Fri, 17 Aug, 2018
 
logo
 

ডেমরা-রূপগঞ্জেই যাত্রীদের অপচয় হবে তিন-চার ঘণ্টা


স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: অন্যান্য বারের মতো এবারও ঈদযাত্রায় দেশের অন্য মহাসড়কগুলোর মতো ঢাকা-সিলেট মহাসড়কেও ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হবে নাড়ির টানে বাড়ি ফেরা মানুষকে। রাজধানী থেকে বেরিয়েই যাত্রাবাড়ী-ডেমরা সড়কের ১০ কিলোমিটার এবং নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের অন্তত ১৮ কিলোমিটার অংশে অন্তত তিন থেকে চার ঘণ্টা করে যানজটে আটকে থাকতে হতে পারে যাত্রীদের।

ডেমরা : ঢাকা-সিলেট মাহাসড়কের ডেমরা-যাত্রাবাড়ী অংশ এমনিতেই অপ্রশস্ত। তার ওপর খানাখন্দ, অসময়ে অপরিকল্পিত ও সমন্বয়হীন উন্নয়ন কাজ, অতিরিক্ত বৈধ-অবৈধ মালবাহী ও যাত্রীবাহী যানবাহনের বেপরোয়া চলাচল, সড়কের পাশে অবৈধ স্থাপনা, ট্রাফিক পুলিশের নজরদারি না থাকা, যেখানে-সেখানে গাড়ি পার্কিং ও যাত্রী ওঠানো, ওভারটেকিং এবং সড়কের পাশে আবর্জনার অবৈধ অস্থায়ী ডাম্পিং স্টেশন তৈরি করায় এ সড়কে যানজট এখন নিত্যদিনের ঘটনা। রাজধানী থেকে বের হয়েই তিন থেকে চার ঘণ্টা মহাসড়কের এ অংশেই আটকে থাকতে হয় বলে জানান ভুক্তভোগী যাত্রীরা। ডেমরার সুলতানা কামাল সেতু থেকে যাত্রাবাড়ী পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার সড়ক। এর মধ্যে স্টাফ কোয়ার্টার, বাঁশেরপুল ও কোনাপাড়া বাসস্ট্যান্ড, মাতুয়াইল, যাত্রাবাড়ীর মৃধাবাড়ী, ভাঙ্গাপ্রেস ও কাজলা বাসস্ট্যান্ডসহ প্রতিটি স্টেশনেই রয়েছে অব্যবস্থাপনা। বাঁশেরপুল-কোনাপাড়ায় চালকরা যে যার মতোই যাত্রী ওঠানামা করান। মূল সড়কের সঙ্গে অভ্যন্তরীণ লিংক সড়কগুলোর অতিরিক্ত সংযোগ থাকায় চতুর্মুখী যানবাহন চলাচলের কারণে যখন তখন যানজট সৃষ্টি হয়।

রূপগঞ্জ : ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক রূপগঞ্জ অংশে ও এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কে প্রায় ১৮ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে প্রতিদিন যানজটে পড়েন যাত্রীরা। মহাসড়কের ভুলতা-গোলাকান্দাইল চত্বরে যানজট এখন নিত্যদিনের ঘটনা। গাউসিয়া মার্কেটে ঈদের ক্রেতাদের সমাগম, উড়াল সড়ক নির্মাণকাজ ও কাঞ্চন সেতুতে টোল আদায়ে ধীরগতির কারণে প্রতিদিনই বান্টি এলাকা থেকে তারাবো সুলতানা কামাল সেতু, এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কের বস্তল এলাকা থেকে পলখান পর্যন্ত এবং ভুলতা, গোলাকান্দাইল, আধুরিয়া, সাওঘাট, বরপা, রূপসী, বিশ^রোড এলাকা, কাঞ্চন ও কালাদি এলাকায় যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। এজন্য পরিবহন নেতাদের চাঁদাবাজি, যেখানে সেখানে যাত্রী ওঠানামা, চালকদের নিয়ম না মেনে গাড়ি চালানো, হাটবাজারে পণ্য লোড-আনলোড, ফুটপাতে দোকানপাট বসানো, হাইওয়ে ও ট্রাফিক পুলিশের দায়িত্বে অবহেলাকেই দায়ী করছেন পরিবহন শ্রমিকরা। অবশ্য পুলিশ বলছে, সড়ক গাড়ি বিকল ও নিয়ম ভঙ্গ করে যানবাহন চলাচলের কারণেই যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। যাত্রীদের অভিযোগ, মহাসড়কের রূপগঞ্জ অংশ পার হতে সময় লাগার কথা ২০ থেকে ৩০ মিনিট, অথচ সেখানে এখন লাগছে ৪ থেকে ৫ ঘণ্টা।
এ ছাড়া কাঞ্চন টোলপ্লাজায় চারটি কাউন্টার থাকলেও লোকবল সংকটে মাঝে মাঝে দুটি বন্ধ রাখা হয়। কাঞ্চন সেতুর টোল আদায়ে দায়িত্বরত ইনচার্জ কারিবুল ইসলাম বলেন, আসলে এখানে যানবাহনের চাপ অত্যন্ত বেশি।
ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টর ইকবাল হোসেন বলেন, লোকবল সংকটের পরও যানজট নিরসনে কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। তার মতে, মহাসড়কে গাড়ি বিকল হওয়া ও চালকরা নিয়ম ভঙ্গ করে গাড়ি চালানোর কারণেই যানজট সৃষ্টি হয় বেশি।
রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান মনির বলেন, হাইওয়ে ও ট্রাফিক পুলিশের পাশাপাশি থানা পুলিশ যানজট নিরসনে কাজ করে যাচ্ছে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম