সোমবার, জুন ২৪, ২০২৪
Led03ধর্মরাজনীতি

জিউস পুকুরের ভূয়া মামলায় জেল হলেও আপসোস থাকবে না: খোকন সাহা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা বলেছেন, জিউস পুকুর ইসুতে আমার বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনে মামলা করা হয়েছে। জেল খাটানোর চেষ্টা করা হয়েছে। এখন তারা আমাকে প্রপোজাল পাঠায় স্যারি বললে মামলা তুলে নেওয়া হবে। আপনারাই বলেন আমি কি অন্যায় করেছিলাম? এই ভূয়া মামলায় যদি আমার জেল হয়, আমার কোন আপসোস থাকবে না।

শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে মতবিনিময় সভায় বুধবার (১৮ অক্টোবর) রাতে এ কথা বলেন তিনি।

নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের আয়োজনে নারায়ণগঞ্জ শিল্পকলা একাডেমিতে এ সভার আয়োজন করা হয়।

সেখানে খোকন সাহা বলেন, ‘যারা ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের জায়গা দখল করবে, তাদেরকে আমরা কোন অবস্থাতেই ছাড় দিবো না। দিতেও পারি না।’

দখলদারের নাম উল্লেখ না করেই খোকন সাহা বলেন, আদালতের নির্দেশ অমান্য করে প্রথমেই রহমত উল্লাহ ইনস্টিটিউট দখল করেছে, এরপর ৫৪০ বছরের মসজিদ ভেঙ্গে মার্কেট বানানোর চেষ্টা করেছে। আরও অনেক জমি দখলের চেষ্টা করেছে, সর্বশেষ ধরেছে জিউস পুকুর।

ওসমান পরিবার প্রসঙ্গে খোকন সাহা বলেন, সততার কিংবদন্তী ছিল শামীম ওসমান ও সেলিম ওসমানের বাবা একেএম সামসুজ্জোহা। তাঁর মতো সৎ রাজনীতিবীদ এ প্রজন্মে পাওয়া যাবে না। তাঁর বাবা ছিলেন খান সাহেব ওসমান আলী। হিন্দু মুসলিম দাঙ্গার সময় খান সাহেব ওসমান আলী ও একেএম সামসুজ্জোহা প্রতিহত করতে গিয়ে পশ্চিমা বিহারীদের নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন। এই পরিবারটি একটি অসাম্প্রদায়িক পরিবার, তাদের বিরুদ্ধে কোন দেবোত্তর সম্পত্তি দখলেরও অভিযোগ নাই।

যতক্ষন পর্যন্ত শেখ হাসিনা দেশে আছে এবং এই পরিবার বেঁচে আছে। ততদিন সংখ্যালগুদের কোন সমস্যা নাই। বিশেষ করে নারায়ণগঞ্জে।

নির্বাচন নিয়ে অনেকে গুলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায় জানিয়ে বলেন, ‘নেত্রী যাকে দিবে, তার পক্ষে আপনারা থাকবেন, আমরা বাংলাদেশের আওয়ামী লীগের নেত্রীকে চিনি, আপনারা কারো কোন কথায় কান দিবেন না।’

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিক শংকর কুমার দে’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম সেলিম ওসমান।

সাধারণ সম্পাদক শিপন সরকার শিখনের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন ক্লথ মার্চেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি প্রবীর কুমার সাহা, ইয়ান মার্চেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি লিটন কুমার সাহা, নারায়নগঞ্জ লবণ মিল মালিক গ্রুপের সভাপতি পরিতোষ কান্তি সাহা, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন কমিটির জাতীয় পরিষদ সদস্য বাসুদেব চক্রবর্তী, লাঙ্গলবন্দ স্নান উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুজিত সাহা, নারায়ণগঞ্জ মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিষ্ণুপদ সাহা, সাধারণ সম্পাদক সুশীল দাস, নারায়ণগঞ্জ মহানগর হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি লিটন চন্দ্র পাল প্রমুখ।

RSS
Follow by Email