বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০২৪
Led04রাজনীতি

এবার গাজীর ঘাম ঝরবে!

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে টানা ৩ বার সংসদ সদস্য হয়েছেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের জন্যও একই আসন থেকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে চতুর্থবারের জন্য জয়ী হতে ফের দাঁড়িয়েছেন। কিন্তু আগের তুলনায় এবার রাজনীতির ময়দানে বেশ ঘাম ঝরাবেন তিনি। নির্বাচনে বিরোধীদল বিএনপির অনুপস্থিতিতে এইবারের রাজনীতিক প্রেক্ষাপট বেশ ভিন্ন ধরণের। সেই সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন তৃণমূল বিএনপির মহাসচিব তৈমুর আলম খন্দকার, রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি শাহজাহান ভূঁইয়ার মতো হেভিওয়েট প্রার্থী।

এক দিকে যেমন থাকছে প্রতিদ্বন্দ্বিতার চাপ, আরেক দিক থাকছে নিজ সমর্থকদের অপকর্মের কারণে রাজনীতিক জীবনে দাগ। বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, জমি দখলসহ নানা অভিযোগ প্রকাশিত হয়েছে মিডিয়ার মাধ্যমে। তার উপর দীর্ঘ সময় পদে বহাল থাকার পরও অপরাধ ঠেকাতে অপারগতার জন্যে  নাখোশ রূপগঞ্জবাসী-বলে গুঞ্জন রয়েছে।

এদিকে, রূপগঞ্জের বাসিন্দা তৃণমূল বিএনপির মহাসচিব তৈমুর আলম খন্দকার। কিছু রাজনীতিবিদ বলছেন, এবার মজলুম নেতা তৈমুরের পক্ষেই ভোট দিতে পারে রূপগঞ্জবাসী। যার কারণে রূপগঞ্জে বইতে পারে কোমল হাওয়া। অন্যদিকে, দল থেকে সিদ্ধান্ত দেবার পরও স্বতন্ত্র হিসেবে দাঁড়িয়েছেন রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি শাহজাহান ভূঁইয়া। কথা রটেছে- সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে বদ্ধপরিকর তিনি। নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে এই হেভিওয়েট প্রার্থীরা ছাড়াও রয়েছেন আরও ৭ জন। এরা হলেন, জী গোলাম মর্তুজা (স্বতন্ত্র), মো. হাবিবুর রহমান (স্বতন্ত্র), মো. জোবায়ের আলম (জাকের পার্টি), মো. সাইফুল ইসলাম ( জাতীয় পার্টি), মো. জয়নাল আবেদীন চৌধুরী (স্বতন্ত্র), একেএম শহিদুল ইসলাম (ইসলামি ফ্রন্ট বাংলাদেশ), আফাজ উদ্দিন মোল্লা (বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি)। যার দরুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচনী ময়দানে চাপে থাকবেন গোলাম দস্তগীর গাজী। তবে কে এবার মাঠে আসবে ও আসনের জন্য প্রতিযোগীতা করবে তা জানা যাবে ১৮ ডিসেম্বর, যেদিন প্রতীক ঘোষণা করা হবে।

প্রার্থীদের জমাকৃত মনোনয়নপত্র বাছাই কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। চলবে ৪ ডিসেম্বর (সোমবার) পর্যন্ত। বাছাই পর্ব শেষ হলে মনোনয়ন আপিল ও নিষ্পত্তি ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত নির্ধারিত হয়েছে। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে ১৮ ডিসেম্বর। অর্থাৎ মাঠে কারা নির্বাচনী প্রচারণা চালাবেন তা জানা যাবে ১৮ ডিসেম্বর। নির্বাচনী প্রচারণার অনুমতি আছে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত।

গতবারের চেয়ে এবার নারায়ণগঞ্জ-১ আসন তথা রূপগঞ্জে ভোটার সংখ্যা বেড়েছে। বিগত নির্বাচনে এই আসনে ভোটার সংখ্যা ছিলো ৩ লাখ ৪৯ হাজার ৭৯০জন ভোটার। এবার ভোটার সংখ্যা বেড়েছে ৩৬ হাজার ২২২ জন হয়েছে। এবার এই আসনে মোট ভোটার সংখ্যা রয়েছে ৩ লাখ ৮৬ হাজার ১২জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা আছে ১ লাখ ৯৭ হাজার ১১৯জন ও নারী ভোটার সংখ্যা আছে ১ লাখ ৮৮ হাজার ৮৯১জন। এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার আছে ২জন। এছাড়া নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে এবার ভোটকেন্দ্র রয়েছে ১২৮ টি ও স্থায়ী ভোট কক্ষ আছে ৭৫৬ ও অস্থায়ী ৫৫টিসহ মোট সংখ্যা ৮১১ টি।

RSS
Follow by Email