শনিবার, এপ্রিল ১৩, ২০২৪
Led04

না.গঞ্জকে ধ্বংসের জন্য জুট মিল্‌স বন্ধ করা হয়েছিল: সেলিম ওসমান

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান বলেছেন, নারায়ণগঞ্জের পাটকল গুলো চালুর জন্য আমার বাবা বঙ্গবন্ধুর কাছে গিয়ে ছিলো, তার কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে হোসিয়ারী এসোসিয়েশন, ইয়ান মার্চেন্ট এসোসিয়েশনসহ বিভিন্ন সংগঠনের থেকে ৩০ হাজার করে টাকা নিয়ে কারখানা গুলো চালু করেছিলো। ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত কারখানা গুলো লাভবান ছিল, কোন এক সরকার নারায়ণগঞ্জকে ধ্বংস করার জন্য আমাদের আদমজী জুট মিল্‌স বন্ধ করে দিয়েছে। বাওয়া জুট মিল্‌স বন্ধ করে দেওয়া হলো, প্রতিটি র‌্যালি ব্রাদার্স বন্ধ করে দেওয়া হলো। জুট এসোসিয়েশন ভবন এখন ডাক্তারখানা হয়ে গেছে। নদীর পার দিয়ে গেলেই দেখা যেতো পাট আর পাট। প্রাচ্যর ডান্ডি বলা হলো নারায়ণগঞ্জকে। কারো কাছে টাকার অভাব ছিল না।

নারায়ণগঞ্জের বন্দর ইউনিয়নের উন্নয়ন শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় শনিবার (১৪ অক্টোবর) রাত ১০ টার দিকে এহসান উদ্দিন চেয়ারম্যানের বাসায় এ কথা বলেন তিনি।

তার ভাষ্য মতে, ‘আল্লাহর রহমতে এখনও আমাদের অবস্থান তাই আছে, বাংলাদেশের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ নারায়ণগঞ্জ। যারা নাকি বৈদেশীক মুদ্রা অর্জন করে, পোশাক শিল্প দিয়ে নারায়ণগঞ্জের মানুষ বহু টাকা আয় করছে। প্রবাসীদের রেমিট্যান্সও কোন অংশে কম আসছে না নারায়ণগঞ্জে।’

সেলিম ওসমান বলেন, আমার দাদা আমার থেকে অনেক বেশি টাকা কাজ করেছে, তিনি আমার মতো কাজ করতে না পারলেও গরিব মানুষকে সহযোগীতা করতে পেরেছেন। ব্রিটিশ সরকার থেকে এদেশকে মুক্ত করার পিছনে আমার দাদার অবদান রয়েছে, মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠিত করে প্রশিক্ষণ দিয়ে আবার দেশে আনার পিছনে আমার বাবার অবদান রয়েছে। আর আমি আমার টাকা দিয়ে কাজ করেছে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য। যে টাকা দিয়ে স্কুল গুলোতে আধুনিকমানের ভবন করে দিয়েছি। সেই এক ভবনের টাকা দিয়ে ৬টি ভবন করা যেতো। প্রতিটি ভবনেই ৬ তলা ফাউন্ডেশন দেওয়া। লিফটের ব্যবস্থা রয়েছে।

বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন আহমেদের সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ রশিদ, নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়পার্টির সভাপতি সানাউল্লাহ সানু, বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিন প্রধান, নারায়ণগঞ্জ মহানগর জাতীয়পার্টির সাধারণ সম্পাদক মো. আফজাল হোসেন, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার প্রধান প্রমুখ।

RSS
Follow by Email