মঙ্গলবার, জুলাই ১৬, ২০২৪
Led03জেলাজুড়েরাজনীতিসদর

বেগম জিয়া মুক্ত থাকলে স্বৈরাচারী শাসন কায়েম হতো না: গিয়াসউদ্দিন

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: জেলা বিএনপির সভাপতি মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিন বলেন, আজ সমগ্র জাতি লজ্জিত। যে নেত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ সৃষ্টি হয়েছে। গণতান্ত্রিক আন্দোলন, দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে যার ভূমিকা রয়েছে অপরিসীম, তিন তিন বারের প্রধান মন্ত্রী বিএনপির চেয়ারম্যান পার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আন্দোলন করতে হয়।

সোমবার (১ জুলাই) নগরীর শহীদ মিনারে জেলা-মাহনগর বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের আয়োজিত কর্মসূচীতে এ কথা বলেন তিনি। বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে এ কর্মসূচী পালিত হয়। মহানগর বিএনপির আহবায়ক এড. সাখাওয়াত হোসেন খানের সভাপতিত্বে ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক খোকন এবং মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপুর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। এছাড়া প্রধান বক্তা হিসেবে ছিলেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা বিএনপির সভাপতি মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ ও বেনজির আহম্মেদ টিটো।

সভায় বক্তা ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান সুমন, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য কাজী মনিরুজ্জামন মনির, মোস্তাফিজুর রহমান ভূঁইয়া দিপু, আব্দুল মান্নান প্রমুখ।

কর্মসূচীতে গিয়াসউদ্দিন বলেন, আমরা কেন বা আন্দোলন করবো নেত্রীর জন্য, যার মুক্তিযুদ্ধে অবদান অবিস্মরণীয় হয়ে রয়েছে। যে নেত্রীর স্বামী দেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন। নিজে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছেন। দেশের শাসনভার হাতে নিয়ে সারা বিশ্বের কাছে বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত করেছেন। তাকে আজকে অন্যায় ভাবে শাস্তি দিয়ে কারাগারে রাখা হয়েছে। অসুস্থ্য অবস্থায় তাকে মুক্তি দেওয়া হয় না, এটা জাতির জন্য দুর্ভাগ্য।

তিনি বলেন, আমাদের নেত্রীর গৌরব কত উজ্জ্বল, সেটা আপনাদের সামনে বলতে চাই। এ সরকার ক্ষমতায় এসে দুর্নীতি,অত্যাচার সব কিছু করেছে। এসব করতে গিয়ে ভয় পেয়েছে বেগম খালেদা জিয়াকে। সে যদি মুক্ত থাকতেন তাহলে চুরি বাটপারী, রাষ্ট্রীয় অবক্ষয়, রাষ্ট্রকে ধ্বংসের কাজে তারা লিপ্ত হতে পারতো না। আমাদের প্রিয় নেত্রী সেই সংগ্রামে ভূমিকা রেখেছে। নেত্রী মুক্ত থাকলে তারা স্বৈরাচারী শাসন কায়েম করতে পারতো না। এটা বুঝেই তারা মিথ্যা মামলা দিয়ে অন্যায়ভাবে সাজা দিয়ে আমাদের নেত্রীকে আটক রেখেছে। আমাদের প্রিয় নেতা তারেক রহমানকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে দেশ থেকে দূরে রেখেছে। তারা ভীত হয়ে দুইজনকে আন্দেলন সংগ্রামের বাইরে রেখে নিজের ভাগ্য উন্নয়নে ব্যস্ত রয়েছে। হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করে বিদেশে পাচার করেছে। দেশ পরিচালনার সাথে যারা রাজনীতি করে।

RSS
Follow by Email