রবিবার, এপ্রিল ১৪, ২০২৪
Led04ফতুল্লা

কালো ধোঁয়ার দূষণ: নন্দলালপুরে সুমা ষ্টীল বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: প্রতিদিনই নির্গত হচ্ছে কালো ধোঁয়া।

এর প্রভাবে আশপাশের মানুষের ফুসফুস, কিডনি জটিলতা ও হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ার অভিযোগ উঠেছে। প্রভাব পড়ছে প্রাণিকুলও।

‘সুমা ষ্টীল এন্ড রোলিং মিলস্ লি.’ নামের একটি কারখানার ভয়াবহ বায়ুদূষণ থেকে মুক্তি পেতে শনিবার (২৯ জুলাই) বিকালে কয়েক শতাধিক নারী-পুরুষ মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছে।

সেখান থেকে প্রতিষ্ঠানটি বন্ধের দাবি জানিয়েছে তাঁরা।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের নন্দলালপুর এলাকায় অবস্থিত এই প্রতিষ্ঠানটি। তীব্র আগুনে ইস্পাত গলিয়ে প্রস্তুত করা হয় লোহা আর স্কয়ার বার।

এই উৎপাদন প্রক্রিয়ায় নির্গত হয় কালো ধোঁয়া।

নন্দলালপুর এলাকার এসএম কাদির বলেন, কারখানাটির কালো ধোঁয়ার ফলে এলাকার মানুষ অসুস্থ্য হয়ে পড়ছে। কারখানা কর্তৃপক্ষ চাইলেই পারে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে কালো ধোঁয়া বন্ধ করতে। কিন্তু তাঁরা তা করছে না। ফলে এলাকাটিতে বায়ূ দুষণ হচ্ছে, মানুষ স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ছে। অনেকে ফুসফুস, কিডনি জটিলতা ও হৃদরোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

কারখানা কর্তৃপক্ষের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘এখানে হাজার হাজার মানুষ বসবাস করে, আপনি তাদের মেরে কারখানা চালাবেন, এটা হতে পারে না। কারখানা চালাতে হলে বিল্ডিং কোড, পরিবেশ আইন মেনে কারখানা পরিচালনা করুন।’

কুতুবপুর ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী সদস্য আরজুদা বেগম খুকি বলেন, এলাকার মানুষ শুধু কালো ধোঁয় স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ছে না, শব্দ দুষণের কারণেও ঘুমাতে পারছে না। সুমা ষ্টীল কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করবো, কালো ধোঁয়া ও শব্দ দূষণ বন্ধ করার ব্যবস্থা করার জন্য। না হলে কি ভাবে কালো ধোঁয়া ও শব্দ দূষণ বন্ধ করার ব্যবস্থা করতে হয়, তা আমরা জানি। আপনারা ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে আমরা পুরো কুতুবপুরের মানুষ একত্রিত হয়ে কালো ধোঁয়া নির্গত করা প্রতিষ্ঠানই বন্ধ করে দিবো।

ফারুক বিশ্বাসের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন কুতুবপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য জাহাঙ্গীর আলম, ৭,৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী সদস্য আরজুদা বেগম খুকি, বাসদ নেতা এসএম কাদির, ফতুল্লা থানা যুবলীগের সদস্য মেহেদী হাসান।

RSS
Follow by Email