Fri, 28 Apr, 2017
 
logo
 

প্রথমবার নির্বাচিত: সীমাহীন ভালোলাগায় সোমবার দায়িত্ব গ্রহণ করছে তারা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : প্রথম চাওয়া, প্রথম পাওয়া যে কোন কিছুর অনুভূতিই একটু অন্যরকম। যা মুখে বলেও পুরোপুরি প্রকাশ করা সম্ভব হয় না। এ ভালো লাগা হৃদয়ের অলিন্দে ছেয়ে থাকে কুয়াশাচ্ছন্ন সকালবেলার মিষ্টি রোদ্দুরের মত।


সম্প্রতি শেষ হওয়া আলোচিত নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথ শেষ হয়েছে বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি)। এবার দায়িত্ব নেওয়ার পালা। সোমবার (৯ জানুয়ারি) নির্বাচিতরা দায়িত্বভার গ্রহণ করবে। এবারের নির্বাচিতদের মধ্যে কেউ কেউ আছেন জনপ্রতিনিধি হিসেবে পুরনো। আবার কেউ আছেন এবারের নির্বাচনই তার প্রথম নির্বাচন, প্রথমবারের মতো হয়েছেন নির্বাচিত।

প্রথমবার নির্বাচিত হওয়ার পর কেমন তাদের অনুভূতি? শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানেই বা কেমন অনুভূতি ছিল? নতুন দায়িত্ব গ্রহণ করতে যাচ্ছেন জনপ্রতিনিধি হিসেবে তারই বা অনুভূতিটা কেমন? দায়িত্ব গ্রহণের পর তারা মূলত কোন কাজগুলোকে প্রাধান্য দিবেন?

তবে, নতুন কাউন্সিলর হিসেবে যারা রয়েছে সবারই প্রত্যাশা জনগণের সেবা করা। তারা সবাই জনগণকে পরিপূর্ণ সেবা দিতে আপ্রাণ চেষ্টা করবেন বলেও জানিয়েছেন ‘লাইভ নারায়ণগঞ্জ’কে।

মতিউর রহমান মতি (৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর) : নির্বাচিত হওয়া এবং শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠানে তার ভালো লাগাটা ছিল আকাশচুম্বি। তারমতে, ‘এ ভালো লাগা বলে বোঝানো সম্ভব নয়’। তবে, তাকে নির্বাচিত করার জন্য তার ওয়ার্ডের ভোটারদের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, আমার প্রথম কাজ হবে জনগণের আশা-আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটানো। মানুষ আমোকে যে ভালোবাসা দিয়েছে তারা প্রতিদান স্বরূপ তাদের সেবা করাই হবে আমার একমাত্র লক্ষ্য।

শফিউদ্দিন প্রধান (১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর) :  তারমতে ওয়ার্ডের মানুষ দীর্ঘদিন ধরেই নানা উন্নয়ণ থেকে বঞ্চিত। তার একমাত্র লক্ষ্যই হচ্ছে এই ওয়ার্ডবাসীকে তাদের প্রাপ্য অধিকার বুঝিয়ে দেওয়া। এরমধ্যে রাস্তা-ঘাট মেরামতসহ ময়লা-আবর্জনামুক্ত পরিচ্ছন্ন একটি ওয়ার্ড করার ইচ্ছে পোষণ করেন তিনি।

তিনি তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, সোমবার (৯ জানুয়ারি) দায়িত্ব গ্রহণ করতে যাচ্ছি খুবই ভালো লাগছে। শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে সত্যিই অন্য রকম একটা অনুভূতি ছিল, যা বলে বোঝাতে পারবো না। এজন্য আমি আমার ওয়ার্ডবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞ। তারা চেয়েছেন বলেই আমি আজ সম্মানিত হয়েছি। এর প্রতিদান স্বরূপ তাদের সেবক হয়ে আমি কাজ করে যাব।

নাজমুল আলম সজল (১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর) : প্রথমবারের মত নির্বাচিত হয়ে শপথ গ্রহণ এবং দায়িত্ব নিতে যাওয়ার অনুভূতিটাই তার অন্যরকম। তার মতে, এ অনুভূতি অন্য কাউকে বলে বোঝানো সম্ভব নয়। তবে, এর জন্য তিনি স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

সজল বলেন, আমার সাধ্য অনুযায়ী জনগণের সেবা করে যাবো। ওয়ার্ডবাসী যে আশা নিয়ে আমাকে নির্বাচিত করেছে  আমি তাদের সেই আশা পূরণ করবো।

মো. আব্দুল করিম (১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর) : প্রথমবারের মত জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হলেও জনগণের সাথে তার সম্পর্কটা বহুদিন থেকেই। যখন যেভাবে পেরেছেন মানুষের কাজে আসার চেষ্টা করেছেন। তবে নির্বাচিত হওয়ার অনুভূতি অন্যরকম। শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানেও তার ভালো লাগা ছিল সব থেকে সুন্দর এবং স্মরণীয়।

তিনি বলেন, মা’কে আমি ধন্যবাদ জানাই, কারণ মায়ের নির্দেশেই জনসেবামূলক কাজে অংশ নেই। সেই ধারাবাহিকতায় নির্বাচনও করি। মানুষ আমাকে বিমুখ করে নি। আমায় নির্বাচিত করেছে। আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ। আমি সারা জীবন মানুষের পাশে যেন থাকতে পারি সে প্রত্যাশাই করছি।

গোলাম নবী মুরাদ (২০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর) : পারিবারিকভাবে তারা অনেক আগের থেকেই মানুষের সেবাই নিয়োজিত। সেই ধারাবাহিকতায় এবারের নির্বাচনে তিনিও এসেছেন জনপ্রতিনিধি হয়ে। ভোটাররা তাকে বিমুখ করেন নি বলে তিনি সবার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। আর প্রথমবারের মতো নির্বাচিত হওয়া, শপথ গ্রহণ এবং দায়িত্ব নিতে যাওয়ার অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মত নয় বলেই জানিয়েছেন তিনি।

মুরাদ বলেন, কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার পর আমার দায়িত্ব বেড়েছে। সেই অনুযায়ী মানুষের সেবা করার দায়িত্বটাও বেড়েছে। আমি চেষ্টা করব সর্বস্ব উজাড় করে মানুষের কল্যাণে কাজ করার।

এছাড়াও এবারের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মত কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন,  ১নং ওয়ার্ডে ওমর ফারুক, ২ নং ওয়ার্ডে মোঃ ইকবাল হোসেন, ৫ নং ওয়ার্ডে গোলাম মুহাম্মদ সাদরিল, ১০ নং ওয়ার্ডে ইফতেখার আলম খোকন, ১৮ নং ওয়ার্ডে মো. কবির হোসেন, ২৬ নং ওয়ার্ডে মো. সামসুজ্জোহা ও ২৭ নং ওয়ার্ডে কামরুজ্জামান বাবুল।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম ২৪