বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০২৪
Led04অর্থনীতিজেলাজুড়েসদর

চীনা উদ্যোক্তাদের প্রতি আখতার হোসেন অপূর্ব’র আহ্বান ‘বাংলাদেশে বিনিয়োগ’

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বিকেএমইএ’র সহ সভাপতি আখতার হোসেন অপূর্ব বলেছেন, বাংলাদেশের নিটওয়্যার শিল্পের চাহিদা মেটাতে শিল্প রাসায়নিক, কাঁচামাল, উচ্চ পর্যায়ের কাপড়ের পাশাপাশি আনুষাঙ্গিক বিষয়ের জন্য বাংলাদেশ মোটামুটিভাবে চীনের উপর নির্ভরশীল। কিন্তু সময়ে সময়ে বৈশ্বিক সরবরাহ শৃঙ্খলে বাধা,আমদানি প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করে এবং শেষ পর্যন্ত পুরো রপ্তানি প্রক্রিয়াকে বিলম্বিত করে। এই ক্ষেত্রে চীন কর্তৃক বাংলাদেশে বন্ডেড গুদাম স্থাপন করা, বাংলাদেশী নিটওয়্যার উদ্যোক্তাদের জন্য কাঁচামাল এবং অন্যান্যের ধারাবাহিক সরবরাহ নিশ্চিত করবে। এটা হবে বাংলাদেশ ও চীন উভয়ের জন্যই জয়-জয় পরিস্থিতি।

সোমবার (২২ এপ্রিল) দুপুর ১২টায় নারায়ণগঞ্জের চাষাড়ায় অবস্থিত বিকেএমইএ’র হেড অফিসে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ব্যবসায়িক উন্নয়ন ও পারস্পরিক সহযোগিতার বৃদ্ধির লক্ষ্যে চাইনিজ এন্টারপ্রাইজেস অ্যাসোসিয়েশন ইন বাংলাদেশ (সিইএবি-টেক্স) ও চায়না টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সোসাইটির সাথে বিকেএমইএ’র মতবিনিসময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় অপূর্ব বলেন, বাংলাদেশী নিটওয়্যার সংস্থাগুলি, বিশেষ করে ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোগগুলি সম্প্রসারণ এবং প্রযুক্তিগত উন্নতির জন্য তহবিল চাইছে। এই পটভূমিতে, আফ্রিকান টেক্সটাইল শিল্পে অভিজ্ঞ চীনা বিনিয়োগকারীরা দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা বাড়াতে বাংলাদেশের নিটওয়্যার সেক্টরে যৌথ উদ্যোগ এবং বিনিয়োগ অনুসন্ধান করতে পারে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ সরকার নারায়ণগঞ্জের তিনটি নদীর মোহনায় অবস্থিত শান্তির চরের ১৫০০ একর এলাকা বিকেএমইএ-এর জন্য নিটপল্লী নামে একটি বিশেষায়িত নিট ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক প্রতিষ্ঠার জন্য নির্ধারণ করেছে। বিকেএমইএ’র অবকাঠামোগত উন্নয়নের জন্য প্রাথমিক তহবিল বিনিয়োগের প্রয়োজন। চীন পারস্পরিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য এই মহান উদ্যোগের অংশীদার হতে পারে, যা উভয় পক্ষের জন্য পারস্পরিকভাবে উপকারী হবে। একই সাথে চীনা উদ্যোক্তাদের প্রতি বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানান তিনি।

সভার সভাপতিত্ব করেন বিকেএমইএ’র সহ সভাপতি ফজলে শামীম এহসান। বিকেএমইএ’র পক্ষে এসময় উপস্থিত ছিলেন- সংগঠনটির সহ সভাপতি অমল পোদ্দার, মোর্শেদ সারোয়ার সোহেল, মোহাম্মদ রাশেদ, পরিচালক আশিকুর রহমান, মোস্তফা মনোয়ার ভূঁইয়া, খন্দকার সাইফুল ইসলাম, রতন কুমার সাহা, আব্দুল হান্নান, খুরশিদ আহমেদ তুনিম।

চাইনিজ এসোসিয়েশনের পক্ষে এসময় উপস্থিত ছিলেন- চাইনিজ এন্টারপ্রাইজেস অ্যাসোসিয়েশন ইন বাংলাদেশ এর সভাপতি মি. মাইক, চায়না টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং সোসাইটির পরিচালক মি. ওয়াং ঝেং, চায়না ন্যাশনাল গার্মেন্ট এসোসিয়েশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট মি. ইয়াং জিয়াওডং,বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব টেক্সটাইল অনুষদের ভাইস ডিন ওয়াং জিয়াফেং। এছাড়া এসময় উপস্থিত ছিলেন- ৩১টি প্রতিষ্ঠানের মোট ৪২ জন প্রতিনিধি। তাদের সাথে ৪২ জনের একটি টিমও উপস্থিত ছিলেন।

RSS
Follow by Email