Tue, 12 Dec, 2017
 
logo
 

নারায়ণগঞ্জে এখনও চলছে ঝুঁকি নিয়ে ছোট আকারের পুরনো লঞ্চ!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নদীপথে চাঁদপুর-ঢাকাসহ কয়েকটি রুটে যাত্রীবাহী লঞ্চের কাঠামোগত পরিবর্তন করে আধুনিকায়ন হয়েছে অনেকদিন আগেই। তবে নারায়ণগঞ্জ রুটে এখনও চলছে ছোট আকারের সেই পুরনো লঞ্চ।

অথচ এসব লঞ্চের রয়েছে ফিটনেস আর সার্ভে সার্টিফিকেট! আর ঝুঁকি নিয়ে চলা এসব লঞ্চের যাত্রীরা নানা সুবিধা থেকে যেমন বঞ্চিত হচ্ছে, তেমনি আতঙ্ক নিয়ে পাড়ি দেন গন্তব্যে।

নারায়ণগঞ্জে এখনও চলছে ঝুঁকি নিয়ে ছোট আকারের পুরনো লঞ্চ!

এদিকে সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, শুধুমাত্র মালিকদের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন হলেই পাল্টে যেতে পারে এই পথের লঞ্চগুলো। সেই ব্রিটিশ আমল থেকে নদীপথে নারায়ণগঞ্জের সাথে চাঁদপুরের যোগাযোগ। এই ক্ষেত্রে প্রথমে পালতোলা নৌকা পরে কাঠের তৈরি ইঞ্জিন চালিত লঞ্চ ছিল যাত্রী পারাপারে প্রধান বাহন।

একই সময় ঢাকা ও দেশের দক্ষিণাঞ্চলের সাথেও এমনই যোগাযোগ ছিল। কিন্তু নারায়ণগঞ্জ ছাড়া অন্য রুটের লঞ্চগুলোর কাঠামোগত ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে অনেক আগে। যোগ হয়েছে প্রযুক্তিগত আধুনিক সুবিধাও। অথচ চাঁদপুর-নারায়ণগঞ্জ রুটে পুরনো লঞ্চই হচ্ছে যাত্রীদের যোগাযোগের একমাত্র বাহন। ফলে আধুনিক ধারার সব সুবিধা থেকে বঞ্চিত যাত্রীরা।

নারায়ণগঞ্জে এখনও চলছে ঝুঁকি নিয়ে ছোট আকারের পুরনো লঞ্চ!

শুধু তাই নয়, অনেক পুরনো ও জরাজীর্ণ কাঠামোর এসব লঞ্চ প্রচন্ড ঝুঁকি নিয়েই নদীপথ পাড়ি দিচ্ছে। তবে স্বীকার করলেন চাঁদপুর-নারায়ণগঞ্জ রুটের লঞ্চ কর্তৃপক্ষের লোকজনও তাদের সীমাবদ্ধতার কথা।
এবিষয়ে লঞ্চকর্মকর্তা মামুনুর রশিদ জানান, বৈধ কাগজপত্র নিয়ে এসব লঞ্চ চলাচল করলেও সময়ের প্রয়োজনে সেকেলে ধাঁচের। তবে লঞ্চ মালিকদের দৃষ্টি ভঙ্গি পরিবর্তন হলে যাত্রীদের উন্নত সেবা নিশ্চিত হবে।

চাঁদপুর-নারায়ণগঞ্জ নৌ-পথে নিয়মিত ১৫টি লঞ্চ চলাচল করে। চাঁদপুর-ঢাকার মতোই একই দূরত্বের এই পথে লঞ্চগুলো ৮টি স্থানে যাত্রা বিরতি করে থাকে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম