Wed, 20 Jun, 2018
 
logo
 

ঘরের ভিতরে ঘাতক

গোলাম রাব্বি, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সিদ্ধিরগঞ্জের আরমিনার বান্ধবী সাবিনা ইয়াছমিন। সেই সূত্রেই স্ত্রী সাবিনার সাথে আরমিনাদের বাড়িতে আসা যাওয়া করতো সোহাগ। কিন্তু কেউ কী জানতো এই সোহাগই একদিন  আরমিনাদের পারিবারে ঘাতক হয়ে উঠবে। ১০ বছর বয়সী ছোট বোন রোকসানাকে নিসৃংশ ভাবে হত্যা করবে।

রোকসানাতো দুলাভাই বলে ডাকত সোহাগকে। অথচ এমন ঘটনা ঘটানোর আগে বিন্দুমাত্র দয়া হয়নি এই কথিত দুলাভাইয়ের।

পুলিশ জানিয়েছে, ২৩ জানুয়ারি ঘটনার দিন রোকাসানাকে নিজ বাসা থেকে কৌশলে ডেকে নিয়ে যায় সোহাগ। পরদিন তার পরিবারের কাছে মোবাইলে ফোনে মুক্তিপণ হিসেবে ছয় হাজার টাকা দাবি করে। পরে ২৪ জানুয়ারি তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সোনারগাঁয়ের কাইারটেক চর এলাকায় নিয়ে ব্রিজের নিচে ফেলে আসে।

শুধু রোকসানা নয়, এধরণের হত্যাকাণ্ডে প্রতিনিয়তই বেড়ে চলেছে। জানুয়ারি মাসে পারিবারিক কলহ থেকে হত্যার ঘটনা ঘটেছে ৫টি। এছাড়া আত্মহত্যা রয়েছে ২টি।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, জানুয়ারি মাসে ২২ ঘটনায় লাশ হয়েছে ২৫ জন। এর মাঝে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহত হয়েছে ১৭ জন, দূর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের। আর আত্মহত্যা করেছে ২ জন।

এই মাসে সবচেয়ে বেশি লাশ হয়েছে ফতুল্লায়, ৬ জন। তারপরেই রয়েছে সিদ্ধিরগঞ্জ ও রূপগঞ্জ, ৫জন করে মৃত্যু হয়েছে এই দুই থানায়। আর সোনারগাঁয়ে লাশ হয়েছে ৩ জন, বন্দর ও আড়াইহাজারে ২ জন করে এবং সদর থানায় মৃত্যু হয়েছে ১ জনের।  

এই ২৪টি লাশের মাঝে নারী ও শিশুর লাশ রয়েছে ৯টি। এর মাঝে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন ৬ জন ও আত্মহত্যা করেছে ২ জন এবং দূর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ১ জনের।  এছাড়া হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে ১০ জন পুরুষও। বাদ বাকি ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে দূর্ঘটনায়।

জানুয়ারি মাসে সবচাইতে আলোচিত হত্যাকাণ্ড গুলোর মাঝে ছিলো ৬ হাজার টাকার জন্য শিশুকে অপহরণের পর হত্যা, বিভিন্ন উপজেলায় গণপিটুনীতে ৪ জনের মৃত্যু, ইভটিজিংয়ে বাঁধা দেয়ায় ভাইকে পিটিয়ে হত্যা ও সিদ্ধিরগঞ্জে নানী- নাতি খুনের ঘটনাটি।

সমাজবিজ্ঞান বিভাগের এক অধ্যাপক বলেন, এসব ঘটনা বেড়ে যাচ্ছে, কারণ দেশে আইনের যথাযথ প্রয়োগ নেই। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল নই বলে যে যার মতো কাজ করছি। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সীমাবদ্ধতা এবং রাজনৈতিক হস্তক্ষেপও একটা বড় সমস্যা। শাস্তি না হওয়ায় মানুষ অপরাধ করতে ভয় পায় না।

তিনি আরও বলেন, অপরাধ করার আগে ভাবে আমার কিছু হবে না। আমার তো লোকজন আছে। কাজেই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঠিক ভূমিকা জরুরি। একই সঙ্গে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ বন্ধ করতে হবে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম