Fri, 28 Apr, 2017
 
logo
 

মহাসড়কে যানজট তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে বাড়ি ফিরছে মানুষ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: প্রতিবছর ঈদ এলেই শিল্পাঞ্চল খ্যাত নারায়ণগঞ্জে কর্মরত বিভিন্ন জেলার মানুষ তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে বাড়ি ফিরে।

এবারো তার ব্যতিক্রম নয়। ঈদের ছুটির পর থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলার সীমনা এলাকায় অবস্থিত ঢাকা চট্রগ্রাম মহাসড়ক ও ঢাকা সিলেট মহাসড়ক তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়ে থাকে ।
ঈদে ঘরমুখী মানুষ গতকালও দুভোগে পড়েছে। ঈদের আগে দেশের মহাসড়কগুলোতে সৃষ্টি হয়েছে অসহনীয় যানজট। এতে করে মহা ভোগান্তিতে পড়েছেন ঈদে ঘরমুখী মানুষ। যানজটের পাশাপাশি কোনো কোনো এলাকায় বৃষ্টি যাত্রীদের দুর্ভোগ আরও বাড়িয়েছে।
অতিরিক্ত যানবাহনের কারণে ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে সৃষ্টি হয়েছে দীর্ঘ যানজটের। বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুরু হওয়া এ যানজট শনিবার আরও প্রকট আকার ধারণ করেছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কুমিল¬ার দাউদকান্দি উপজেলার রাজারহাট থেকে গজারিয়া উপজেলার মেঘনা সেতু এলাকা পর্যন্ত বিচ্ছিন্নভাবে প্রায় ২৫ কিলোমিটার এলাকায় যানজট সৃষ্টি হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত একটা থেকে এ মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। শুক্রবার রাত দশটার পর দাউদকান্দির রায়পুর পর্যন্ত ১৫ কিলোমিটার জুড়ে স্থবির হয়ে পড়ে। হাইওয়ে ও থানা-পুলিশের চেষ্টায় যানজট কিছুটা কমে এলেও  গতকাল শনিবার সকাল ১০টার পর থেকে আবার তা বাড়তে শুরু করে।
শনিবার সকাল দশটায় দাউদকান্দির মেঘনা গোমতী সেতুর ওপর কুমিল¬ার মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্স থেকে ঢাকাগামী রোগী বহনকারী অ্যাম্বুলেন্সের চালক সোহাগ জানান, তিতাস উপজেলার কাওরিয়ারচর গ্রামের আছিয়া বিবিকে (৬৫) নিয়ে ঢাকায় রওনা দিয়ে তিন কিলোমিটার পথ অতিক্রম করতে তিন ঘণ্টারও বেশি সময় লেগেছে।
দাউদকান্দির মাইজপাড়ায় সকাল সাড়ে নয়টায় চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী কাভার্ডভ্যানের চালক জাকারিয়া জানান, চার দিন ধরে দাউদকান্দি থেকে সোনারগাঁওয়ের মেঘনা সেতুর পশ্চিমপ্রান্ত পর্যন্ত তীব্র যানজট লেগে আছে। ২৫ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করতে তাঁর প্রায় আট ঘণ্টা সময় লেগেছে।
মেঘনা গোমতী সেতুর টোলপ¬াজা এলাকায় কুমিল¬ার নির্বাহী হাকিম ম্যাজিস্ট্রেট এ কে এম ফয়সাল বলেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম জাতীয় মহাসড়কটি চলতি বছর চার লেন চালু হওয়ায় গাড়িগুলো মেঘনা-গোমতী, মেঘনা ও কাঁচপুর সেতুতে দুই লেনে চলাচল করতে গিয়ে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। তবে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রাখতে দিন রাত কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন গজারিয়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) শাহজামান রাজ।
ঢাকা থেকে দাউদকান্দিগামী কয়েকজন যাত্রী ও গাড়ি চালক জানান, সকাল আটটায় ঢাকা থেকে রওনা দিয়ে মেঘনা সেতু এলাকায় এসে যানজটে আটকা পড়ে এক ঘণ্টার পথ অতিক্রম করতে প্রায় চার ঘণ্টা লেগেছে। ঢাকাগামী কাভার্ডভ্যানের চালক বাবুল মিয়া জানান, মেঘনা-গোমতী ও মেঘনা সেতু এলাকায় টোল আদায়ে নতুন পদ্ধতি চালু করায় টোল নিতে দেরি হচ্ছে। এ কারণে যানজট কমছে না।
দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল আউয়াল বলেন, যান চলাচল স্বাভাবিক করতে হাইওয়ে পুলিশের চেষ্টা চলছে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম ২৪