Mon, 17 Dec, 2018
 
logo
 

রাস্তা দখল করে কর্মসূচি, যানজটে নগরবাসীর ভোগান্তি, ব্যর্থ এনসিসি ও প্রশাসন

গোলাম রাব্বি, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ১০ মিনিটে চলাচলের সড়ক পাড় হতে ৩০ মিনিটের বেশি রিকশায় বসে ছিলেন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী ইব্রাহীম খলিল। সময় মতো গন্তব্যে পৌছানোর লক্ষন না দেখে হেটেই পাড়ি দিতে হয়েছিলো পথটি। কিন্তু তারপরেও নিদিষ্ট সময় গন্তব্যে পৌছাতে না পাড়ায় চরম বিভ্রান্তীকর পরিস্থিতিতেও পড়তে হয়েছে তাকে।

একই অবস্থা রিকশা চালক আরব আলীর। চুক্তিভিত্তিতে রিকশা চালায়। দিন শেষে নির্দিষ্ট অংকের টাকা মালিককে জমা দিতে হয় তার। কিন্তু যানজটের এ অবস্থার জন্য জমা তুলতেই কষ্ট হচ্ছে এই চালকের।

শুধু যে ইব্রাহীম খলিল ও আরব আলীর একদিন এ অবস্থা হয়েছে, এমনটা নয়। প্রেস ক্লাবের সামনে এ চিত্র প্রায় প্রতিদিনের। রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে বিভিন্ন সংগঠন প্রতিনিয়ত কর্মসূচি পালন করায় বঙ্গবন্ধু সড়কের চাষাড়াগামী শত শত গাড়িকে দীর্ঘক্ষণ যানজটে আটকা পড়তে হয়। ভোগান্তিতে পড়েন হাজার হাজার মানুষ।

গত ৫ মার্চ সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, প্রেস ক্লাবের সামনে কর্মসূচি পালনের কারণে বঙ্গবন্ধু সড়কে যানবাহনের উপচে পড়া ভিড়। থেমে থেমে চলছে গাড়িগুলো। নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছাতে দেরি হবে এ কারণে ইব্রাহিম খলিলের মতো অনেকে হেঁটে রওনা হন। যানজটের কারণে অসুস্থবোধ করেন অনেকে।

রাস্তা দখল করে কর্মসূচি, যানজটে নগরবাসীর ভোগান্তি, ব্যর্থ এনসিসি ও প্রশাসন

 

এসময় আল মানুন নামের এক কলেজ ছাত্র বলেন, ‘সমাবেশ করবে করুক, কোনো সম্মেলন কেন্দ্রে কিংবা প্রেস ক্লাবের দক্ষিন পাশের সড়কে গিয়েই তো করতে পারে। রাস্তার ওপর সমাবেশ করলে আমাদের ভোগান্তিতে পড়তে হয়। তাদের কারণে আমাদের কেন ভোগান্তিতে পড়েত হবে?’

জামান নামের এক চাকরিজীবী বলেন, ‘একটি কাজে বের হয়েছিলাম। আধা ঘণ্টা বসে থেকে আবার অফিসে ফিরে যাচ্ছি। আমাদের ভোগান্তি দেখার তো কেউ নেই!’

নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বলেন, মানুষ তাদের দাবি দাওয়া উপস্থাপন করবে। এটা গণতান্ত্রীক অধিকার। বিদেশের বিভিন্ন শহরে মানুষের গণতান্ত্রীক অধিকার উপস্থাপনের জন্য নির্দিষ্ট স্থান আছে। কিন্তু আমাদের নারায়ণগঞ্জে সেই ধরণের কোন স্থানই তৈরি করেনি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ও সরকার। এছাড়া পুলিশ প্রেস ক্লাবের দক্ষিন পাশে সভা, সমাবেশ করতে দেয় না। কেন দেয়া হয় না, কার নির্দেশে দেয়া হয় না, তাও আমার জানা নেই।

এবিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শরফুদ্দীন লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, আমরা সব সময়ই চেষ্টা করি সভা, সমাবেশ গুলো যাবে চলাচলের যথাযথ জায়গা রেগেই হয়। কিন্তু যারা সভা-সমাবেশ গুলো করে, তারা হঠাৎ এসে দাঁড়িয়ে যায়। সভা সমাবেশের জন্য প্রেস ক্লাবের দক্ষিন অংশটি ব্যবহার করলে আমাদেরও জন্যও ভালো হতো।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম