বুধবার, এপ্রিল ২৪, ২০২৪
Led01রাজনীতি

তৃণমূল বিএনপিতে যাচ্ছে তৈমুর, পত্রিকায় প্রকাশের পর হৈচৈ

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: প্রয়াত নাজমুল হুদার দল তৃণমূল বিএনপিতে যোগ দিচ্ছেন বিএনপির সাবেক  নেতা তৈমুর আলম খন্দকার। তিনি তৃণমূল বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্বে আসছেন, এমন আলোচনাও রাজনৈতিক অঙ্গনে রয়েছে।

বিএনপির সাবেক এই নেতার তৃণমূল বিএনপিতে যোগ দিতে যাওয়ার খবরটি দেশের জাতীয় দৈনিক ‘প্রথম আলো’তে প্রকাশের পর হৈচৈ শুরু হয়েছে নারায়ণগঞ্জে। পত্রিকা টিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব শেখ হাবিবুর রহমান। বিষয়টি অস্বীকার করেননি তৈমুর আলম খন্দকারও।

তৃণমূল বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব শেখ হাবিবুর রহমান আজ রোববার রাতে মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, শুধু তৈমুর আলম খন্দকারই নন, বিএনপির সাবেক নেতাদের আরও অনেকে তাঁদের দলে যোগ দেবেন। ১৯ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে দলের কাউন্সিল হবে।

<span;>তৃণমূল বিএনপি নির্বাচন কমিশনে (ইসি) নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর একটি। দলটির প্রতীক সোনালি আঁশ। ইসিতে নিবন্ধিত হওয়ায় আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিজেদের প্রতীকে ভোট করতে পারবে দলটি। আগামী ডিসেম্বরের শেষে বা আগামী বছরের জানুয়ারিতে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

তৃণমূল বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা নাজমুল হুদা। তিনি ১৯৯১ ও ২০০১ সালে দুই দফায় খালেদা জিয়ার সরকারে মন্ত্রী ছিলেন। তবে ২০১২ সালে বিএনপির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে বিএনএফ নামে নতুন দল গঠন করেন। পরে সেই দল থেকে তাঁকে বহিষ্কার করেন দলটির প্রধান সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ। এরপর বাংলাদেশ ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স (বিএনএ) এবং বাংলাদেশ মানবাধিকার পার্টি (বিএমপি) নামে দুটি নতুন রাজনৈতিক দল গঠন করেন নাজমুল হুদা। এরপর ‘তৃণমূল বিএনপি’ গঠন করেন তিনি।

আইনজীবী তৈমুর আলম খন্দকার ১৯৯৬ সালে বিএনপিতে যোগ দেন। তিনি নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ছাড়াও মহানগর বিএনপির নেতৃত্বে ছিলেন। বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টার পদও পেয়েছিলেন তিনি। ২০১১ সালে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তিনি ছিলেন বিএনপির প্রার্থী। শেষ মুহূর্তে দলের সিদ্ধান্তে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়ে দেশব্যাপী তখন আলোচনায় এসেছিলেন।

তবে বিএনপি নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিলেও ২০২২ সালে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হন খন্দকার তৈমুর আলম। তাঁরা এই সিদ্ধান্তের কারণে গত বছরের জানুয়ারিতে তৈমুর আলমকে দল থেকে বহিষ্কার করে বিএনপি।

তৈমুর আলম খন্দকার আজ রাতে মুঠোফোনে বলেন, তিনি বিএনপির দুঃসময়ে ছিলেন। এখন বিএনপির সুসময়। বিএনপি মনে করে তাঁকে দলের আর দরকার নেই। তাই তিনি তৃণমূল বিএনপিতে যাচ্ছেন। ভারতের কংগ্রেস ছেড়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস গঠনের কথা উল্লেখ করে তৈমুর আলম খন্দকার বলেন, তৃণমূল বিএনপি নামটি তাঁর পছন্দ হয়েছে, এটিও নতুন দলে যাওয়ার একটি কারণ।

RSS
Follow by Email