শনিবার, জুন ২২, ২০২৪
Led03জেলাজুড়েফতুল্লা

পটুয়াখালীতে কিশোরী গণধর্ষণের ঘটনায় প্রধান আসামি ফতুল্লা থেকে গ্রেপ্তার

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: পটুয়াখালীতে ১৪ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় প্রধান আসামি মো. রাকিব(২৭) কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ জুন) র‌্যাব-১১ ও র‌্যাব-৮ এর যৌথ অভিযানে ফতুল্লা থানা হতে আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। আসামি মো. রাকিব(২৭) পটুয়াখালীর মোঃ ফোরকান মৃধার ছেলে।

র‌্যাব এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানায়, মামলার সূত্রে জানা যায় যে, ভিকটিমের বয়স ১৪ বছর। গত ৫ ফেব্রুয়ারি ভিকটিম তার মায়ের সাথে খালাবাড়ী চিংগুরিয়া বেড়াতে যায়। পরবর্তীতে একই তারিখে সন্ধ্যা আনুমিানকি ৬ টায় ভিকটিম ও তার ছোট বোনকে নিয়ে একই গ্রামের বান্ধবীর বাসায় যায়। সেখানে তাহারা কথাবার্তা শেষে বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওনা করলে গলাচিপা থানাধীন ডাকুয়া ইউনিয়নের হোগলাবুনিয়া ০৪ নং ওয়ার্ড, হোগলাবুনিয়া মসজিদ পাড় দিয়ে আসার সময় মামলার সূত্রোক্ত মামলার আসামি রাকিব (২৭) ও তার অন্যান্য সহযোগীদের সহায়তায় ভিকটিমকে গতিরোধ করে এবং ভিকটিমকে ধাক্কা মারিয়া রাস্তা থেকে ফেলে দেয়। পরবর্তীতে আসামি রাকিব ও তার অন্যান্য সহযোগীরা ভিকটিমকে টেনে নির্জন জঙ্গলের দিকে নিয়া যায়। আসামি মোঃ রাকিব ভিকটিমকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে এবং অন্যান্য সহযোগীরা ভিকটিমের হাত ও মাথা চেপে ধরে রাখে ও তাদের একজন ভিকটিমের ৮ বছর বয়সী ছোট বোনকে মুখ চেপে ধরে রাখে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, আসামি রাকিবের পর তার অন্যান্য সহযোগীরা একের পর এক পালাক্রমে ভিকটিমকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এছাড়া গ্রেপ্তারকৃত আসামি মো. রাকিব ও তার অন্যান্য সহযোগীদের সহায়তায় ভিকটিমকে ধর্ষণ করাকালীন সময়ে মোবাইলে ভিকটিমের নগ্ন ও আপত্তিকর ছবি সহ ভিডিও ধারণ করে এবং উক্ত বিষয়ে কারো কাছে নালিশ অথবা থানা পুলিশকে বললে উক্ত ছবি সহ ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার হুমকি প্রদান করে। এই ঘটনায় ধর্ষিতার পিতা মোঃ খলিলুর রহমান (৩৫) বাদী হয়ে পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করেন, মামলা নং-৯/৩৫। মামলা রুজুর পর থেকে আসামিরা আত্মগোপনে ছিল। গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রমের জন্য পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানায় র‌্যাব।

RSS
Follow by Email