শনিবার, জুন ২২, ২০২৪
Led02অর্থনীতিজেলাজুড়েবিশেষ প্রতিবেদনসদর

ভুতুরে বিদ্যুৎ বিলের যাঁতাকলে নগরবাসী, ব্যাখ্যা দিলো ডিপিডিসি

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: তাপদাহের কারণে নগরবাসীর ভোগান্তি পৌঁছেছে চরমে। কিন্তু এই চরম ভোগান্তির গরম আরেকটু বাড়িয়ে দিলো ভুতুরে বিদ্যুতের বিল। স্বাভাবিকের তুলোনায় অতিরিক্ত বিদ্যুত বিল আসায় বিপাকে পরেছে নগরবাসী। প্রায় দ্বিগুণ বিদ্যুৎ বিলের কারণে মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তে পরিবারের মাসিক বাজেট পরেছে সংকটে। বিগত মাসের তুলোনায় হটাৎ এই বিদ্যুৎ বিল নিয়ে অভিয়োগ জানিয়েছে নগরবাসী।

এ বিষয়ে নগরীর নগর খানপুর এলাকার বাসীন্দা মহিউদ্দন অভিযোগ করেন, আমাদের মার্চ মাসে বিদ্যুৎ বিল এসেছিলো ১৬শ টাকা। প্রতি মাসে বিদ্যুত বিল একটু কমে বা বাড়ে। এবার এপ্রিল মাসের সেই বিদ্যুৎ বিল হয়েছে ২৫শ টাকা। আমার বাড়িতে বিদ্যুতের কোন কাজ করা হয় নি, কোন আলাদা নতুন ইলেক্ট্রনিক সামগ্রী ব্যবহার করা হয়নি। তাহলে এতো টাকা বিল আসলো কিভাবে। এটা শুধু আমাদের নয়, আশে পাশের অনেকের বাসায় এমনটাই হয়েছে। কারো কারো সাড়ে ৩ হাজার টাকা বিদ্যুত বিল দিয়েছে যার বাসায় দুটো লাইট, দুটো ফ্যান, একটা টিভি, আর একটা ফ্রীজ আছে।

সদর উপজেলা আনোয়ারা নীট গার্মেন্টস কর্মী মনি আক্তার বলেন, হঠাৎ করেই তিন গুন বেশি বিল এসেছে। এতো টাকা পরিশোধ করা সক্ষমতা আমাদের নেই। কারণ সংসারের একটা বাজেট থাকে। আমরা বেতন পাওয়ার সাথে সাথে সংসারের বিভিন্ন জিনিসের জন্য টাকা আলাদা করে রাখি। প্রতি মাসে যে বিল পরিশোধ করতাম তার চেয়ে ২/১ শ টাকা বেশি আসলেও কষ্ট হতো না। কিন্তু এবার বিদ্যুৎ বিল দুই হাজার টাকা বেশি এসেছে। কোথা থেকে দেবো এই টাকা।

বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ি, এ বিদ্যুৎ বিলকে এক প্রকার ডাকাতি আখ্যায়িত করেছেন বহু গ্রাহক। অভিযোগে তারা জানিয়েছেন, এভাবে ভুতুরে বিল দিয়ে জনসাধারণকে নির্মম নির্যাতন করা হচ্ছে। বিদ্যুৎ কর্মকর্তা কর্মচারিদের চরম গাফিলতির কারনে এমন বিল এসেছে। অনেকে আবার বিল নিয়ে পঞ্চবটি বিদ্যুৎ অফিসে দেখা করে প্রতিকার চাইলে উল্টো লাঞ্চিত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন তারা।

তবে এ ভুতুরে বিলের ব্যাখ্যা দিয়েছে ডিপিডিসির কর্মকর্তা। সিদ্ধিরগঞ্জ এটিআই অফিসের সুপারইনটেন্ডিং ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ শের আলী লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, তাপদাহর কারণে বিদ্যুত বিল বেড়েছে। বিগত সময় আমরা কখনো এমন তাপমাত্রা ফেস করিনি। আমাদের কাছেও অভিযোগ এসেছে যে কিছু কিছু জায়গায় বিদ্যুৎ বিল সাধারণের তুলোনায় ৬০-৮০ শতাংশ বেশি এসেছে। মূলত গরম পরলেই বিদ্যুতের ব্যবহার বাড়ে। এবার আমরা কোথাও লোডশিডিং তেমন দেই নি। বিদ্যুৎ মিটারে একটি লিমিট থাকে যেখানে বিদ্যুতের ইউনিট বেশি ব্যবহার করলে সেটার রেট ও বেড়ে যায়। কিছু যায়গায় হয়তো মিটারে সমস্য থাকতে পারে। তবে সার্ভিক ভাবে বলা যায় তাপদাহ এবং বিদ্যুতের বেশি ব্যবহারে কারণে এ বিল এভাবে বেড়েছে।

RSS
Follow by Email