সোমবার, মে ২০, ২০২৪
Led01জেলাজুড়েরাজনীতিসদর

এতিমদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগ করে নিতে ‘ঈদ উপহার’ দিলেন খোকা

#সব সময় এতিম সন্তানদের খাওয়াই তারপর আমার সন্তানকে খাওয়াই: সাবেক এমপি খোকা

লাইভ নারায়ণগঞ্জ:প্রতিবছর মুসলিমদের ঘরে ঘরে ঈদ আনন্দ আসে আবার চলে যায়। বিদায় রমজানের পদধ্বনির সাথে সাথে সর্বত্র আনন্দ কোলাহলের যে ঢেউ শুরু হয়ে যায় ঈদের পরেও তার রেশ থেমে থাকেনা। রহমত, মাগফিরাত ও মুক্তির ঐশী বার্তা নিয়ে যে রমজানের আগমন, সে রমজানকে ভিন্নভাবে স্বাগত জানান জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য, ঢাকা বিভাগীয় অতিরিক্ত মহাসচিব, নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা।

রমজানে অসহায়, দরিদ্র ও পথচারী রোজাদারদের সাথে বিশাল আয়োজন একসাথে ইফতার করেন। একসাথে নিজের হাতে বানানো ইফতার খাওয়ান তাদের। অসহায় ও দুস্থ লোকের সেবায় যুক্ত করেন নিজের কর্মী বাহিনীকে। এরই ধারাবাহিকতায়‘আল মদিনা আল নূর বক্সমিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানায়, এতিম বাচ্চাদের ঈদ উপহার বিতরণ করেন।

শনিবার (৬ এপ্রিল) আমলাপাড়ায় নিজ বাস ভবনে ওই ঈদ উপহার বিতরণ করেন। এ সময় এতিম বাচ্চাদের সাথে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

সাবেক সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা বলেন, সবাইকে আমার এই এতিম সন্তানদের পক্ষ থেকে ঈদের শুভেচ্ছ। আল্লাহপাক সময় এতিম-অসহায়দের পাশে থাকতে বলছে। অনেক ছোট বেলায় আমি আমার বাবা-মাকে হারিয়েছি। আমি যখন ক্লাস সেভেন এ পড়ি, তখন আমি আমার পিতাকে হারিয়েছি। যখন ৮ম শ্রেনীতে পড়ি তখন আম্মাও আমাদের ছেড়ে এই পৃথিবী ছেড়ে চলে গিয়েছেন। এতিমের যে অনুভূতিটা এটা আমার সব সময় কাজে লাগে। আল্লাহ আমাকে যতটুকু সময় দিয়েছে আমি ওদের পাশে থাকি নিজেকে একটা এতিম ভেবে। আমি সব সময় এতিম সন্তানদের খাওয়াই তারপর আমার সন্তানদের খাওয়াই। প্রতিবার ঈদেই আমি ক্ষুদ্র উপহার দিয়ে আমি এতিমদের পাশে থাকার চেষ্টা করি ও আল্লাহকে রাজি খুশি করার চেষ্টা করি।

তিনি আরও বলেন, আমার পক্ষ থেকে নারায়ণগঞ্জসহ দেশ বাসীর প্রতি ঈদের অগ্রিম শুভেচ্ছা। এছাড়া মাঠে কাজ করা সংবাদকর্মী ভাইদের শুভেচ্ছা। বিশেষ শুভেচ্ছা রইলো আমার সোনারগাঁও বাসীর জন্য। যারা আমাকে বিগত ১০টি বছর আল্লাহর বান্দাদের সেবা করার সুযোগ করে দিয়েছে। আমি সব সময় নিজের চিন্তা না করে নিজের অর্থ সম্পদ বিক্রি করে, সোনারগাঁওবাসীর পাশে থাকার চেষ্টা করেছি। আলহামদুলিল্লাহ সোনারগাঁওবাসী আমাকে যথেষ্ট ভালোবেসেছেন। অনেকে আমাকে ভোট দিয়েছে, কেউ কেউ ভোট দিতে পারে নাই। আমার ভোটের রেজাল্টের দিন আমি বাসায় এসে দুই রাকাত নামাজ পড়েছি সোনারগাঁওবাসীর জন্য। কারণ তারা আমাকে অনেক ভালোবেসেছে। এছাড়া আমার সাথে কাজ করেছে আমার ত্যাগি নেতাদের আমি ধন্যবাদ জানাই। সবাইকে অগ্রিম ঈদের শুভেচ্ছা।

RSS
Follow by Email