Fri, 14 Dec, 2018
 
logo
 

না.গঞ্জ বিআরটিএ'তে লাইসেন্স প্রত্যাশীদের উপচে পড়া ভিড়

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: শিক্ষার্থীদের আন্দোলন আর পুলিশের ট্রাফিক সপ্তাহের প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথোরিটি-বিআরটিএ'র নারায়ণগঞ্জ কার্যালয়ে।

ড্রাইভিং লাইসেন্স, যানবাহনের ফিটনেস আর কাগজপত্র নবায়নে সক্রিয় হয়ে উঠেছেন চালক-মালিকরা। আগের চেয়ে প্রায় দ্বিগুণেরও বেশি আবেদন জমা পড়ছে বিআরটিএ'তে। যদিও দালালদের দৌরাত্ম নিয়ে অভিযোগ করেছেন অনেকেই। তবে বাড়তি চাপ সামাল দিতে বিশেষ ব্যবস্থা নেয়ার পাশাপাশি দালালদের দৌরাত্ম বন্ধে সতর্ক অবস্থান থাকার কথা জানিয়েছে বিআরটিএ।

স্কুল-কলেজের ইউনিফর্ম পরা কোমলমতি শিক্ষার্থীদের কাছে রীতিমত কাবু লাইসেন্সবিহীন চালক, আর ফিটনেসবিহীন গাড়ি। প্রায় সপ্তাহ ধরে চলা এ কর্মযজ্ঞ শেষে ঘর ফিরলো শিক্ষার্থীরা। এরইমধ্যে ঘোষণা হলো পুলিশের ট্রাফিক সপ্তাহ। আর এতেই টনক নড়ে উঠেছে শহরের যানবাহন সংশ্লিষ্টদের।

গত দুই দিন ধরে বিআরটিএ কার্যালয়ের উপচে ভিড় জানান দিচ্ছে সেই বার্তাই। ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া কিংবা যানবাহনের কাগজপত্র নবায়ন করতে হঠাৎই বেড়েছে আবেদনের হিড়িক। দীর্ঘদিন পড়ে থাকার পর যারা আলস্য ভেঙ্গে লাইসেন্সে নিতে এসেছেন, অনুপ্রেরণা হিসেবে তারা তুলে ধরছেন শিক্ষার্থীদের আন্দোলন আর প্রশাসনের কঠোর নির্দেশনা।

নারায়ণগঞ্জ জেলা ট্রাফিক বিভাগ বলছে, গত দুই দিনে প্রায় ৫ শতাধিক পরিবহন ও চালকের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এ মামলা গুলোর অধিকাংশই হয়েছে চালকদের বিরুদ্ধে।

এদিকে বিআরটিএ কার্যালয়ে লাইসেন্সের জন্য আসা একজন বলেন, 'শিক্ষার্থীরা যা করে দেখিয়েছে তার প্রতিফলন আজকে বিআরটিএতে এসে আমি পাচ্ছি।'

আরেকজন বলেন, 'দেশের যে অবস্থা হয়েছে। আসলে তো লাইসেন্স না রাখাটা অনৈতিক।'

বিআরটিএ নারায়ণগঞ্জ কার্যালয়ের কর্মকর্তা সৈয়দ আয়নুল হুদা চৌধুরী বলেন, গত সপ্তাহে লাইসেন্স করা হয়েছে ১০০ থেকে ১১০ টি। যা বর্তমান সপ্তাহে গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৬০ থেকে ১৭০ টিতে। তবে আগামী সাপ্তাহে আরো বাড়বে বলে আশা করছি।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম