বুধবার, জুন ১৯, ২০২৪
Led02জেলাজুড়েরাজনীতিসিদ্ধিরগঞ্জ

কাউন্সিলর আফজালের বড় ভাইয়ের জানাজা সম্পন্ন

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও এনসিসি ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফজাল হোসেনের বড় ভাই মোহাম্মদ হোসেনের জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৩ মে) বাদ আছর নবীগঞ্জ ঈদগাহ ময়দানে মরহুমের ভাতিজা নাফিজ জানাজার নামাজ পরিচালনা করেন।

জানাজায় বন্দর উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সানাউল্লাহ সানু, বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসানউদ্দিন আহমেদ, ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন মহানগর আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির মৃধাসহ রাজনৈতিক ও ব্যবসায়ি অঙ্গনের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন বলেন, আজ জানাজায় রাজনৈতিক অঙ্গনের ও ব্যবসায়িদের মধ্যে অনেক গণ্যমান্য ব্যক্তিরা জানাজায় অংশ নিয়েছেন। মরহুম মোহাম্মদ হোসেন ভাই ভালো মানুষ ছিলেন বলেই সবাই উনার জানাজায় এসেছেন। আল্লাহ উনাকে জান্নাত নসিব করুক সেই কামনা করি।

জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সানাউল্লাহ সানু বলেন, মোহাম্মদ হোসেন ছিলেন পরিবারের ২য় সন্তান। এখনকার সময়ে ৫ ভাই একসাথে মিলে বসবাস করাটা বিরল দৃশ্য। পরিবার ভালো না হলে, পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ভালো সম্পর্ক না হলে এমনটি সম্ভব হয় না। মরহুমের ৩ টি কন্যা সন্তান আছে। আল্লাহ তাদের ধৈর্য দান করুক এ কামনা করি।

বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসানউদ্দিন আহমেদ বলেন, মরহুমার মৃত্যুর খবর আমাকে যতজন দিয়েছেন সবাই একই কথা বার বার বলেছেন- উনি ছিলেন অত্যন্ত ভালো মানুষ এবং দানশীল। একজন মানুষের জন্য এটা অনেক বড় প্রাপ্তি। মরহুম মোহাম্মদ হোসেন ভাই জান্নাতে যেতে পারেন আমরা সেই দোয়া করবো।

ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন বলেন, মরহুমার জন্য আমরা সবাই দোয়া করবো। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন উনাকে যেন জান্নাতের উচ্চ মাকাম দান করেন। মরহুমার পরিবারের স্বজনরা ধৈর্যশীল হয়ে এ কষ্টের সময় পার করতে পারেন এবং জীবনে এগিয়ে যেতে পারেন সেই দোয়া করবো।

মহানগর আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির মৃধা বলেন, মোহাম্মদ হোসেন অত্যন্ত ভালো মানুষ ছিলেন। আপনারা সকলে তার জন্য দোয়া করবেন। আল্লাহ তাকে জান্নাত নসিব করুক এ কামনা করি।

এর আগে, বৃহস্পতিবার (২৩ মে) সকালে বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়লে মোহাম্মদ হোসেনকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে সাড়ে ৯টার দিকে তিনি তার শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তিনি তিন মেয়ে সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

RSS
Follow by Email