শনিবার, জুন ২২, ২০২৪
Led04জেলাজুড়েরাজনীতিসদর

তোলারাম কলেজের শিক্ষার্থীদের নিয়ে গর্বিত নন শামীম ওসামন

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আনন্দ ও উচ্ছাসের মধ্য দিয়ে সরকারী তোলারাম কলেজে নবীন বরণ অনুষ্ঠান উৎযাপিত হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ জুন) সকালে কলেজ প্রাঙ্গনে অধ্যক্ষ প্রফেসর বিমল চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে ও কলেজ ছাত্র-ছাত্রী সংসদের প্রতিনিধি হাবিবুর রহমান রিয়াদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরু হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেব উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান। প্রধান অতিথির বক্তেব্যে কলেজ নিয়ে নানা স্মৃতি বিজোরিত ঘটনা ব্যক্ত করেন তিনি। এসময় কলেজে বর্তমান প্রেক্ষাপট নিয়ে কথা বলার সময়ে কলেজের শিক্ষার্থীদের উপর গর্বিত বোধ করেন বলে তিনি মন্তব্য করেন।

শামীম ওসমান বলেন, তোমরা আমাকে জিজ্ঞেস করতে পারো আমি তোমাদের নিয়ে গর্বিত কিনা? উত্তর হলো, মোটেও না। কারণ, যখন কোন অন্যায় হয় তখন তোমাদের প্রতিবাদ দেখি না কেনো। ছাত্রলীগের ছেলেরা প্রতিবাদ করে, এটা তাদের কাজ। শামীম ওসমানও যদি কোন অন্যায় করে, তোমরা প্রতিবাদ করো না কেনো। তোমাদের কাজ হচ্ছে সমাজকে পরিবর্তন করে দেওয়া। পৃথিবীর অনেক দেশে শ্রমিক সমাজ আন্দোলন করে। কিন্তু বাংলাদেশ এমন একটা দেশ যেখানে ছাত্ররা আন্দোলন করে দেশ স্বাধীন করেছে।

তিনি বলেন, তোমরা জানো না হয়তো, ১৯৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানে সারা দেশে ১১জন ছাত্র মারা গিয়েছিলো। এই ১১জনের মধ্যে ১০জন নারায়ণগঞ্জের। এই নারায়ণগঞ্জ সব আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছে। এই কলেজে ছাত্রদের পক্ষে কথা বলার কারণে এক সময়ে থ্রি-নট-থ্রি রাইফেল দিয়ে আমাকে ১৫ রাউন্ড গুলি করা হয়েছিলো। আমি লাফালাফি করছিলাম, আমার শরীরে গুলি লাগায় নাই। তখন আমার স্যার আমার সামনে এসে দাঁড়িয়েছিলো। পরে যখন আমাকে পারে নাই, পরীক্ষা চলাকালিন আবু আউয়াল নামের এক ছাত্রকে গুলি করে মেরেছিলো। আমাদের ৮৫জন ছেলে সেদিন গুলিতে আহত হয়েছিলো।

তিনি আরও বলেন, আমি তোমাদের সাহায্য চাই। আমার বয়স হয়ে গেছে, আমি পারি না। যেখানেই অন্যায়, অবিচার সে যেই হোক না কেন; হোক শামীম ওসমান, তোমাকে তার প্রতিবাদ করতে হবে। কারণ এই দেশ তোমার। লেখাপড়া করলে ভালো ভাবে করো, না হয় কইরো না। খেললে ভালো করে খেলো, না হয় খেইলো না।

অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান ও শামীম ওসমানের সহধর্মিনী সালমা ওসমান লিপি।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বাবু চন্দন শীল।

আরও উপস্থিত ছিলেন- মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম, জেলা ছাত্র লীগের সাবেক সভাপতি এহসানুল হক নিপু, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল, শামীম ওসমানের পুত্র ইমতিনান ওসমান অয়ন প্রমুখ।

RSS
Follow by Email