Wed, 13 Dec, 2017
 
logo
 

উৎসব বন্ধন হিমাচল যেন লোকাল বাস!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: কাউন্টার সার্ভিস নামে চালু হলেও এখন লোকাল বাসে রূপ নিয়েছে উৎসব, বন্ধন ও হিমাচল পরিবহণের বাসগুলো। ইচ্ছামতো বাস থামিয়ে যাত্রী উঠানো নামানোর ঘটনা ঘটছে অহরহ। দিনে দিনে টিকেটের মুল্য বৃদ্ধি হলেও সেবার মান নি¤œগামী বলে অভিযোগ ভুক্তভোগীদের।


কাউন্টার থেকে টিকেট কেটে লাইন ধরে উঠতে হয় এসব বাসে। বাস চলার পর অনেক যাত্রির মনে হয় ‘ভুল হয়েছে, এতদূর কাউন্টারে না গিয়ে রাস্তা থেকেই উঠতে পারতাম’। তাদের এমন ভাবনার পিছনে কাজ করে চালক ও হেল্পারের ভূমিকা। তারা কাউন্টার যাত্রি থেকে রাস্তার যাত্রির দিকেই নজর দেন বেশী।

দাঁড় করিয়ে কোনো যাত্রী নেয়ার নিয়ম না থাকলেও তারা অহরহ যাত্রী দাঁড় করিয়ে নিচ্ছে। এমনকি বাসের সব সিটে যাত্রি থাকলেও তারা অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে থাকে বলে অভিযোগ রয়েছে। বাসের হেলপাররা চেকারদের চোখ ফাঁকি দিয়ে বাড়তি আয়ের আশায় এসব অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে। আবার কখনো কখনো চেকারের সাথে সমঝোতা করেও চলে হেল্পাররা।

এদিকে দিন দিন টিকেটের মূল্য বাড়লেও তাদের সেবার মান অবনতির দিকে যাচ্ছে। আর এতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে যাধারন যাত্রীদের। যদিও এ বিষয়ে মুখ ফুটে কথা বলতে অনেকেই সাহস পান না। তবে স্যোশাল মিডিয়া ফেসবুকে ঠিকই তারা মুখ খুলেছেন। গত ৭ নভেম্বর এ বিষয়ে একটি পোষ্ট দেয়া হয়। এতে অনেকেই কমেন্টস করেছেন।

আব্দুল কাদির নামে একজন লিখেছেন, ‘নেতারা কমিশন পায়। যেমন ধরেন বন্ধন কাউন্টারে টিকেট চেক করে সে বলে আমি স্বেচ্ছাসেবক ...... সাংগঠনিক সম্পাদক। পাশে আবার ব্যানার ঝুলিয়ে রেখেছে’।

রাইসুল ইসলাম নামে একজন লিখেছেন, ‘আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কি বলেছেন জানেন?,, পরিবহণ সেক্টরের লোকেরা নাকি খুব ক্ষমতাশালী!!!

কিশোর সাহা লোকনাথ ইংরেজিতে লিখেছেন, ‘দিন দিন অবস্থা খুব খারাপ... এখন প্রতিদিনই এই অবস্থা। মালিকদের থেকে ড্রাইভারদের ইনকাম বেশি... কেউ কিছু বলা নেই’।

নারায়ণগঞ্জ পরিবহণ মালিক সমিতির সভাপতি মোক্তার হোসেন বলেন, মালিকপক্ষের ব্যবস্থাপনার অভাবের কারণেই এই ভোগান্তি সৃষ্টি হচ্ছে। যাত্রীদের এভাবে ভোগান্তিতে ফেলা উচিত হচ্ছে না।

যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ ফোরামের আহবায়ক রফিউর রাব্বি বলেন, এটা কোন নিয়ম-শৃঙ্খলার মধ্যে পড়ে না। আসলে এসব বাসগুলো যারা পরিচালনা করে তারাই কোন নিয়ম-শৃঙ্খলা মানে না। তাই তাদের দ্বারা পরিচালিত কোন কিছুই নিয়ম মানে না। এজন্য যাত্রীদেরকে সচেতন হতে হবে। তাদের অনিয়মকে রুখতে হবে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম