শনিবার, জুলাই ২০, ২০২৪
Led02রাজনীতি

আবারও নির্বাচন করার ঘোষণা সেলিম ওসমানের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আবারও নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান।

তাঁর দাবি, যতক্ষন পর্যন্ত বন্দরের একজন মানুষ তাকে চাইবে ততক্ষণ পর্যন্ত তিনি নির্বাচন করবেন।

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘোষণা দেন।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার একাংশ ও বন্দর উপজেলা নিয়ে নারায়ণগঞ্জ-৫ গঠিত। আসনটিতে তার বাবা একেএম সামসুজ্জোহা ও বড় ভাই নাসিম ওসমান সংসদ সদস্য ছিলেন। তাদের মৃত্যুর পর ২০১৪ সালে উপ-নির্বাচনে এমপি হয়েছেন। এরপর ২০১৮ সালে পুনঃরায় নির্বাচিত হয়েছেন।

গত কয়েক দিন যাবতই নারায়ণগঞ্জের বেশি কয়েকটি পত্রিকায় সেলিম ওসমান অসুস্থ্য থাকার অজুহাতে নির্বাচন থেকে সড়ে দাঁড়ানোর কথা বলা হচ্ছে।

বিষয়টির তীব্র সমালোচনা করে সেলিম ওসমান বলেন, যদি আমাকে বন্দরের জনগণ চায়, আগামী সংসদ নির্বাচনে আমি থাকবো। যতক্ষন বন্দরের একজন মানুষও আমাকে চাবে, ততক্ষণ আমি নির্বাচন করবো। এতে যদি আমার মান সম্মান চলেও যায়, চলে যাক।

সেলিম ওসমান বলেন, গত ৭ বছরে আমার নির্বাচনী এলাকার প্রতিটি ইউনিয়নে একটি করে স্কুল নির্মাণ করতে পেড়েছি। প্রতিটি স্কুল ভবনে লিফট ব্যবস্থা, টয়লেট নির্মাণ, বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। যাতে একটি শিশুও যেন পড়তে এসে সমস্যায় না থাকে।

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বলেন, হারাম খাবো না, হারাম খেতেও দিবো না। আমার পাশে চেয়ারম্যান ও কাউন্সিলররা আছে। তাদেরকে একটি কথাই বলেছি, যারা জনগণের গোলামী করতে পারবে, তারাই আমার পাশে থাকবে, যারা পারবে না, তারা থাকবে না। আমি গর্বের সাথে বলতে পারি, আমার যদি কোন সন্তান থাকতো। তাহলে হয়তো তাদের মতো বাধ্য সন্তান হতো না।

তিনি বলেন, বন্দরে যে উন্নয়ন হয়েছে। সেটার ৪ গুন হতো, যদি না করোনা ভাইরাস ও ইউক্রেন রাশিয়ার যুদ্ধ সৃষ্টি না হতো। শুধু যুদ্ধটা থামতে দেন, ডলারের মূল্য কমতে দেন। দেখেন বন্দর কোথা থেকে কোথায় নিয়ে যাই।

এ সময় তিনি উন্নয়নের স্বার্থে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দেশের প্রয়োজন বলে দাবি করেন। পাশাপাশি পুনঃরায় প্রধানমন্ত্রী বানানোর দাবি জানান।

ঢাকেশ্বরী মিলস্ স্কুল এন্ড কলেজের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ রশীদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান, প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী নাসরিন ওসমান।

বিদ্যালয়টির অধ্যক্ষ আনোয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক রোকেয়া সুলতানা, বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কুদরত এ খুদা, বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিন প্রধান।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বন্দর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সানাউল্লাহ সানু, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন প্রধান, বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন আহমেদ, ধামঘর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন প্রমুখ।

 

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

বন্দরের একজন মানুষও যদি চায়, আমি নির্বাচন করবো: সেলিম ওসমান

 

RSS
Follow by Email