শনিবার, জুলাই ১৩, ২০২৪
Led03জেলাজুড়েবন্দররাজনীতিশিক্ষা

কথা রাখলেন সেলিম ওসমান, গরু বিক্রির টাকায় উদ্বোধন হলো এতিমখানা

# যেসব বাচ্চার মা বাবা নেই, সুশিক্ষা দিয়ে সুপুরুষ বানাবো
# মানুষকে মর্ডাণ হতে হবে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের কৃষিফার্মে উৎপাদিত গরু বিক্রি থেকে উপার্জিত ৪ কোটি টাকার অনুদান দিয়ে, নবীগঞ্জ ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসার এতিম খানার চারতলা বিশিষ্ট ভবনের উদ্বোধন, নাসিম ওসমান গোল্ড এওয়ার্ড ক্বিরাত প্রতিযোগিতার পুরুস্কার বিতরন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) সকাল ১০ টায় নবীগঞ্জ এলাকায় মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে পুরুস্কার বিতরন ও ভবনের উদ্বোধন করেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম সেলিম ওসমান।

নবীগঞ্জ ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসার গভর্নিং বডির সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফজাল হোসেনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম.এ রশিদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এম.এ মুহাইমিন আল জিহান, নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি ও সাবের উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সানাউল্লাহ সানু, বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন আহম্মেদ।

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম ওসমান বলেন, মানুষকে মর্ডাণ হতে হবে। আস্তে আস্তে মর্ডানের দিকে যেতে হবে। আবার অতি মর্ডান হওয়া যাবে না। করোনার পরে অনেক মা-বোন আল্লাহকে ভয় পেয়ে পর্দা করছে, ধর্ম পালন করছেন। আবার কতগুলো জালেম আছে, এই সুযোগে তারা টাকা পয়সা বানিয়ে নিয়েছে। আমাদের এই নতুন ভবনের উদ্বোধনে প্রায় ৩ হাজার মানুষ আছে। আপনারা সবাই যদি সপ্তাহে ২৫ টাকা করে দেন এতিম বাচ্চাদের তাহলে মাসে কত টাকা আসে। এখানে ৬০ থেকে ৮০ জন বাচ্চার দায়িত্ব নেওয়া যাবে। এই বাচ্চাগুলো একদিন দেশের দায়িত্ব নিতে পারবে। আমার বানানো একটি এতিমখানায় ইমাম সাহেব একজন বাচ্চার বাবা দুই বিয়ে করছেন তাই ওর বাবার থেকে মাসে ১৫০০ টাকা করে নিয়ে তাকে এতিমখানায় রেখেছেন। এমন ১৬টা বাচ্চা পাইছি। এমন দুর্নীতি যেন না হয়। এতিমখানাটির ফার্নিচারের জন্য ৩৮ লাখ টাকা দিছেন। ব্যবসায়ীরা প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এটার জন্য সহযোগীতা করবেন। অভিভাবকদের প্রতি অনুরোধ আপনারা এতিমখানা মাসে অন্তত ১০০টাকা দান করেন দৈনিক ৩ টাকা অথবা সপ্তাহে ২৫ টাকা দান করেন দেখবেন কিভাবে এতিমখানাটি সুন্দর চলে। আপনাদেরও শান্তি লাগবে।

তিনি বলেন, নবীগঞ্জে একটা ঘাট আছে। মাঝে মাঝে এটার ইজারা এ নিতে চায় ওস নিতে চায়। নবীগঞ্জ খেয়াঘাটের ইজারাদার প্রতি মাসে এই এতিমখানায় ১ লাখ টাকা করে দান করবেন জুলাই মাস থেকে। আর এলাকার লোকজনদের কাছে অনুরোধ ঘাটে গিয়ে মাঝে মাঝে ডিস্ট্রাব করা হয়। কেউ যাতে ডিস্ট্রাব না করে। ইজারাদাররা তাদের প্রফিট থেকে টাকা দিবে, প্রফিট না হলেও আমি বলে দিবো তারা ১ লাখ টাকা করে দিবে ইনশাআল্লাহ। যেসব বাচ্চার মা বাবা নেই তাদেরকে এখানে দিবেন, সে রংপুর দিনাজপুর যেখানেই হোক। আমরা তাদেরকে সুশিক্ষা দিয়ে সুপুরুষ বানাবো। এই এতিম খানায় আজকে যারা জায়গা দান করেছেন তারা প্রকৃত সম্মানীত ব্যাক্তি। কিসের এমপি আর কিসের উপজেলার চেয়ারম্যান। যারা এতোগুলা মানুষের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন তারাই সম্মানীত ব্যাক্তি। ঈদগাহটির জন্য একটি টিনসেটের ছাউনি করে দিতে আপনারা আমাকে বাজেট দিবেন, সরকারি বা ব্যক্তিগত ভাবে ব্যবসায়ীদের সহযোগীতা নিয়ে এটা করে দিবো। মহিলাদের জন্য নামাজের স্থান করবো। যেখানে অন্তত ৫শ’ মহিলা নামাজ পড়তে পারে।

তিনি আরও বলেন, ভুল করলে আল্লাহ তাদের বিচার করবে, পাপ করলে সেটা ধরা পড়বেই। পাপ আর দোয়া এই দুইটা জিনিস কখনো কেই লুকায় রাখতে পারে না। মৃত্যুর আগে হলেও সেটা প্রকাশ পাবে। তাই আমরা আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম নিয়ে চিন্তা করি। আমি যেনো আপনাদের মন দিয়ে ভালোবাসতে পারি। আমার মধ্যে যাতে কোন গলদ না আসে। আজেক ১০টা বছর যাবত আপনাদের গোলামি করছি। আমি যেনো আপনাদের গোলাম হিসেবে থাকতে পারি এমপি যাতে না হই। আমার জন্য দোয়া করবেন আমার নিয়ত যেনো ঠিক রাখতে পারি।

বন্দরের উন্নয়ন নিয়ে সেলিম ওসমান বলেন, বন্দরে একটু উশৃঙ্খলতা চলেছে উপজেলা নির্বাচন নিয়ে। তারপর একটা উপ নির্বাচন আছে চেয়ারম্যানের। অনেকের মনে অনেক দুঃখ, কষ্ট আছে। এগুলা আমাদের ভুলে যেতে হবে। যে অন্যায় করেছে তাদের সবার আগে ভুলে যেতে হবে। ইনশআল্লাহ আমরা বন্দরের এক চেটিয়া উন্নয়ন আমরা দেখতে পারবো। নবীগঞ্জ ব্রিজ হবে, শান্তির চর হবে, অনেক জায়গা দখল করে ফেলেছে তারপরও হবে। আমাদের লাঙ্গলবন্দ সেটাও সম্পন্ন হবে। আপনাদের কাছে অনুরোধ ‘আপনারা আমার জন্য না আমাদের জন্য কাজ করবেন, আমার পরিবারের জন্য না নবীগঞ্জের পরিবারের জন্য কাজ করবেন’।

এছাড়া অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত, বন্দর থানার ইন্সপেক্টর (অফিসার ইনচার্জ) গোলাম মোস্তফা, ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবুল কাউসার আশা।

RSS
Follow by Email