শনিবার, জুন ২২, ২০২৪
রাজনীতি

জনগণের প্রতি তৈমুর ‘ভোটকেন্দ্রে এসে ভোট দিন, ব্যত্যয় ঘটলেই ভিডিও করুন’

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-১ আসনে ‘সোনালী আঁশ’ প্রতীক পেয়েছেন তৃণমূল বিএনপির মনোনীত প্রার্থী এড. তৈমুর আলম খন্দকার। সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জেলা রিটার্নিং অফিসার মো. মাহমুদুল হক এড. তৈমুরকে প্রতীক বরাদ্দ দেন।

প্রতীক পেয়ে তৈমুর আলম খন্দকার গণমাধ্যমকে বলেন, বাংলাদেশে একমাত্র বিরোধীদল হলো তৃণমূল বিএনপি। জাতীয় পার্টি অনেক রঙ-ঢং এর পর সরকারী দলের অনুকম্পা নিয়ে নির্বাচন করছে। ১৪ দল আগে থেকেই সরকারী দলের শরিক। তাই বর্তমানে তৃণমূল বিএনপি ১৪২ জন প্রার্থী নিয়ে বিভিন্ন আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। জনগণ যদি মনে করে, একটি প্রাণবন্ত পার্লামেন্ট গঠন করতে একটি শক্তিশালী বিরোধীদল দরকার তবে জনগণ অবশ্যই তৃণমূল বিএনপিকে ভোট দিবে। কারণ দেশে একমাত্র বিরোধীদল তৃণমূল বিএনপি, যা এখন প্রমাণিত হয়েছে। বিভিন্ন বড় দল সরকারী দলের অনুকম্পা নিয়ে নির্বাচন করছে। কিন্তু তৃনমূল বিএনপি শুরু থেকেই নিজ পায়ে দাঁড়িয়ে, নিজের অবস্থান থেকে নির্বাচন করার প্রয়াসে আছে।

ভোটারদের উদ্দেশ্যে তৈমুর বলেন, আমি জনগণকে বলবো, আপনারা নির্বাচনের দিন ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিন। আপনারা ভোট দেবার প্রস্তুতি নিন। যেখানে ব্যত্যয় ঘটবে, আপনার তার ভিডিও নিন। তা সোশ্যাল মিডিয়ায় দিন। এতে করে প্রধানমন্ত্রীর নিকট ভিডিও পৌঁছাবে, পুরো বিশ্ব তা জানবে। আমি জনগণের জন্যে কাজ করেছি। রূপগঞ্জবাসীর সাথে আমার ভালো সম্পর্ক। আমার মার কবর, দাদার কবর রূপগঞ্জে। রূপগঞ্জে ১০০০ জনের কর্মসংস্থান করে আমি ২৬ মাস জেল খেটেছি। রূপগঞ্জে জমি দখলের বিরুদ্ধে আমি একাই লড়ছি। রূপগঞ্জের মসজিদ, মন্দির, কবরস্থান, শ্মশানে আমার ছোয়া আছে। রূপগঞ্জবাসী এসব মনে রেখেছে।

তিনি বলেন, আমি দুনিয়ায় যখন ভূমিষ্ঠ হয়েছি, তখন থেকে একাই ছিলাম। বাবা বিট্রিশের বড় কর্মকর্তা ছিলেন বলে লন্ডনে পড়াশুনা করেছি। আমি বাংলাদেশের সর্বোচ্চ কয়েকটি ডিগ্রি অর্জন করতে পেরেছি। তবুও আমি আমার বন্ধুমহল থেকে সরে রিকশা ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট, ঠেলাগাড়ি ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট, হকার ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট হয়েছি। আল্লারে উপর ভরসা করে আমি নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। একমাত্র আল্লাহর সহযোগিতায় আমার ভরসা আছে।

এড. তৈমুর বলেন, ২০১৪ ও ২০১৮ এর নির্বাচন ছিল লুটপাটের নির্বাচন। অনেকে এমপি বাহিনী গঠন করেছে, পরিবারতন্ত্র কায়েম করেছে। এবার যদি এমপি বাহিনীরা নির্বাচনে লুটপাট করেন তবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তা রক্ষা করতে পারছেন কিনা তা জনগণ বিবেচনা করবে। বিশ্ববাসী বিবেচনা করবে।

RSS
Follow by Email