Mon, 28 May, 2018
 
logo
 

শিশু হৃদয় হত্যা: ‘মা’ শেফালীর সর্ম্পক ছিলো একাধীক পুরুষের সাথে


স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: একাধীক পুরুষের সাথে সর্ম্পক ছিলো আড়াইহাজারে শিশু হৃদয়কে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত শেফালী আক্তারের সাথে। তাই এ ঘটনায় আরো কেউ জড়িত রয়েছে কী না, তা খতিয়ে দেখছে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ।

সোমবার (২৩ এপ্রিল) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোহাম্মদ মতিয়ার রহমান।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আড়াইহাজারে শিশু হৃদয়কে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় রোববার ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার মেরাকোনা গ্রামে অভিযান চালিয়ে রাশেদুল ইসলাম মোমেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শিশু হৃদয়ের মায়ের কথিত প্রেমিক এই রাশেদুল ইসলাম মোমেনকে গ্রেপ্তার করেছে আড়াইহাজার থানা পুলিশ ও ডিবি পুলিশ। এর আগে শেফালী আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন বলেও তিনি জানান।
প্রসঙ্গত, গত ১২ এপ্রিল গভীর রাতে আড়াইহাজার উপজেলার উচিৎপুরা ইউনিয়নের বাড়ৈপাড়ায় বিছানায় আগুন দিয়ে ঘুমন্ত হৃদয়কে (৯) পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। ওই সময় দগ্ধ হয় হৃদয়ের ছোট ভাই জিহাদ। বর্তমানে জিহাদ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছে। হৃদয়ের বাবা ওই গ্রামের বাহরাইন প্রবাসী আনোয়ার হোসেন ।
এই ঘটনায় ১৩ এপ্রিল হৃদয়ের দাদা বিল্লাল হোসেন বাদী হয়ে শেফালী বেগম ও রাশেদুল ইসলাম মোমেনকে আসামি করে আড়াইহাজার থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।
মামলায় অভিযোগ করা হয়, তার ছেলের বউ শেফালীর সঙ্গে মোমেনের পরকীয়া প্রেম চলছিল। এই ঘটনায় এলাকায় কয়েকদফা বিচার সালিশও হয়। তার ছেলে আনোয়ার হোসেন শেফালী বেগমকে তালাকও দেন। পরে শেফালী নিজের ভুল স্বীকার করে ছেলে আনোয়ার হোসেনের হাতে-পায়ে ধরে পুনরায় সংসার শুরু করেন।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম