Sun, 17 Jun, 2018
 
logo
 

বাতাসে মুকুলের পাগল করা ঘ্রাণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: গাছে গাছে আমের মুকুল। বাতাসে ভেসে বেড়াচ্ছে মৌ মৌ গন্ধ। মৌমাছিরাও ব্যস্ত মধু আহরণে। না, কোনো গ্রামের আম বাগানের দৃশ্য নয়। এ দৃশ্য নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় সড়কের পাশে, বাড়ির আঙিনায় কিংবা ছাদের আম গাছে তাকালেই দেখা যাচ্ছে।

ইটপাথরের কৃত্রিম নগরে আমের মুকুলের লাবণ্যময় দৃশ্য যেকোনো পথিকের হৃদয় স্পর্শ করবে।

একইভাবে জেলার গ্রামগুলোতে আমের মুকুলে মুকুলে ভ্রমরের গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। পাশাপাশি কচি পাতার আড়াল থেকে ভেসে আসা কোকিলের কুহুতানে উদাস করা প্রকৃতি হৃদয়ের গভীরে এক অনির্বচনীয় ব্যাকুলতা জাগিয়ে তুলছে।

বাতাসে মুকুলের পাগল করা ঘ্রাণএবার নির্ধারিত সময়ের কিছু দিন আগেই আমের মুকুল আসতে শুরু করেছে। বড় ধরনের কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না ঘটলে এ বছর আমের ভালো ফলন হবে বলে আশা করছেন কৃষিবিদ ও গাছের মালিকরা। আমচাষীরা মুকুল যাতে কুয়াশা ও পোকার আক্রমণে নষ্ট না হয় এজন্য বিভিন্ন ধরনের ওষুধ স্পে করে চলেছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের পূর্ব পাশে, লালখাঁ, রামারবাগ, জালকুড়ি, ভূইঘর এলাকার আমের মুকুলে সাজিয়ে আছে বৃক্ষ। চারদিকে ছড়িয়ে পড়ছে এই মুকুলের পাগল করা ঘ্রাণ। এখানকার বাতাস এখন আমের মুকুলের মৌ মৌ গন্ধে ভরপুর।

নগরী ছাড়াও জেলার সোনারগাঁ, রূপগঞ্জ, বন্দর উপজেলার আম গাছগুলোতে এখন শোভা পাচ্ছে থরে থরে মুকুল।

যে গন্ধ মানুষের মন ও প্রাণকে বিমোহিত করে। আম গাছগুলো তার মুকুল নিয়ে হলদে রঙ ধারণ করে সেজেছে এক অপরূপ সাজে।

খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম এলাকার আবুল কালাম আজাদ লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, শীত শেষ হতে না হতেই আম গাছে আসতে শুরু করেছে আমের মুকুল। মুকুল জানান দিচ্ছে মধুমাসের, তার সাথে বাতাসে বইছে সুন্দর নির্মল গন্ধ। শহরে থেকেও এমন দৃশ্য দেখে বেশ ভালো লাগছে। তার মতে, শহরে এত আমের মুকুল আগে কখনও দেখা যায়নি।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম