বৃহস্পতিবার, মে ৩০, ২০২৪
Led02জেলাজুড়েপরিবহনবিশেষ প্রতিবেদনসদর

ঈদের ছুটিতে না.গঞ্জ ছাড়বে লাখো মানুষ

# যানজট নিয়ন্ত্রনে মোবাইল টিম কাজ করবে: টিআই শরফুদ্দিন
# নদীপথে যাত্রীদের নিরাপত্তায় থাকছে ভিজিল্যান্স টিম: বিআইডব্লিউটিএ

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নাড়ির টানে লাখো মানুষ বাড়ি ফিরবেন। জীবিকার তাগিদে বিভিন্ন জেলা থেকে আসা এ মানুষদের মধ্যে কেউ বাড়ি ফিরবেন সড়কপথে, কেউ নদীপথে আবার কেউবা রেলপথে। তবে ঘরমুখো যাত্রীদের বেশি চাপ থাকছে সড়কপথে। ইতিমধ্যেই বাড়ি ফিরতে সরকারী-বেসরকারী পরিবহনের আগাম টিকিট কাটছেন যাত্রীরা। আগামী ২৭শে রমজান থেকেই বেশির ভাগ মানুষ বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিবেন।

সড়কপথে যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে বিআরটিসি স্পেশাল সার্ভিস চালু করেছে। নারায়ণগঞ্জ থেকে সংস্থাটি দেশের ৯টি জেলায় ৫৪টি বাস প্রস্তুত রেখেছে। ৭ এপ্রিল থেকে বাস ছাড়া শুরু করবে। বিআরটিসি নারায়ণগঞ্জ বাস ডিপোর প্রধান, ডিজিএম (পিএনএস) মো. মনিরুজ্জামান বাবু জানান, নারায়ণগঞ্জ থেকে ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের জন্য ৯ টি জেলায় ৫৪ টি বাস প্রস্তুত করা হয়েছে। এরইমধ্যে ২৫ টি বাসের টিকিট বিক্রি হয়েছে। আগামী ৭ এপ্রিল থেকে ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত এ বাসগুলো চলবে। এছাড়াও গার্মেন্টস শ্রমিকদের জন্য আলাদা বাস রাখা হয়েছে, যা রির্সাভ করে তারা গন্তব্যে যেতে পারবেন।

ঈদের ছুটিতে বাড়ির যাত্রা সহজ করতে প্রস্তুতি নিয়েছে হাইওয়ে পুলিশ। এনিয়ে কাঁচপুর হাইওয়ে থানার শিমরাইল ক্যাম্পের টিআই একেএম শরফুদ্দিন জানান, ঈদের ছুটিতে ঘরমুখো যাত্রীদের বেশ চাপ পড়বে। কিন্তু যানজট যথাসম্ভব কমিয়ে আনতে আমাদের যথেষ্ঠ প্রস্তুতি রয়েছে। আমাদের মোবাইল টিম মহাসড়কে সবসময় কাজ করবে। এছাড়াও যে সকল পয়েন্টে যানজট বাধার আশঙ্কা থাকবে সেখানে আমাদের টহল টিম থাকবে। আশা করি, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যাত্রীরা যানজটে পড়ে ভোগান্তির শিকার হবেন না।

এদিকে, নারায়ণগঞ্জ টার্মিনাল ঘাট থেকে ৫টি রুটে যাত্রীরা যাচ্ছেন। নারায়ণগঞ্জ লঞ্চ মালিক সমিতির সুপারভাইজার শেখ মো. জহির খান জানান, টার্মিনাল থেকে চাঁদপুর রুটে ১৭ টি, মতলব রুটে ৫ টি, রামচন্দ্রপুর রুটে ২ টি, মুন্সিগঞ্জ রুটে ৮ টি, সুরেশ্বর রুটে ২ টি লঞ্চ সচল রয়েছে। চাঁদপুর রুটে প্রতি ৫৫ মিনিট পর, মতলব ও মুন্সিগঞ্জ রুটে প্রতি ৩০ মিনিট পর টার্মিনাল থেকে লঞ্চ ছাড়ে। এছাড়া রামচন্দ্রপুর রুটে সকাল ৮ টায় ও বিকাল ৫টায় লঞ্চ ছাড়ে। তিনি আরও জানান, গতবারের তুলনায় এবার নদীপথে যাত্রীদের চাপ কম হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। কেননা আগের তুলনায় সড়পথে চলাচল সহজ হয়েছে। ইতিমধ্যেই ঈদের অল্প করে যাত্রীরা বাড়ি ফিরছেন

নদীপথে ঘরমুখো যাত্রীদের নিরাপত্তার জন্য ভিজিল্যান্স টিম গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ। সংস্থাটির নারায়ণগঞ্জ শাখার উপ পরিচালক (ট্রাফিক) বাবু লাল বৈদ্য জানান, যাত্রীদের নিরাপত্তার স্বার্থে ও সার্বিক ব্যবস্থাপনার জন্য একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। এছাড়াও একজন ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে একটি ভিজিল্যান্স টিম গঠন করা হয়েছে।

ঈদ আসলে রেলপথে আন্ত:নগর ট্রেনে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় জমে। সেই সাথে নারায়ণগঞ্জেও এর প্রভাব পড়ে। নারায়ণগঞ্জ স্টেশন মাস্টার কামরুল ইসলাম খান জানান, ঈদ উপলক্ষে সবসময় যাত্রীদের চাপ সৃষ্টি হয়। এবারও ২৫ রোজার পর থেকে যাত্রীদের চাপ বাড়বে।

RSS
Follow by Email