বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০২৪
Dis_leadঅর্থনীতিসদর

বিকেএমইএ‘র নতুন ভবন উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: দেশে পোশাক শিল্প মালিকদের শীর্ষ সংগঠন বিকেএমইএ প্রধান কার্যালয়ের নতুন ভবন উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় নারায়ণগঞ্জের চাষাড়ায় অবস্থিত ভবনটি ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন তিনি।

উদ্বোধনের পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে যা ওয়াদা করেছেন, সবই করতেন। তিনি মাত্র সাড়ে ৩ বছরে দেশের ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার দূরদর্শিতা, দক্ষতার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে বদলে দিয়েছেন। ২০০৮ সালে যখন ডিজিটাল বাংলাদেশের কথা বলেছে, তখন অনেকে হেঁসেছে। আজকে তারাই সেই ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফল পাচ্ছি।

তিনি বলেন, শ্রমিকরা অসন্তোষ প্রকাশ করে কারখানা পুড়িয়ে দিতো। এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় শিল্প পুলিশ প্রতিষ্ঠা করার ঘোষণাদেন। এখন মালিক শ্রমিকদের মধ্যে সেতু বন্ধন গড়ে তুলেছে শিল্প পুলিশ। শেখ হাসিনার বিকল্প শুধু মাত্র শেখ হাসিনা।

এসময় নারায়ণগঞ্জের মানুষের দীর্ঘ দিনের দাবি মোট্টপলিটন পুলিশ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, নারায়ণগঞ্জ গণবসতী পুরণ এলাকা। এটা নিয়ে নির্বাচনের পর সিরিয়াসলি চিন্তা করবো।

এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভবনেপৌঁছালে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ব্যবসায়িক নেতারা। এসময় পুরো এলাকায় জোরদার ছিল নিরাপত্তা।

উদ্বোধনের পর মতবিনিময় সভার আয়োজন করে বিকেএমইএ।

কোরআন তেলওয়াতের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয় দুপুর পৌনে ১ টায়। এরপর ক্রেজ দিয়ে সম্মাননা প্রদান করা হয় অতিথিদের।

বিকেএমইএ সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিমের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান ও বিকেএমইএর নির্বাহী সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম।

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী জানান, বর্তমানে বৈদেশীক মুদ্রার সংকট চলছে। আপনারা রপ্তানী করে সেই বৈদেশীক মুদ্রাই আনছেন। আপনারা বৈদেশীক মুদ্রা অর্জন না করলে আরও বেশি সংকটে পরতো দেশ। শিল্প কারখানার মালিকরা ভালো থাকলে দেশ ভালো থাকবে। দেশ ভালো থাকলে দেশের মানুষ ভালো থাকবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্যবসা বান্ধব। তিনি আপনাদের বিদ্যুৎ থেকে শুরু করে গ্যাস, যোগাযোগ ব্যবস্থার সুবিধা দিচ্ছেন। আপনারা যদি সবাই মিলে প্রধানমন্ত্রীকে আবারও নির্বাচিত করতে পারি, তাহলে আমরা উন্নয়নের ধারাবাহিকাতা বজায় রাখতে পারবো। আপনারা যদি সবাই মিলে চেষ্টা করেন, তাহলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবারও নির্বাচিত হবে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশে রূপ নিবে।

নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কথা গুলো তুলে ধরে সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেন, আমরা সভাই আশা করি পুলিশ সবকিছু করে দিবে কিন্তু নারায়ণগঞ্জে পুলিশ সদস্য আছে মাত্র ১৮০০ থেকে ২২০০ জন। নেই লজিস্টিক সাপোর্টও নেই। এ অবস্থায় অনেক কিছু করা সম্ভব হয় না।

বর্তমান বাংলাদেশের পরিস্থিতি তুলে ধরে শামীম ওসমান বলেন, বাংলাদেশে কে কি চাইছে সেটা প্রধানমন্ত্রী স্পষ্ট করেছেন। আপনারা এখন সিদ্ধান্ত নিতে হবে আপনারা বাংলাদেশকে আফগানস্থান বানাতে চান, স্বাভাবিক একটা বাংলাদেশ চান।

মোহাম্মদ হাতেম জানান, ২০৩০ সালের মধ্যে পোশাক শিল্পখাত থেকে ১০০ বিলিয়ন ডলারের পণ্য রপ্তানি আয় লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ। তবে, এর চেয়েও বেশি রপ্তানি করা সম্ভব যদি কিছু উদ্যোগ নেওয়া হয়। দেশের উন্নয়ন গুলো এখনদৃশ্য মান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবারও প্রধানমন্ত্রী হলে সমস্যা গুলো সামধান হবে।

সেলিম ওসমান বলেন, এক সময় পাটের জন্য বিখ্যাত ছিল আমাদের নারায়ণগঞ্জ। হোসিয়ারী শিল্প ছিল কিছু। পাটকল গুলো যখন বন্ধ হয়ে যাচ্ছিল, তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হোসিয়ারী শিল্পকে রপ্তানি পণ্যে রূপ দিতে ১৯৯৬ সালে বিকেএমইএ গঠন করার নির্দেশ দেন। আজকে শুধু নারায়ণগঞ্জ শহর থেকে বছরে ১০ মিলিয়ন ডলারের নীট পোশাক রপ্তানি হয়। আমরা আর কিছু চাই না, শুধু নিরাপত্তা চাই।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জের সাবেক নারী সংসদ সদস্য হোসনে আরা বাবলী, নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল, সিনিয়র সহ-সভাপতি মনসুর আহমেদ, সহ-সভাপতি মো: রাশেদ, গাওহার সিরাজ জামিল, ফজলে শামীম এহসান, অমল পোদ্দার, আকতার হোসেন অপূর্ব উপস্থিত ছিলেন।

সহ-সভাপতি (অর্থ) মোরশেদ সারোয়ার সোহেলসহ ১২০০ ব্যবসায়ী উপস্থিত ছিলেন।

RSS
Follow by Email