বুধবার, জুলাই ১৭, ২০২৪
Led03আড়াইহাজার

আড়াইহাজারে মাকে আটকে মেয়েকে গণধর্ষণ মামলায় একজন গ্রেফতার

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আড়াইহাজার উপজেলায় মাকে আটকে রেখে মায়ের সামনে মেয়েকে গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত আসামী সুজন (২৪)কে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। শনিবার (৪ নভেম্বর) রূপগঞ্জ থানাধীন কাজীপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাব-১১ এর মিডিয়া অফিসার (এএসপি) সনদ বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

র‌্যাব জানায়, আড়াইহাজার থানার টেকপাড়া গ্রামের সেলিনা তার মেয়ে শান্তনার (২৫) সাথে একই থানার প্রবাসী রাসেল (৩২) এর সাথে বিবাহ হয়। ভিকটিম শান্তনার স্বামী প্রবাসে থাকায় তিনি সন্তান নিয়ে বাবার বাড়ীতে অবস্থান করে আসছিল। ভিকটিম প্রায়ই বিভিন্ন কাজে এলাকার বাজারে আসা-যাওয়ার পথে মামলার আসামীগণ তাকে উত্যক্তসহ বিভিন্ন কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে সাড়া না দেয়ায় আসামীগণ ঘটনার তারিখ ও সময়ে ভিকটিমের মা বাইরে গেলে তারা বাসায় প্রবেশ করে। এরপর দুজন ভিকটিমের মাকে ধরে মারধর করে এবং বসত ঘরে নিয়ে মুখ বেধে রুমে আটকে রাখে। এতে ভিকটিম প্রতিবাদ করলে তাকে আসামীগণ মারধর করে এবং তাদের সাথে থাকা ধারালো চাকু দ্বারা হত্যার ভয়ভীতি দেখিয়ে আশিক, সুজন, হিমেল ও এনামুল ভিকটিমকে জোরপূর্বক কয়েকদফা ধর্ষণ করে।একই সাথে আশিক, ছরহাব ও সুজন তাদের হাতে থাকা তাদের মোবাইলে ভিকটিমের নগ্ন ও আপত্তিকর ছবি সহ ভিডিও ধারণ করে। উক্ত বিষয়ে কারো কাছে নালিশ অথবা থানা পুলিশকে জানালে বিবাদীগণ উক্ত ছবি এবং ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার হুমকি প্রদান করে।

পরবর্তীতে ভিকটিম বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলে তাৎক্ষনিক তাকে উদ্ধার করে আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য রেফার্ড করে। এই ঘটনায় ধর্ষিতার মা সেলিনা বাদী হয়ে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে আড়াইহাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা রুজুর পর থেকে আসামী বিবাদীগণ আত্মগোপনে চলে যায়।

গ্রেফতারকৃত আসামী’কে পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রমের জন্য আড়াইহাজার থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

RSS
Follow by Email