মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
Led02রাজনীতি

না.গঞ্জে বিএন‌পির জাগর‌ণের প‌র আ.লীগের হুঙ্কার

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে একদফা দাবি আদায়ের পদযাত্রায় বিশাল শো-ডাউন করে অবস্থান জানান দিয়েছিল নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপির নেতাকর্মীরা। তা দেখে অনেকেই বলেছিল নারায়ণগঞ্জ বিএন‌পির জাগর‌ণ তৈরি হয়েছে।

তার একদিন পরই ‘শান্তি সমাবেশ’র মাধ্যমে বিএনপির সেই কর্মসূচিরই যেন পাল্টা জবাব দিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের এই কর্মসূচিতে মানুষের উপস্থিতি দেখে অনেকেই বলছেন, এটি বিএনপির জন্য আওয়ামী লীগের হুঙ্কার।

বুধবার (১৯ জুলাই) নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়া প্রেসক্লাবের সামনে মহানগর আওয়ামী লীগ ও ২নং রেল গেট এলাকায় দলিও কার্যালয়ের সামনে শান্তি সমাবেশ করে জেলা আওয়ামী লীগ। দুটো কর্মসূচিতেই নেতাকর্মীদের ভিড় ছিলো চোখে পরার মতো।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা নেতৃত্বে হাজার হাজার নেতাকর্মী ও সমর্থকরা কর্মসূচিতে অংশ নেন। শান্তি সমাবেশটি বঙ্গবন্ধু সড়কের প্রেস ক্লাবে সামনে হলেও কর্মসূচির নেতাকর্মীদের ভিড় ছাড়িয়ে যায় চাষাঢ়া পর্যন্ত। পাশাপাশি সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ মো. বাদলের নেতৃত্বে জেলা আওয়ামী লীগের কর্মসূচিতেও অংশ নেন জেলার বিভিন্ন ইউনিট থেকে আগত হাজারো নেতাকর্মী।

পৃথক দুটি সমাবেশ থেকে বিএনপিকে প্রতিরোধ করার ঘোষনা দেয় নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দরা।

নারায়ণগঞ্জ সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘আমাদের ধৈর্যের বাধ ফেটে গেলে আমরা বসে থাকবো না। আমরা কিন্তু অশান্ত করতে চাই না, আপনারা যদি অশান্ত করতে চান, তাহলে জবাব দেওয়া হবে।’

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা বলেন, ‘যেখানে বিএনপি অপরাজনীতি করবে, সেখানেই আমরা প্রতিরোধ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। যেখানেই বিএনপি জ্বালাও-পোড়াও করবে, সেখানেই দাত ভাঙ্গা জবাব দেওয়া হবে।’

এর আগে, গত ১৮ মে বিকেল ৩টায় নারায়ণগঞ্জের ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের কাঁচপুর ব্রিজ থেকে শুরু করে সাইনবোর্ড এলাকা পর্যন্ত পদযাত্রা করেছিল জেলা বিএনপি। সেদিনই ৪ টায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের জালকুড়ি বাসস্ট্যান্ড থেকে সাইনবোর্ড মোড় পর্যন্ত আরেকটি পদযাত্রা বের হয় অধ্যাপক মামুন মাহমুদের নেতৃত্বে। আর দুপুরে হয় নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দান থেকে চাষাঢ়া পর্যন্ত আরেকটি পদযাত্রা। যার নেতৃত্বে ছিল খন্দকার খোরশেদ আলম। বিকেলের দিকে শহরের খানপুর এলাকা থেকে পদযাত্রা মিছিল বের করে মহানগর বিএনপি।

পদযাত্রা কর্মসূচিতে অধ্যাপক মামুন মাহমুদ বলেন, ‘তারেক রহমান বাঁশি দিলেই আপনারা দেখেছেন, এদেশের ১৮ কোটি মানুষ রাজপথে নেমে আসে; এটাই শেখ হাসিনার ভয়। শেখ হাসিনা এখন হিরো আলমকেও ভয় পায়। বিএনপির নেতাকর্মীরা যদি মাঠে নামে, শেখ হাসিনা তুমি কিন্তু পালানোর পথ পাবা না।’

RSS
Follow by Email