি অত্যন্ত মূল্যবান। কাকে আপনার জনপ্রতিনিধি হিসেবে চান তা আপনার ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করতে হবে। লতিফ হাজী সাহেব ছিলেন কুখ্যাত রাজাকার। এই কুখ্যাত রাজাকারের নাতি হলেন মুকুল সাহেব। যে কিনা বলতে চান, বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা যুদ্ধে কোন অবদান নাই। সবকিছু করেছেন জিয়াউর রহমান। উনি প্রোপাগান্ডার মাধ্যমে ইতিহাসের পরিবর্তন করতে পারেন না। বন্দরবাসী জানেন আসলে কি হয়েছিল। উনি নিজের স্বার্থ হাসিলের জন্য চেয়ারম্যান হতে চান। চোখে ধুলা দিয়ে কিসের উন্নয়ন করবেন উনি। উন্নয়নের কাজ করতে স্থানীয় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান সাহেব, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতা লাগবে। সবই তো আওয়ামী লীগের লোক। উনার মতো সবাই রাজাকার না। তাহলে উন্নয়ন কিভাবে করবেন।

তিনি বলেন, বন্দরবাসীর উন্নয়নে আমি সবসময় কাজ করেছি এবং সামনেও ইনশাল্লাহ আরও কাজ করবো। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ বাস্তাবায়নে আমরা বদ্ধ পরিকর। আগামী ৮ মে দোয়াত-কলম মার্কায় ভোট দিয়ে বন্দরের উন্নয়নের ধারা আরও বেগবান করুন।

RSS
Follow by Email