Mon, 24 Apr, 2017
 
logo
 

সংশ্লিষ্টদের অবহেলায় থমকে আছে বিসিক’র অগ্রগতি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জে অবস্থানগত দিক দিয়ে সুবিধাজনক জায়গায় বিসিক শিল্প নগরী গড়ে উঠলেও অবকাঠামোগত সমস্যা থামিয়ে দিচ্ছে এ শিল্পাঞ্চলের অগ্রগতি।

Read more...

ধেয়ে আসছে বর্ষা, দু:শ্চিন্তায় ডিএনডি’র ২০ লাখ মানুষ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : ডিএনডির পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়নে গত ৯ মাসেও কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নেয়নি কর্তৃপক্ষ। এতে গত বছরের মতো এবারও বর্ষা মৌসুমে ডিএনডি পানিতে তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

Read more...

বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে শীতলক্ষ্যা সেতুর নির্মাণ কাজ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আগামী কাল ৮ মার্চ থেকে ৩য় শীতলক্ষ্যা সেতুর নির্মান কাজ শুরু হতে যাচ্ছে। এ সেতুর নির্মাণের মধ্য দিয়ে নারায়ণগঞ্জবাসীর দীর্ঘ দিনের প্রত্যাশার পূরণ হবে।

Read more...

আসামীদের পক্ষে বন্দর ওসি’র অবস্থান, অসহায় নির্যাতনের শিকার তরুণী

লাইভ নারায়ণগঞ্জ : উত্যক্তের বিচার চাইতে গিয়ে উল্টো নির্যাতনের শিকার হয় তরুণী গৃহবধূ কামরুন্নেছা (১৯)। সন্ত্রাসী ডিশ বশির বাহিনী এ তরুণীকে পিটিয়ে তার গর্ভে থাকা তিন মাসের সন্তানকেও হত্যা করে।

Read more...

না.গঞ্জে পুলিশ তদন্ত ছাড়াই মিলছে পাসপোর্ট, জঙ্গিরা কি এ সুবিধে নিচ্ছে না?

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : চায়ের দোকান থেকে শুরু করে মোবাইল, স্টুডিও, হোটেল, সেলুন এবং ফটোস্ট্যাটের দোকান এসব জায়গাতেই হয় পাসপোর্ট।

Read more...

নোংরা পরিবেশে তৈরি হচ্ছে খাবার, দেখার কেউ নেই?

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : অস্বাস্থ্যকর, নোংরা পরিবেশসহ পোড়া তেলে ভাজা বিভিন্ন খাবার নগরীজুড়ে বিক্রি হলেও সংশ্লিষ্ট দপ্তর এসব ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। স্বাস্থ্যের জন্য হানিকর এসব খাবার দেদারসে বিক্রি হচ্ছে প্রকাশ্যেই।

Read more...

আনোয়ার হোসেনের বক্তব্যে তোলপাড়, ‘অসুস্থ তিনি’ বললেন অনেকেই

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : ‘গ্যাসের দাম বৃদ্ধিতে সরকার সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে’ মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনে এমন মন্তব্যে সর্বত্র তোলাপাড় শুরু হয়েছে।

Read more...

নগরীতে হকার ও উচ্ছেদকারীদের ইঁদুর-বিড়াল খেলা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : একদিকে উচ্ছেদ আরেক দিকে দখল, বিগত কয়েক মাস ধরে এই চলছে নারায়ণগঞ্জ নগরীতে। এ যেন হকার আর উচ্ছেদ কর্মীদের ‘ইঁদুর বিড়াল খেলা’।

Read more...

না.গঞ্জের কারুশিল্পী বৃদ্ধ বিল্লাল হোসেনের করুণ আকুতি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জের অস্থায়ী বাসিন্দা বিল্লাল হোসেন বিক্রমপুরী। বর্তমানে তার বয়স ৮৪। বয়সের ভারে ন্যূব্জ বিল্লাল হোসেন একজন কারুশিল্পী।

Read more...

না.গঞ্জে অবৈধ গ্যাস সংযোগের মূলে প্রভাবশালী মহল, অসহায় তিতাস

গোলাম রাব্বি, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : গত শুক্রবার জমি ক্রয়ের উদ্দেশ্যে বন্দর ইউনিয়নে গিয়ে ছিলেন বেসরকারি এক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা আল-মামুন (ছদ্ম নাম)।

Read more...

পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে না.গঞ্জের প্রতিবন্ধী স্কুলে শিক্ষাদান ব্যাহত

গোলাম রাব্বি, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বড় হয়ে দেশ ও সমাজের উন্নয়নে গুরুত্বপূণ ভূমিকা পালন করবে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী রাবেয়া আক্তার। অভাব অনটনের মধ্যে থেকে মানুষের বাড়িতে কাজ করে মেয়েকে নিয়ে এমনই স্বপ্ন দেখেন স্বামী পরিত্যাক্তা শিউলী বেগম।

Read more...

ক্ষমতাসীন ক্যাডার ঘোষাই, স্টেশন মাস্টার ও পুলিশ খাচ্ছে মিলেমিশে!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : চাষাড়ায় রেলওয়ের জমিতে প্রায় ৬০টির মতো অবৈধ স্থাপনা গড়ে উঠেছে। এসব স্থাপনাকে কেন্দ্র করে মাদক থেকে শুরু করে নানা অপকর্ম পরিচালিত হচ্ছে বলে বিভিন্ন সূত্র হতে জানা গেছে।

Read more...

ফুটপাত থেকে শুরু করে গাড়ি, কোথায় নিরাপদ নারী?

আয়েশা জান্নাত, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জ জেলায় কোনো নারী ঘর থেকে বের হলে বলতে পারবে না যে, সে ইভটিজিং বা ভোগান্তি ছাড়া বাড়ি ফিরেছেন।

Read more...

সেলিম ওসমানের ঘোষণায় তোলপাড়!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : একেএম সেলিম ওসমান রাজনৈতিক পরিবারে জন্ম নিলেও রাজনীতির প্রতি তার তেমন কোনো আগ্রহ ছিল না। ব্যবসা নিয়েই ভাবতে ভালোবাসতেন তিনি। ব্যবসায়ীদের নেতৃত্বসহ বিভিন্ন সামাজিক কর্মযজ্ঞই ছিল তার প্রথম পছন্দ।

Read more...

এক মোক্তার অধ্যায় শেষ হলেও আরেক অধ্যায়ের সূচনা হতে সময় লাগে না

সীমান্ত প্রধান, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : নিশ্চিন্তপুর। নামটি শুনে যে কেউ ভাবতে পারেন যে, এখানকার মানুষ সব থেকে বেশি নিশ্চিন্তেই আছেন বা ছিলেন। এখানে দু:শ্চিন্তার কোনো কারণই নেই। কিন্তু ব্যাপারটা ঠিক তা নয়। পুরোটাই উল্টো।

Read more...

আদালতের নির্দেশ মানছে না কেউ, না.গঞ্জে যত্রতত্র ইংরেজি সাইনবোর্ড

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : উচ্চ আদালতের নির্দেশের প্রায় ৩ বছর পরও সাইনবোর্ড ও বিলবোর্ডে বাংলা লেখা নিশ্চিত করতে পারছে না সরকার। শুধু আদেশ বা চিঠি দিয়েই দায়িত্ব শেষ করা হয়েছে।

Read more...

শর্ষের ভেতর ভূত : প্রশ্নবিদ্ধ সোনারগাঁ থানা পুলিশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : আবারও প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে সোনারগাঁ থানা পুলিশ। তাদের নির্যাতনে শিল্পপতি থেকে শুরু করে নিরীহ সাধারণ মানুষও মুক্তি পাচ্ছে না। এ যখন বাস্তবতা, তখন পুলিশের বিরুদ্ধেই মাঠে নেমেছেন সচেতন নাগরিকেরা।

Read more...

প্রস্তুত শহর ও শহরতলীর শহীদ মিনার, ব্যস্ত ফুল দোকানিরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : আর কয়েক ঘণ্টা পরই ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। সাজানো হচ্ছে শহীদদের স্মৃতিতে নির্মিত শহীদ মিনার। ফুলে ফুলে ছেয়ে যাবে শহীদ মিনারের বেদি।

Read more...

বাড়ির পাশেই ভয়ঙ্কর আস্তানা! দুই শিশুকে খুন করে ফেলে দেয়া হয় কাঁচপুর ব্রিজ থেকে

লাইভ নারায়ণগঞ্জ : সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জেই রয়েছে ভয়ঙ্কর এক অপহরণ চক্রের আস্তানা। থানার নিমাইকাসারী এলাকা অবস্থিত মাদক ব্যবসায়ী জাকির হোসেন ও তার স্ত্রী মর্জিনা বেগম ওরফে বানেছার বাড়িতে দীর্ঘদিন ধরেই চলে আসছে অপহরণসহ নৃশংস হত্যাকা-ের ঘটনা।
 
সম্প্রতি র‌্যাবের অভিযানে আটক আটক হওয়া ৬ আসামীর মধ্যে একজনের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে উঠে এসেছে লোমহর্ষক সব কাহিনী। যা শুনে শিউরে উঠবে যে কারো হৃদপি-ও। কারো কারো কল্পনায়ও আসবে না এখানে শিশু অপহরণ, হত্যা, গুমসহ নানা অপকর্ম হতো।
 
জবানবন্দিতে উঠে এসেছে ওই বাড়িতেই দুই শিশুসহ চারজনকে খুন করা হয়েছিল। বাড়িটির বর্ণনায় জানা গেছে অত্যন্ত নির্জন স্থানে অবস্থিত ওই বাড়ি। বাড়ির এক অংশে একটি ডোবা ও সামনে রয়েছে একটি খেলা মাঠ। আশপাশে তেমন কোনো বাড়ি নেই। টিনশেডের একতলা বাড়ি এটি।
 
দীর্ঘদিন ধরেই ওই বাড়িটি একটি শক্তিশালী অপহরণ চক্রের নিরাপদ আস্তানা হিসেবেই ব্যবহৃত হয়ে আসছিল। এখানেই গত বছরের ডিসেম্বর ও চলতি বছরের জানুয়ারিতে খুন হয় চারজন। নৃশংস খুনের শিকার দুই শিশুও রয়েছে। এরা হলো নাজমুল (৮), আকাশ (১৬), জাহিদ (১৮) ও জুয়েল (১৯)। দুই শিশুকে অপহরণের পর এখানে এনে খুন করা হয় এবং তাদের মৃতদেহ ফেলা হয় কাঁচপুর ব্রিজের নিচে। এছাড়া জাহিদ ও জুয়েল ছিল অপহরকারী চক্রের সদস্য। তাদের ডেকে এনে খুন করা হয়েছিল। এই বাড়ির মালিক ও অপহরণকারী চক্রের মূল হোতা জাকির ও বানেছাকে সম্প্রতি গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
 
র‌্যাব-১১-এর জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. আলেপ উদ্দিন জানিয়েছেন, সিদ্ধিরগঞ্জের জাকির হোসেন ও বানেছা শিশু অপহরণকারী চক্রের প্রধান হোতা। তাদের বাসাতেই ডিসেম্বর ও জানুয়ারিতে একে একে চারজনকে খুন করা হয়। খুন করার পর শিশু দুটির লাশ কাঁচপুর ব্রিজের নিচে ফেলে দেয়া হয়। বাকি দুজনের লাশ ফেলা হয় পার্শ্ববর্তী ডেমরা এলাকায়।
 
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (অপারেশন) নাসির উদ্দিন সরকার জানান, জাকির হোসেনের সিদ্ধিরগঞ্জের বাসায় খুন করার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন আসামি টিটু। গত বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জের মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে তিনি এই জবানবন্দি দেন।
 
নাসির উদ্দিন বলেন, দুই বছর আগে জাকির-বানেছা দম্পতি শিশু অপহরণ চক্র গড়ে তোলেন। এই চক্রের সদস্যরা শিশুদের অপহরণ করে এনে প্রথমে জাকিরের বাসায় রাখতেন। পরে এই বাসা থেকে দালালেরা শিশুদের কিনে নিয়ে যেতেন। বাসায় ফেলেই খুন করা হয়েছে বলে চক্রের সদস্য টিটু জানিয়েছেন। খুনের প্রধান পরিকল্পনাকারী জাকির ও বানেছা।
 
স্থানীয়রা জানান, জাকির-বানেছা দম্পতি প্রায় ১২ বছর ধরে এই বাসায় ভাড়া ছিলেন। সাত মাস আগে ইউনুছ নামের এক ব্যক্তির কাছ থেকে ৪০ লাখ টাকা দিয়ে বাড়িটি কিনেছেন। তা ছাড়া সম্প্রতি কাঁচপুরে ১০ কাঠা জমিও কিনেছেন এই দম্পতি।
 
জানা গেছে, ওই বাসায় ঢোকার মূলফটক প্রায় সময় বন্ধ থাকে। জাকির-বানেছা এলাকায় ইয়াবা বিক্রেতা হিসেবে পরিচিত। বানেছা প্রকাশ্যেই এই মাদক বিক্রি করতেন। ওই বাসার ভেতর কী হতো, এলাকার সাধারণ মানুষ কেউই তা জানতেন না। তবে স্থানীয়ভাবে পরিচিত অনেক মাদক বিক্রেতার এখানে নিয়মিত যাতায়াত ছিল।
 
আটককৃত অপহরণকারী চক্রের সদস্য টিটুর ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি
জাকির হোসেনের সিদ্ধিরগঞ্জের বাড়িতে খুন করা হয়েছে। ডিসেম্বর ও জানুয়ারিতে এই খুন করা হয়। তিনি নিজে চার খুনেই জড়িত ছিলেন। অপহরণ করে দুই শিশুকে জাকির হোসেনের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। এরপর শিশু দুটিকে খুন করে লাশ কাঁচপুর ব্রিজ থেকে নিচে ফেলে দেন টিটু, দেলু ও জাকির।
 
নাজমুল নামের শিশুটিকে রূপগঞ্জের ভুলতা থেকে মাইক্রোবাসে করে অপহরণ করে নিয়ে আসা হয়। আর আকাশকে সিদ্ধিরগঞ্জের বাগমারা থেকে আনা হয়। জানুয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময়ে একই দিন এ দুই শিশুকে খুন করে অপহরণকারী চক্র। খুনের পর সেদিন রাত ১১টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জের জাকিরের বাসা থেকে অ্যাম্বুলেন্সে তোলা হয় দুজনের লাশ। গাড়ি চালিয়েছিলেন দেলু। গাড়িতে জাকিরও ছিলেন।
 
র‌্যাব জানিয়েছে, খুন হওয়া এ দুই শিশুর পুরো ঠিকানা এখনো জানা সম্ভব হয়নি। তাদের লাশও পাওয়া যায়নি। পুরো ঠিকানা বের করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।
 
জাহিদ ও জুয়েলের খুনের ব্যাপারে র‌্যাব কর্মকর্তা আলেপ বলেন, খুন হওয়া এই দুজনই জাকির হোসেনের দলের লোক ছিলেন। গ্রেপ্তার টিটু বলেছেন, টাকাপয়সার ভাগাভাগি নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে জাহিদকে বাসায় ডেকে এনে খুন করা হয়। পরে তার লাশ ফেলে দেওয়া হয় ডেমরার রাজধানী ফিলিং স্টেশনের পেছনে। ২ জানুয়ারি তার লাশ উদ্ধার করে ডেমরা থানার পুলিশ।
 
পুলিশ কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন জানান, জাহিদের বাড়ি বরিশালে। তিনি জাকির হোসেনের হয়ে মাদক বিক্রি করতেন। মাদকের টাকা নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে তাকে খুন করেছেন টিটু, জাকিরসহ অন্যরা।
 
র‌্যাব কর্মকর্তা আলেপ জানান, একটি মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে দেলু ও জুয়েলের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছিল। গত ডিসেম্বরে জাকিরের বাসায় ডেকে এনে জুয়েলকে হত্যা করেন টিটু, দেলুসহ অন্যরা। জাকিরের বাসায় খুন করার পর লাশ ডেমরা এলাকায় পুঁতে রাখা হয়।
 
গত ১০ ফেব্রুয়ারি জাহিদ খুনের অভিযোগে ডেমরা থানার মামলায় জাকিরসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে ডেমরা থানার পুলিশ। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডেমরা থানার এসআই তহিদুল ইসলাম জানান, জাহিদ খুনের মামলায় শিগগিরই জাকিরসহ ছয়জনকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে (সিএমএম) হাজির করে রিমান্ড চাওয়া হবে।
 
যেভাবে সন্ধান মিলে অপহরণকারীদের আস্তানা
গত বছরের ডিসেম্বরে নারায়ণগঞ্জ বন্দর এলাকা থেকে ৮ বছর বয়সী বায়েজিদ নামের এক শিশুকে অপহরণ করে জাকির চক্র। পরে বায়েজিদকে খুঁজতে গিয়েই সিদ্ধিরগঞ্জের এই আস্তানার সন্ধান পায় র‌্যাব।
 
র‌্যাব কর্মকর্তা আলেপ জানান, বায়েজিদকে অপহরণ করার পর তার মা একদিন তার কাছে আসেন। তিনি জানান, অপহরণকারীরা তার মুঠোফোনে মুক্তিপণ চেয়েছেন। যে নম্বর থেকে মুক্তিপণ চাওয়া হয়েছিল, সেই নম্বরে তিনি নিজে ১ হাজার ৫০০ টাকা পাঠান। পরে সিদ্ধিরগঞ্জের নিমাইকাসারী এলাকা থেকে ওই টাকা তোলেন টিটু নামের এক অপহরণকারী। পরে টিটুকে কমলাপুর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। টিটুই সিদ্ধিরগঞ্জের এই আস্তানার সন্ধান দেন।
 
অপহরণের পর যেভাবে চাওয়া হত টাকা
ইমন শিকদার (১৩)। তার বাবার নাম বাবুল শিকদার। বাড়ি বরিশাল। সে বরিশালের বিমানবন্দর এলাকার একটি মাদ্রাসায় ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ত। গত ২০ নভেম্বর বরিশাল থেকে ঢাকায় আসার জন্য লঞ্চে ওঠে। এরপর থেকে আর কোনো খোঁজ মেলেনি।
 
শিশু ইমনের নানা আবদুল মান্নান খান একটি শীর্ষ দৈনিককে বলেন, টিটু নামের একজন ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়েছেন, কিন্তু টাকা দিতে পারেননি। একই কথা জানালেন রাজধানীর মানিকনগরের বাসিন্দা সানির বাবা সাইদুল। ২২ ডিসেম্বর তার ছয় বছরের ছেলে সানি অপহৃত হয়। অপহরণকারীরা মুক্তিপণ চেয়েছেন। এ দুটি শিশুর মতো আরও কয়েকটি শিশুকে অপহরণ করে বিদেশে পাচার করার কথা স্বীকার করেছেন টিটু ও অন্যরা।
 
গ্রেপ্তার হওয়া জেসমিন ৭০-৮০ হাজার টাকার বিনিময়ে চক্রের সদস্য শাহাবুদ্দিন ও মনিরের কাছে সাতটি শিশু বিক্রির কথা স্বীকার করেছেন। শাহাবুদ্দিনকে গ্রেপ্তার করলে অনেক শিশুর সন্ধান মিলবে।
 
সূত্র বলছে, এই চক্রটি শিশুদের অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করতো। এছাড়া অপহরণের পর অনেক শিশুকেই তারা বিদেশে বিক্রি করে দিয়েছে। তাদের সাথে আরও অনেকেই সম্পৃক্ত রয়েছে। তদন্ত করে ওই সব অপহরণকারী এবং তাদের গডফাদারদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে অভিভাবক মহল। তথ্য সূত্র : প্রথম আলো

শঙ্কা কাটছে না : সংঘর্ষের পর থমথমে পাগলার কুতুবপুর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: মাদক ব্যবসায়িদের সঙ্গে এলাকাবাসীর সংঘর্ষের পর থেকে পাগলার রসূলপুর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। মাদক ব্যবসায়ীদের প্রতিহত করতে স্থানীয়রা তরুণ ও যুবকদের নিয়ে বৃহত্তম ঐক্য গড়েছেন।

Read more...

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম ২৪