বৃহস্পতিবার, মে ৩০, ২০২৪
Led01আদালতজেলাজুড়েরূপগঞ্জ

নারীকে গণধর্ষণ: ৬বছর পর প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: গণধর্ষণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড প্রাপ্ত আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। তাদের দাবি ওই মামলার প্রধান আসামী তিনি। শুক্রবার (৩ মে) খাগড়াছাড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলা থেকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। এর আগে গত ১৫ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ জেলার বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক নাজমুল হক শ্যামল গ্রেপ্তারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

গ্রেপ্তারকৃত আসামির নাম মোক্তার (২৫)। সে রূপগঞ্জ উপজেলার ছোনার এলাকার শুক্কুর আলীর ছেলে।

র‌্যাব-১১ মিডিয়া অফিসার (এএসপি) সনদ বড়ুয়া জানান, বিজ্ঞ আদালতের রায় ঘোষনার পর আসামী খোকন ওরফে খোকা (৩০)’কে ইতিপূর্বে র‌্যাব-১১ এর আভিযানিক দল গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হলেও প্রধান আসামী মোক্তার পলাতক ছিল। এক পর্যায়ে র‌্যাব-১১ গোপন তথ্যের মাধ্যমে মোক্তারের অবস্থান শনাক্ত করতে সক্ষম হয়। ৩ মে খাগড়াছাড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মামলার বিবরণ সূত্রে জানা যায়, রূপগঞ্জ উপজেলার ছোনাব গ্রামের ভিকটিম ও তার স্বামী উভয়ই পেশায় শ্রমিক। ভিকটিমের স্বামী ৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ সালে ভাড়া বাসায় তার স্ত্রীকে রেখে কাজে চলে যায়। বাসায় অন্য কেউ না থাকার সুযোগে ভিকটিমকে একা পেয়ে সন্ধ্যায় আসামী মোক্তার (২৫)সহ তার সহযোগীরা মিলে ভিকটিমের ঘরে প্রবেশ করে এবং ভিকটিমকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে আসামীরা ভিকটিমকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে কৌশলে পালিয়ে যায়।
ওই ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধিত/২০০৩) এর ৭/৯(৩) ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে এই মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে আসামি মোক্তার (২৫) ও আসামী খোকন ওরফে খোকার অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় তাদেরকে বিজ্ঞ আদালত চলতি বছরের ১৫ এপ্রিল তারিখে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন। গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

RSS
Follow by Email